প্রধান মেনু খুলুন

বসন্ত চৌধুরী

ভারতীয় অভিনেতা

বসন্ত চৌধুরী,[১] (৫ মে ১৯২৮ - ২০ জুন ২০০০) তিনি কলকাতাভিত্তিক বাংলা চলচ্চিত্র শিল্প এবং মুম্বইভিত্তিক হিন্দি চলচ্চিত্র জগতের একজন অভিনেতা ছিলেন। তিনি পরিচালক অসিত সেন, রাজেন তরফদার, অজয় কর এবং বিজয় বোস পরিচালিত[২] একাধিক চলচ্চিত্রে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

বসন্ত চৌধুরী
Basanta Chowdhury 01.jpg
বসন্ত চৌধুরী
জন্ম৫ মে ১৯২৮
মৃত্যু২০ জুন ২০০০(2000-06-20) (বয়স ৭২)
জাতীয়তাভারতীয়
শিক্ষাদীন নাথ উচ্চ বিদ্যালয়, নাগপুর
পেশাঅভিনেতা ও প্রযোজক
কার্যকাল১৯৫২ থেকে ১৯৯৩ (৪১ বছর)
দাম্পত্য সঙ্গীআলোকা চৌধুরী
সন্তান
পুরস্কারবি.এফ.জে.এ কর্তৃক রাজা রামমোহনের জন্যে সেরা অভিনেতা পুরস্কার; বাংলা স্টেজ সেন্টেনারি স্টার থিয়েটার পুরস্কার
সম্মানকলকাতার শেরিফ, নন্দন-পশ্চিম বাংলা চলচ্চিত্র কেন্দ্রের চেয়ারম্যান

চৌধুরীর নিজস্ব কাশ্মীরি ও পারস্য শালের সংগ্রহ ছিল। পরিচালক সত্যজিৎ রায় এই সংগ্রহগুলি প্রশংসিত করেছিলেন এবং তাঁর নির্মিত মাস্টারপিসগুলির জন্য ব্যবহার করেছিলেন।

জন্ম ও শৈশবসম্পাদনা

বসন্ত চৌধুরী হাওড়ার আন্দুলের ধনাঢ্য দত্ত চৌধুরী পরিবারে জন্মগ্রহণ করেছিলেন।[৩] তিনি ছিলেন সিদ্ধেশ্বর চৌধুরী ও কমলা দেবীর জ্যেষ্ঠ পুত্র। তাঁর ছোট ভাই ছিলেন প্রশান্ত চৌধুরী। খ্যাতিমান এ অভিনেতা নাগপুরে জন্মগ্রহণ করেছিলেন এবং সেখানেই তাঁর শৈশবকাল কাটিয়েছেন। তাঁর স্কুল এবং কলেজের পড়াশোনা সেখানেই সম্পন্ন হয়েছিল। ১৯৪৫ খ্রিস্টাব্দে তিনি দীন নাথ উচ্চ বিদ্যালয় নাগপুর থেকে ম্যাট্রিক পরীক্ষা শেষ করেন। কলকাতায় স্থানান্তরিত হওয়ার পরে, চৌধুরী টালিগঞ্জের রাণীকুঠিতে থাকতেন।[৪]

তিনি ছিলেন গণ্যমান্যবাদী অর্থাৎ গণেশ প্রতিমা, দুর্লভ মুদ্রা, কাগজের মুদ্রার বিশেষজ্ঞ সংগ্রাহক এবং কাশ্মীরি ও পারস্য শালের সংগ্রাহক ছিলেন।[৫]

পেশাসম্পাদনা

তাঁর প্রথম চলচ্চিত্র মহাপ্রস্থানের পথে যা ১৯৫২ সালে পরিচালক কার্তিক চট্টোপাধ্যায় নির্মাণ করেছিলেন। তার স্মরণীয় কয়েকটি চলচ্চিত্র হলেন, ভগবান শ্রী কৃষ্ণ চৈতন্য, যদু ভট্ট, আঁধারে আলো, সুচিত্রা সেনের সাথে দীপ জ্বেলে যাই, অনুষ্টুপ ছন্দ, অভয়া ও শ্রীকান্ত, রাজা রামমোহন রায়, দিবা রাত্রির কাব্য, দেবী চৌধুরাণী। তিনি অপেশাদার থিয়েটার এবং রেডিওর সাথেও জড়িত ছিলেন। নায়কোচিত অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি খলনায়কের ভূমিকাতেও কাজ করেন। দিবা রাত্রির কাব্য ছবিতে চৌধুরী নেতিবাচক চরিত্রে অনবদ্য অভিনয় করেন। এরই পাশাপাশি নবীন পরিচালক ঋতুপর্ণ ঘোষের প্রথম ছবি হীরের আংটিতে তার কাজ রয়েছে। চৌধুরীর বেশ কিছু সংগ্রহশালা ছিলো, যা ঐতিহাসিক সংগ্রহশালা হিসেবে ব্যবহার হতো, পরবর্তীতে এটি দান করা হয়।

