ভিমেশ্বর শিব ধাম

ভিমেশ্বর দ্বাদশ জ্যোতিলিঙ্গ শিব ধাম (ইংরাজী: Bhimeswar Dwadas Jyotirlinga Dham) হচ্ছে গুয়াহাটি-এর পামহীর কাছের ডাকিনী পাহাড় বা ডাইনী পাহাড়ে (ডাইনী বাম) অবস্থিত একটি জ্যোতিলিঙ্গ ধাম। এই ধাম দীপর বিল-এর সামনের পার্বত্য অঞ্চলে অবস্থিত। পৌরাণিক আখ্যান মতে এখানে ভগবান মহাদেব ভিমাসুর নামের দৈত্যকে নিধন করতে অবতার ধারণ করেছিলেন।

ভিমেশ্বর শিব ধাম
Bhimeswar Dham
Bhimeshwar Dham Gate.jpg
ভিমেশ্বর ধামের প্রবেশদ্বার
ধর্ম
অন্তর্ভুক্তিহিন্দুধর্ম
অবস্থান
অবস্থানডাইনী বাম, গুয়াহাটি
রাজ্যআসাম
দেশভারত

ডাকিনী পাহাড়ের অবস্থান একটি বিতর্কের বিষয়। শিব পুরাণ এবং কৌটি রুদ্র সংহিতা মতে ভিমাশঙ্কর (বা ভিমেশ্বর) ডাকিনী পাহাড়ে অবস্থিত। সেজন্য ভক্তরা পামহীর এই ধামকে দ্বাদশ জ্যোতিলিঙ্গ রূপে বিশ্বাস করেন। অনেকলোক পুণা শহরের কাছের ভিমাশঙ্কর ধামকেও দ্বাদশ জ্যোতিলিঙ্গ রূপে আরাধনা করেন।

এই ধামে কোনো মন্দির দেখতে পাওয়া যায় না। বরঞ্চ এখানে একটি শিবলিঙ্গ এবং সেই শিবলিঙ্গের সামনে দিয়ে বয়ে থাকা একটি পার্বত্য ঝোরা দেখতে পাওয়া যায়। এই শিবলিঙ্গকে এখানে আরাধনা করা হয়। এই স্থানের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য অতি মোহনীয়।

জ্যোতিলিঙ্গর সাথে বয়ে থাকা পার্বত্য নিজরা

পৌরাণিক আখ্যানসম্পাদনা

শিব পুরাণে উল্লেখ থাকা মতে, লঙ্কেশ্বর রাবণ-এর ভাই কুম্ভকর্ণ পাতাল-এর রাজার পুত্রী কার্কতীকে বিয়ে করতে চান। রাবণ পাতাল যান এবং কুম্ভকর্ণকে রামের বিরুদ্ধে যুদ্ধে আমন্ত্রণ জানান। কিন্তু কুম্ভকর্ণ যতক্ষণ রাবণ তাঁকে কার্কতীর সাথে বিবাহে সম্মতি প্রদান না করেন, ততক্ষণ যুদ্ধে যেতে অসম্মত থাকেন। পরে নারদ মুনির উপদেশে রাবণ এই বিবাহে সম্মতি প্রদান করেন। বিয়ের পরে কার্কতীকে ছেড়ে কুম্ভকর্ণ যুদ্ধে রাওনা হয়। যুদ্ধে কুম্ভকর্ণর মৃত্যুর পরে কার্কতী কুম্ভকর্ণের পুত্রকে জন্ম দেন এবং এই পুত্রই ভিমাসুর নামে পরিচয় লাভ করে। পরে ভিমাসুর ভগবান ব্রহ্মার তপস্যা করে এবং তাঁর থেকে বর লাভ করে। বর লাভ করে ভিমাসুর ভগবান বিষ্ণুকে প্রত্যাহ্বান জানায় এবং যুদ্ধে আমন্ত্রণ করে। বিষ্ণু এই প্রত্যাহ্বানের প্রতি সম্মতি জানান এবং ভিমাসুরের সাথে যুদ্ধ করেন। ব্রহ্মার বরের মূল্য রাখতে এই যুদ্ধে বিষ্ণু পরাজয বরণ করেন। এরে পরে ভিমাসুর অহংকারী হয়ে পড়ে এবং বিভিন্ন রাজাকে বশ এবং বন্দী করা আরম্ভ করে। ভিমাসুর কামরূপ-এর রাজা প্রিয়ধর্মনকে (কামরূপেশ্বর) পরাজিত করে তাঁকে এবং তাঁর পত্নী দক্ষিণাদেবীকে কারারুদ্ধ করে রাখে। [১]

প্রিয়ধর্মন এবং তাঁর পত্নী শিবভক্ত ছিল এবং তাঁরা কারাগারেও শিবের আরাধনা করেছিল। ভিমাসুর তাঁদের আরাধনায় ব্যাঘাত ঘটাতে সৈনিক পাঠায়; কিন্তু শিবের ক্রোধে সকলে ভস্ম হয়েছিল। তখন ভিমাসুর প্রিয়ধর্মনকে নিধন করতে চায়। ভিমাসুর আরাধনায় মগ্ন প্রিয়ধর্মনকে আক্রমণ করে, কিন্তু তাঁর তরোয়াল গিয়ে প্রিয়ধর্মনের আরাধনা করা শিবলিঙ্গে আঘাত হানে। সাথে সাথে ভগবান শিবের ভিমাশঙ্কর রূপের আবির্ভাব ঘটে এবং তিনি ভিমাসুরকে বধ করেন। শিবের শরীরের ঘাম থেকে একটি নদীর সৃষ্টি হয় এবং ভক্তরা বর্তমানে এই ধামে বয়ে যাওয়া ঝোরাটিকে সেই নদী বলে বিশ্বাস করেন। এই ঘটনার পরে, যে স্থানে রাজা কামরূপেশ্বর শিবের আরাধনা করেছিলেন, সেই স্থান ভিমেশ্বর নামে পরিচিত হল। দেবতা এবং ভক্তদের অনুরোধে ভগবান শিব এই স্থানে ভিমাশঙ্কর নামে বিরাজ করতে সম্মত হন। তখন থেকে এই ধাম জ্যোতিলিঙ্গরূপে পূজিত হয়ে আসছে। [২]

যাতায়তসম্পাদনা

এই ধাম গুয়াহাটি শহরের কেন্দ্র থেকে ১৩ কিমি দূরে অবস্থিত। ভিমেশ্বর ধামে যেতে গুয়াহাটির ৩৭ নং জাতীয় সড়ক থেকে পামহীর পিছনে যেতে হয়। গুয়াহাটি রাজ্য তথা দেশের অন্য অঞ্চলের সাথে পথ, রেল এবং বিমান যাতায়ত সুসংলগ্ন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. শিব পুরাণ ২৮-৩১ অধ্যায় 
  2. The Assam Tribune: Shiva Ratri celebration at Bhimeswar dham

টেমপ্লেট:Hindu Temples in Assam