বাংলাদেশে ক্রিকেটের ইতিহাস

বাংলাদেশে ক্রিকেটের ইতিহাস সময়ের সাথে ক্রমান্বয়ে সমৃদ্ধশালী। অক্টোবর, ১৯৯৯ সালে প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ ক্রিকেট দল প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করে। কিন্তু পরিবর্তিত রাজনৈতিক অবস্থায় ভারতীয় উপমহাদেশে অবস্থান করায় বাংলাদেশের দীর্ঘকালীন ক্রিকেট ইতিহাস রয়েছে।

বাংলাদেশের আত্মপ্রকাশসম্পাদনা

১৯৪৭ সালে ভারত বিভাজনের পর বাংলাদেশের নির্দিষ্ট সীমারেখা গড়ে উঠে যা পূর্ব পাকিস্তান নামে পরিচিতি পায়। ভারতের প্রায় ১,৬০০ কিলোমিটার দূরে পশ্চিমাংশে পাকিস্তানের প্রধান প্রশাসনিক কেন্দ্র রচিত হয়। প্রধান ধর্ম ইসলাম হওয়া স্বত্ত্বেও জাতিগত ও ভাষার পার্থক্যের ফলে ১৯৭১ সালে বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চৌকষ নেতৃত্বে সংগঠিত মহান মুক্তিযুদ্ধে বাংলাদেশ স্বাধীনতা লাভ করে যাতে প্রত্যক্ষভাবে ভারত সরকার সর্বাত্মক সহযোগিতা করেছিল। ২৬ মার্চ, ১৯৭১ তারিখে বাংলাদেশ আনুষ্ঠানিকভাবে পাকিস্তানের কাছ থেকে স্বাধীনতা ঘোষণা করে ও ১৬ ডিসেম্বর, ১৯৭১ তারিখে রেসকোর্স ময়দানে পাকবাহিনীর আত্মসমর্পণের মাধ্যমে নতুন দেশ হিসেবে বাংলাদেশ বিশ্ব রাজনীতিতে আত্মপ্রকাশ করে।[১]

পূর্ব বাংলায় ক্রিকেটসম্পাদনা

অষ্টাদশ শতকে ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি বাংলায় প্রথম ক্রিকেট খেলার প্রচলন করে। ১৭৯২ সালে প্রথমবারের মতো ক্রিকেট খেলা আয়োজনের কথা জানা যায়। সম্ভবতঃ আরও একদশক পূর্বে খেলাটি অনুষ্ঠিত হতে পারে। ১৯৩৪ সালে ব্রিটিশ ভারতে অবস্থান করে ভারতীয় ক্রিকেট নিয়ন্ত্রণ বোর্ড রঞ্জি ট্রফি প্রতিযোগিতার প্রচলন ঘটায়। ১৯৩৮-৩৯ মৌসুমে বাংলা শিরোপা লাভ করে। ভারত বিভাজনের ফলে বাংলাও বিভক্ত হয়ে যায়। ১৯৫৪ সালের পূর্ব পর্যন্ত পূর্ব বাংলা আনুষ্ঠানিকভাবে কোন খেলায় অংশ নেয়নি।

পূর্ব পাকিস্তানে ক্রিকেটসম্পাদনা

১৯৫৪-৫৫ মৌসুম থেকে ১৯৭০-৭১ মৌসুম পর্যন্ত পূর্ব পাকিস্তানের ১০টি প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট দল পাকিস্তানের ঘরোয়া ক্রিকেটে কায়েদ-ই-আজম ট্রফিআইয়ুব ট্রফিতে অংশগ্রহণ করেছিল। ১৯৫৪-৫৫ মৌসুমে সফরকারী ভারতীয় একাদশ ও ১৯৫৫-৫৬ মৌসুমে এমসিসি দল পূর্ব পাকিস্তান দলের বিপক্ষে অংশগ্রহণ করে। ভারতীয় একাদশ খেলায় জয় পেয়েছিল।

পাকিস্তানের অংশ হিসেবে থাকায় বাংলাদেশে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট ও টেস্ট ক্রিকেট খেলা আয়োজনের দায়িত্ব পায়। জানুয়ারি, ১৯৫৫ সালে ভারতের বিপক্ষে খেলার জন্য পাকিস্তান দল ঢাকায় অবস্থিত বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম প্রথমবারের মতো ব্যবহার করে। ১৯৭১ সালের স্বাধীনতার পূর্ব পর্যন্ত টেস্টসহ অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ খেলায় এ স্টেডিয়ামকে ব্যবহার করা হয়েছিল। চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে ১৯৫৪ সালে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলা আয়োজন করা হলেও স্বাধীন বাংলাদেশের টেস্ট মর্যাদা প্রাপ্তির পর ২০০১ সালে টেস্ট খেলা আয়োজনের সুযোগ পায়।

বাংলাদেশে ক্রিকেটসম্পাদনা

স্বাধীন বাংলাদেশে ১৯৭২ সালে নিজস্ব ক্রিকেট খেলা আয়োজনের ব্যবস্থা গড়ে উঠে। এ সময়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড প্রতিষ্ঠিত হয়।[২] ১৯৭৪-৭৫ মৌসুমে জাতীয় পর্যায়ের ক্রিকেট প্রতিযোগিতা শুরু হয়।

৩১ মার্চ, ১৯৮৬ তারিখে পূর্ণাঙ্গ শক্তিধর ও টেস্টখেলুড়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথমবারের মতো একদিনের আন্তর্জাতিকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। দলের অধিনায়ক গাজী আশরাফ হোসেন লিপু'র নেতৃত্বে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল মাত্র ৯৪ রানে গুটিয়ে যায়। সাত উইকেট হাতে রেখেই পাকিস্তান কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছে।

২৬ জুন, ২০০০ সালে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলের পূর্ণাঙ্গ সদস্যের মর্যাদা লাভ করে।[৩] বোর্ডের নাম পরিবর্তিত হয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড নামকরণ হয়।[৪] ১০-১৩ নভেম্বর, ২০০০ সালে বাংলাদেশ দল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী টেস্টে ভারতের মুখোমুখি হয়। খেলায় ভারত দল নয় উইকেটে জয় পায়।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. http://history-of-freedom-for-bangladesh[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. About BCB, Bangladesh Cricket Board, সংগ্রহের তারিখ ১১ মার্চ ২০১১ 
  3. http://www.tigercricket.com.bd/
  4. Board's name amended by government notification, Cricinfo, ১৩ জানুয়ারি ২০০৭, সংগ্রহের তারিখ ১১ মার্চ ২০১১ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

আরও দেখুনসম্পাদনা

আরও পড়ুনসম্পাদনা

  1. http://Wisden-Cricketers'-Almanack-2006-(especially p. 1380-1386)