চলচ্চিত্রের তালিকাসম্পাদনা

  • ১৯৫২- মহাপ্রস্থানের পথে
  • ১৯৫৩: নবীন যাত্রা সফর; ভগবান শ্রী কৃষ্ণ চৈতন্য
  • ১৯৫৪: যদুভট্ট; বকুল
  • ১৯৫৫: অপরাধী; পথের শেষে; ভালবাসা; দু- জনায়; দেবীমালিনি
  • ১৯৫৬: শুভরাত্রি; শঙ্কর নারায়ণ ব্যাংক; ছায়া সাঙ্গিনী; গোবিন্দদাস; রাজপথ
  • ১৯৫৭: শেষ পরিচয়; মধু মালতী; আঁধারে আলো; বসন্ত বাহার; হার জিত; খেলা ভাঙ্গার খেলা
  • ১৯৫৮: যোগাযোগ
  • ১৯৫৯: গভীর জ্বেলে যায়; শশী বাবুর সংসার
  • ১৯৬০: ক্ষুধা; পরখ
  • ১৯৬২: সঞ্চারিনী; অগ্নিশীখা; বধূ, নববধূ
  • ১৯৬৩: শ্রেয়সী
  • ১৯৬৪: কষ্টিপাথর; অনুষ্টুপ ছন্দা
  • ১৯৬৫: আলোর পিপাসা; রাজা রামমোহন; অভয়া ও শ্রীকান্ত; একই অঙ্গে এতো রূপ; গুলমোহর
  • ১৯৬৬: শঙ্খ বেলা; সুসন্ত শা; উত্তর পুরুষ
  • ১৯৭০: দিবা রাত্রির কাব্য; মেঘ কালো
  • ১৯৭১: প্রথম প্রতিশ্রুতি; সংসার; গ্রহণ
  • ১৯৭৩: প্রান্ত রেখা
  •  
    বসন্ত চৌধুরী এবং সুচিত্রা সেন ১৯৭৪ খ্রিস্টাব্দে দেবী চৌধুরাণী সিনেমায়।
    ১৯৭৪: দেবী চৌধরাণী; যদি জানতেম; সঙ্গীনি
  • ১৯৭৫: নিশি মৃগয়া
  • ১৯৭৬: শঙ্খবিশ
  • ১৯৭৭: বাবু মশাই
  • ১৯৭৮: পরিচয়; ময়ূরী
  • ১৯৭৯: চিরন্তন; জীবন যে রকম
  • ১৯৮০: ভাগ্যচক্র
  • ১৯৮১: কলঙ্কিনী
  • ১৯৮২: সোনার বাংলা
  • ১৯৮৩: ইন্দিরা; দীপার প্রেম
  • ১৯৮৫: বৈদুর্য রহস্য; পুতুলঘর
  • ১৯৮৭: অন্তর্জলী যাত্রা
  • ১৯৮৮: অন্তরঙ্গ; শঙ্খচূড়
  • ১৯৯০: রক্তঋণ; এক ডাক্তার কি মৌত
  • ১৯৯০: সংক্রান্তি
  • ১৯৯১: রাজ নর্তকী
  • ১৯৯২: হীরের আংটি; আপন ঘর; সত্য মিথ্যা
  • ১৯৯৩: কাঁচের পৃথিবী

পুরস্কারসম্পাদনা

অভিনেতা চৌধুরী ১৯৯৬ সালে বিএফজেএ কর্তৃক ১৯৬৫ সালের "রাজা রামমোহন" চলচ্চিত্রের জন্য সেরা অভিনেতার পুরস্কার পেয়েছিলেন, তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা স্টেজ শতবর্ষী স্টার থিয়েটারের পুরস্কারও পেয়েছিলেন। তিনি বেশ কয়েকটি হিন্দি ছবিতেও অভিনয় করেছিলেন।

অভিনেতা কলকাতার শেরিফ ছিলেন। কলকাতায় নন্দন-পশ্চিমবঙ্গ ফিল্ম সেন্টারের চেয়ারম্যান পদেও তাঁকে মনোনীত করা হয়েছিল।

মৃত্যুসম্পাদনা

অভিনেতা বসন্ত চৌধুরী বেশ কিছুদিন ফুসফুসের ক্যান্সারে ভুগছিলেন। ২০ জুন ২০০০ তারিখে তিনি কলকাতায় মারা যান।[৬]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "All in the family"The Times of India। ১৪ অক্টোবর ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৪-২৯Eki Onge Eto Roop starring Madhabi Mukherjee, Soumitra Chatterjee and Basanta Chowdhury ... 
  2. "Films from the heart"। The Hindu। ৩ সেপ্টেম্বর ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ২০১৩-০৪-২৯ 
  3. আবসার, নুরুল। "আন্দুল রাজবাড়িকে ঘিরে জাদুঘরের ভাবনা - Anandabazar"anandabazar.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৭-২৬ 
  4. "রাগ বসন্ত"anandabazar.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৭-২৬ 
  5. "6 best films of Basanta Choudhury - a sophisticated actor almost forgotten| Half Samosa"Half Samosa (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৪-১০। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-০৭-২৬ 
  6. http://pib.nic.in/archive/releases98/lyr2000/rjun2000/r21062000.html  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)

বহিঃসংযোগসম্পাদনা