ব্রায়ান বুথ

অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার

ব্রায়ান চার্লস বুথ, এমবিই (ইংরেজি: Brian Booth; জন্ম: ১৯ অক্টোবর, ১৯৩৩) নিউ সাউথ ওয়েলসের বাথহার্স্টে জন্মগ্রহণকারী সাবেক ও প্রথিতযশা অস্ট্রেলীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেট তারকা। ১৯৬১ থেকে ১৯৬৬ মেয়াদে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। দলে তিনি মূলতঃ মাঝারিসারির ব্যাটসম্যানের ভূমিকা পালন করতেন। ডানহাতে ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি ডানহাতে অফ স্পিন বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন ব্রায়ান বুথ। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে নিউ সাউথ ওয়েলসের প্রতিনিধিত্ব করেন।[১]

ব্রায়ান বুথ, এমবিই
আনুমানিক ১৯৫৯ সালের সংগৃহীত স্থিরচিত্রে ব্রায়ান বুথ
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম
ব্রায়ান চার্লস বুথ
জন্ম (1933-10-19) ১৯ অক্টোবর ১৯৩৩ (বয়স ৯০)
পার্থভিল, বাথহার্স্ট, নিউ সাউথ ওয়েলস, অস্ট্রেলিয়া
ডাকনামস্যাম
উচ্চতা১.৮১ মিটার (৫ ফুট ১১ ইঞ্চি)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি অফ স্পিন
ভূমিকামাঝারিসারির ব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় দল
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২২১)
২৭ জুলাই ১৯৬১ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট৭ জানুয়ারি ১৯৬৬ বনাম ইংল্যান্ড
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৫৫–১৯৬৮নিউ সাউথ ওয়েলস
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ২৯ ১৮৩
রানের সংখ্যা ১৭৭৩ ১১২৬৫
ব্যাটিং গড় ৪২.২১ ৪৫.৪২
১০০/৫০ ৫/১০ ২৬/৬০
সর্বোচ্চ রান ১৬৯ ২১৪*
বল করেছে ৪৩৬ ২১১২
উইকেট ১৬
বোলিং গড় ৪৮.৬৬ ৫৯.৭৫
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ২/৩৩ ২/২৯
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১৭/০ ১১৯/০
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭

প্রারম্ভিক জীবন সম্পাদনা

১৯৫২ সালে সিডনিতে চলে যান ও শিক্ষকতা পেশায় অংশগ্রহণের লক্ষ্যে সিডনি টিচার্স কলেজে প্রশিক্ষণকালীন গ্রেড ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় অংশ নেন।[২][৩] প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে নিউ সাউথ ওয়েলসের পক্ষে অভিষেক ঘটে তার। নিজস্ব দ্বিতীয় খেলায় ১৯৫৪-৫৫ মৌসুমে লেন হাটনের নেতৃত্বাধীন সফরকারী ইংল্যান্ড একাদশের বিপক্ষে স্মরণীয় নৈপুণ্য প্রদর্শন করেন।[২][৩][৪][৫]

খেলোয়াড়ী জীবন সম্পাদনা

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে ২৯ টেস্ট ও ৯৩টি প্রথম-শ্রেণীর খেলায় অংশ নিয়েছেন। মাঝারিসারির ব্যাটসম্যান হিসেবে সচরাচর ৪ অথবা ৫ নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামতেন তিনি। এছাড়াও মাঝে-মধ্যে ডানহাতে মিডিয়াম পেস কিংবা অফ স্পিন বোলিং করতেন ব্রায়ান বুথ। মাঠে চমৎকার ক্রীড়াসুলভ মনোভাবের পরিচয় দিতেন।

