ফয়জুল লতিফ চৌধুরী

বাংলাদেশী অর্থনীতিবিদ, আমলা ও সাহিত্যিক

ফয়জুল লতিফ চৌধুরী (জন্ম: ৩ জুন, ১৯৫৯) বাংলাদেশের অন্যতম অর্থনীতিবিদ ও সাহিত্যিক। তিনি ৬ আগস্ট ২০১৪ থেকে ১২ জুন ২০১৮ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালকের দায়িত্ব পালন করেছেন।[১][২] এছাড়াও, তিনি অর্থনীতি, ব্যবস্থাপনা ও অপারেশানস্‌ও বিজনেস রিসার্চ ইত্যাদি বিষয়ের অধ্যাপক।

ফয়জুল লতিফ চৌধুরী
ফয়জুল লতিফ চৌধুরী (জানুয়ারি, ২০১৭)
ফয়জুল লতিফ চৌধুরী (জানুয়ারি, ২০১৭)
জন্ম (1959-06-03) ৩ জুন ১৯৫৯ (বয়স ৬৩)
পেশাজাদুঘরবিদ; অর্থনীতিবিদ; সাহিত্যিক; অধ্যাপক
ভাষাবাংলা
বাসস্থানঢাকা, বাংলাদেশ
জাতীয়তাবাংলাদেশী
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
ডিকিন বিশ্ববিদ্যালয়
মনাশ বিশ্ববিদ্যালয়
লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিক্স
উল্লেখযোগ্য রচনাবলিজীবনানন্দ দাশের ওপর গবেষণা, দুর্নীতি
দাম্পত্যসঙ্গীশিরিন চৌধুরী

শিক্ষা জীবনসম্পাদনা

তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অর্থনীতিতে ১৯৮১ স্নাতক ও ১৯৮৩ সালে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। পরবর্তীতে ১৯৯২ সালে অস্ট্রেলিয়ার মনাশ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এমবিএ সম্পন্ন করেন এবং ১৯৯৭ সালে লন্ডন স্কুল অব ইকোনমিক্সে অধ্যয়ন করেছেন।[৩] এছাড়া অস্ট্রেলিয়ার ডিকিন বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি কিছু সময়ের জন্য পাবলিক পলিসি অধ্যয়ন করেন।[৪]

কর্মজীবনসম্পাদনা

তিনি ১৯৮২ সালে বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসে (বিসিএস ১৯৮২ ব্যাচ) যোগ দেন। অতঃপর সরকারের কর্মকর্তা হিসেবে তিনি দেশে-বিদেশে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি জাতীয় রাজস্ব বোর্ডে কাজ করেছেন। একই সঙ্গে বিশ্বব্যাংক ও আংকটাডের পরামর্শক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০০৩ থেকে ২০০৯ পর্যন্ত তিনি কূটনৈতিক পদে বেলজিয়াম, সুইজারল্যান্ডলুক্সেমবুর্গ এ দায়িত্ব পালন করেছেন।

তিনি ৬ আগস্ট ২০১৪ থেকে ১২ জুন ২০১৮ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালকের দায়িত্ব পালন করেছেন।[৫][৬]

উল্লেখযোগ্য অবদানসম্পাদনা

ফয়জুল লতিফ চৌধুরী বাংলা সাহিত্যের বিভিন্ন শাখায় কার্যরত রয়েছেন। সাহিত্য গবেষণা তার প্রিয় ক্ষেত্র। তিনি জীবনানন্দ দাশের কবিতা ও অন্যান্য রচনা নিয়ে প্রায় তিন দশক যাবৎ গবেষণা করে চলেছেন। জীবনানন্দ দাশের কবিতা ইংরেজিতে অনুবাদ এবং আন্তর্জাতিক পর্যায়ে পাঠকের কাছে পৌছে দেয়ার ব্যাপারে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে চলেছেন। তিনি জীবনানন্দ দাশের স্বহস্তে লিখিত পাণ্ডুলিপির ওপর ভিত্তি করে বিভিন্ন কাব্যগ্রন্থের সঠিক পাঠ নিরূপণ করেছেন। বিশেষ করে রূপসী বাংলা কাব্যগ্রন্থের বর্জিত অংশ পুনরূদ্ধার করেছেন ও সম্পাদক কর্তৃক সংযোজিত শব্দাবলী বর্জন করে বিশুদ্ধ পাঠ তৈরী করেছেন।

সাহিত্য ছাড়াও তিনি অর্থনীতি এবং ব্যবসায় প্রশাসন নিয়ে গবেষণা করেন ও ছাত্র পড়িয়ে থাকেন। তার অন্যতম গ্রন্থ করাপ্ট ব্যুরোক্র্যাসি এন্ড প্রাইভেটাইজেশন অব ট্যাক্স ইনফোর্সমেন্ট (দুর্নীতির আমলাতন্ত্র এবং শুল্ক আদায় প্রক্রিয়ার বেসরকারিকরণ) দুর্নীতির অর্থনৈতিক ব্যাখ্যা সংবলিত বহুল পঠিত গবেষণাগ্রন্থ। এ গ্রন্থে তিনি দেখিয়েছেন যে কেবল সরকারী খাতেই নয়, বেসরকারী খাতেও দুর্নীতি হয় এবং বেসরকারী খাতের দুর্নীতিবাজরা অধিকতর বেপরোয়া। পরিসংখ্যানের মাধ্যমে তিনি দেখিয়েছেন যে বাংলাদেশে শুল্ক আদায় প্রক্রিয়ার বেসরকারিকরণ করা হলে দুর্নীতির মাত্রা বৃদ্ধি লাভ করেছিল। আমলাতন্ত্রের চারিত্র্য উদঘাটনে তার প্রদত্ত্ব “রেণ্ট সিকিং ব্যুরোক্রাসি”র ধারণা পৃথিবীতে স্বীকৃতি লাভ করেছে। [৭]