১৯৬১ সালে ইংল্যান্ড সফরে অস্ট্রেলিয়া দলের সদস্য মনোনীত হন। সিরিজের শেষ দুই টেস্টে অংশ নেন।[৪][৫] দেশে ফিরে ১৯৬২-৬৩ মৌসুমে সফরকারী ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দুইটি সেঞ্চুরি করেন ও দলের নিয়মিত সদস্যরূপে অন্তর্ভুক্ত হন। পরবর্তী গ্রীষ্মে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে আরও দু'টি সেঞ্চুরি করেন। ফলশ্রুতিতে তিনি অস্ট্রেলিয়ার বর্ষসেরা ক্রিকেটারের মর্যাদা পান। রিচি বেনো ক্রিকেট থেকে অবসর নিলে সিম্পসন অধিনায়ক ও তিনি সহঃ অধিনায়কের দায়িত্ব পান। ১৯৬৪ সালে অস্ট্রেলিয়া সফলভাবে ইংল্যান্ড সফর শেষ করে ও অ্যাশেজ করায়ত্ব করে।

১৯৬৫-৬৬ মৌসুমে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্ট সিরিজে অংশ নেন। নিয়মিত অধিনায়ক বব সিম্পসনের গুটিবসন্তে আক্রান্ত হওয়া ও পরবর্তীকালে কব্জি ভেঙ্গে যাওয়ার কারণে ১৯৬৫-৬৬ মৌসুমের অ্যাশেজ সিরিজে প্রথম ও তৃতীয় টেস্টে দলের অধিনায়কেরও দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।[৬] প্রথম টেস্টটি ড্র হলেও তৃতীয় টেস্টে গত দশ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো ইনিংসের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিল।

অবসর সম্পাদনা

 
১৯৬০ সালে নিউজিল্যান্ড গমনকালে ইয়ান ক্রেগ, জনি মার্টিন ও ব্রায়ান বুথের (ডানে) সংগৃহীত স্থিরচিত্র

দূর্বল ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শনের কারণে অস্ট্রেলিয়ার দল নির্বাচকমণ্ডলী অস্ট্রেলিয়া দলের ব্যাপক রদ-বদল ঘটায়[৬] ও তার খেলোয়াড়ী জীবনের সমাপ্তি ঘটে।[৭] ক্রিকেট থেকে অবসর নেযার পর তিনি নিজের শিক্ষকতা পেশায় ফিরে যান।

১৯৬৩-৬৪ মৌসুমে খেলোয়াড়ী জীবনের স্বর্ণালী সময়ে অবস্থানকালে বর্ষসেরা অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার হিসেবে মনোনীত হন।[৫] ২০১৪ সালে জিওফ লসনমার্গারেট পেডেনের সাথে তাকেও নিউ সাউথ ওয়েলস হল অব ফেমে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।[৮]

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. "List of Players who have played for New South Wales" (ইংরেজি ভাষায়)। www.cricketarchive.com। সংগ্রহের তারিখ ১২ আগস্ট ২০১৭ 
  2. Perry (2000), p. 246.
  3. Robinson, p. 275.
  4. "Player Oracle BC Booth" (ইংরেজি ভাষায়)। CricketArchive। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৫-১৪ 
  5. Cashman, Franks, Maxwell, Sainsbury, Stoddart, Weaver, Webster (১৯৯৭)। The A-Z of Australian cricketers (ইংরেজি ভাষায়)। Melbourne: Oxford University Press। পৃষ্ঠা 27–28। আইএসবিএন 0-19-550604-9 
  6. Perry (2000), p. 245.
  7. "Statsguru - BC Booth - Tests - Innings by innings list" (ইংরেজি ভাষায়)। Cricinfo। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০৪-০২ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  8. "Brian Booth, Geoff Lawson and Margaret Peden to be Inducted into Cricket NSW Hall of Fame" (ইংরেজি ভাষায়)। The Bradman Foundation। ২০১৪-০৩-২৮। ২০১৫-০৫-১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৫-০৫-১২ 

আরও দেখুন সম্পাদনা

গ্রন্থপঞ্জি সম্পাদনা

বহিঃসংযোগ সম্পাদনা

পূর্বসূরী
বব সিম্পসন
অস্ট্রেলীয় টেস্ট ক্রিকেট অধিনায়ক
১৯৬৫/৬৬
উত্তরসূরী
বব সিম্পসন