২০১৪ সালে প্রকাশিত হয়েছে তার গবেষণা প্রতিবেদন ‘চটি সাহিত্যের পূর্ব পশ্চিম’। বর্তমানে তিনি বাংলা সাহিত্যের অভিধানে অসংকলিত শব্দ নিয়ে গবেষণা করছেন।

প্রকাশনাসমূহসম্পাদনা

শিরোনাম বিষয় প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান
শিল্প-সাহিত্যে নগ্নতা, যৌনতা ও অশ্লীলতা সাহিত্য সমালোচনা দিব্য প্রকাশ
জীবনানন্দ দাশের ‘আট বছর আগের একদিন’ সাহিত্য সমালোচনা দিব্য প্রকাশ
I have seen the Bengal’s Face
(আমি বাংলার মুখ দেখেছি)
অনূদিত কবিতা ক্রিয়েটিভ ওয়ার্কশপ
জীবনানন্দ দাশ-এর ’মৃত্যুর আগে’ সাহিত্য সমালোচনা অন্যপ্রকাশ
নীরদ চৌধুরীর বাংলা প্রবন্ধ প্রবন্ধ সমগ্র সময় প্রকাশন
অমিয় চক্রবর্তীর শ্রেষ্ঠ প্রবন্ধ প্রবন্ধ সমগ্র মাওলা ব্রাদার্স
জীবনানন্দ : তুলনা, সম্পর্কে সাহিত্য সমালোচনা সময় প্রকাশন
Essays on Jibananada Das সাহিত্য ও সাহিত্যিক পাঠক সমাবেশ
কৃষ্ণাদশমী বাংলা কবিতা পাঠক সমাবেশ
ন্যাডিন গর্ডিমারের গল্প অনুবাদ: গল্প দিব্য প্রকাশ
প্রসঙ্গ জীবনানন্দ সাহিত্য ও সাহিত্যিক দিব্য প্রকাশ
জীবনানন্দ দাশ-এর ’মৃত্যুর আগে’ সাহিত্য সমালোচনা অন্যপ্রকাশ
জীবনানন্দ বিবেচনা সাহিত্য ও সাহিত্যিক অন্যপ্রকাশ
জীবনানন্দ দাশের প্রবন্ধ সমগ্র প্রবন্ধ সমগ্র মাওলা ব্রাদার্স
জীবনানন্দ দাশের অপ্রকাশিত ৫১ বাংলা কবিতা মাওলা ব্রাদার্স
অরূন্ধতী রায়ের ‘অভিলাষ টকিজ’ অনুবাদ: গল্প দিব্য প্রকাশ
জীবনানন্দ দাশের চিঠিপত্র পত্রসংকলন অন্যপ্রকাশ
জীবনানন্দ দাশের ‘মহাপৃথিবী’ কাব্য প্রতীক প্রকাশনা সংস্থা
জীবনানন্দ দাশের ‘বেলা অবেলা কালবেলা’ কাব্য প্রতীক প্রকাশনা সংস্থা
হালেদের বাঙলা ব্যাকরণ ভাষা জার্নিম্যান
জীবনানন্দ দাশের ‘কবিতার কথা’ প্রবন্ধ সমগ্র বাংলা একাডেমি
Beyond Land and Time
(ভূমি ও সময় ছাড়িয়ে)
অনূদিত কবিতা সময় প্রকাশন

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Director General" 
  2. "arts.bdnews24.com » Search Results  » ফয়জুল লতিফ চৌধুরী"arts.bdnews24.com 
  3. সেলিনা হোসেন, নুরুল ইসলাম, আশফাক-উল-আলম ও মোবারক হোসেন সম্পাদিতবাংলা একাডেমী লেখক অভিধান; পরিমার্জিত ও পরিবর্ধিত সংস্করণ: সেপ্টেম্বর, ২০০৮; পৃষ্ঠা-১৯৮-১৯৯, আইএসবিএন ৯৮৪-০৭-৪৭২৫-৮
  4. "Faizul Latif Chowdhury" 
  5. "মহাপরিচালক"বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘর। পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে: মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ, এটুআই, বিসিসি ও বেসিস। সংগ্রহের তারিখ ৪ ডিসেম্বর ২০১৬ 
  6. "জাদুঘরে একুশের কবিতা"দৈনিক ইনকিলাব। ঢাকা, বাংলাদেশ: এ এম এম বাহাউদ্দীন। ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৬। 
  7. https://books.google.com.bd/books?id=EOe-99rlnJ0C&pg=PA131&lpg=PA131&dq=corrupt+bureaucracy+and+privatisation+of+tax+enforcement+Chowdhury&source=bl&ots=BqHWcIhyXp&sig=aXOoHNFYju-1-azG3xAwq1xXoc8&hl=bn&sa=X&ved=0ahUKEwjCjNX_yrXbAhUCSI8KHQifDbUQ6AEIYzAJ#v=onepage&q=corrupt%20bureaucracy%20and%20privatisation%20of%20tax%20enforcement%20Chowdhury&f=false  |শিরোনাম= অনুপস্থিত বা খালি (সাহায্য)

বহিঃসংযোগসম্পাদনা