নেত্র নিউজ একটি সুইডেন-ভিত্তিক অনুসন্ধানী ও জনস্বার্থ বিষয়ক অনলাইন পোর্টাল।[১] সুইডেন-ভিত্তিক হলেও এটি মূলত বাংলাদেশ-বিষয়ক সংবাদ প্রকাশ করে। সুইডেনে স্বেচ্ছা-নির্বাসনে থাকা প্রবাসী বাংলাদেশী সাংবাদিক তাসনিম খলিল ২৬ ডিসেম্বর ২০১৯ সালে এই ওয়েবসাইট চালু করেন।

নেত্র নিউজ
নেত্র নিউজ.png
ধরননিউজ ওয়েবসাইট
প্রকাশকবাংলাদেশ মিডিয়া নেটওয়ার্ক
প্রধান সম্পাদকতাসনিম খলিল
সম্পাদকডেভিড ব্যার্গম্যান
ভাষাইংরেজি ভাষাবাংলা ভাষা
সদর দপ্তরমালমো, স্ক্যানিয়া, সুইডেন
ওয়েবসাইটnetra.news

প্রতিষ্ঠার ৭২ ঘণ্টার মধ্যেই বাংলাদেশ সরকার ওয়েবসাইটটি ব্লক করে।[২] খলিল নিজেই[৩] অভিযোগ করেছেন এবং বিভিন্ন প্রতিবেদনে ইঙ্গিত দেয়া হয়েছে যে বাংলাদেশের সামরিক গোয়েন্দা সংস্থা ডিজিএফআই এই পদক্ষেপের নেপথ্যে ছিল।[৪]

ইতিহাসসম্পাদনা

নেত্র নিউজ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরকার দ্বারা অর্থায়িত একটি বেসরকারি ও অলাভজনক সংস্থা ন্যাশনাল এন্ডাউমেন্ট ফর ডেমোক্রেসি প্রদত্ত অনুদান দ্বারা পরিচালিত হয়।[৫]

এটি বাংলাদেশ মিডিয়া নেটওয়ার্কের আওতাধীন একটি প্রকল্প। বাংলাদেশ মিডিয়া নেটওয়ার্ক পরিচালিত হয় একটি সাংগঠনিক পর্ষদের তত্ত্বাবধানে। এই পর্ষদে রয়েছেন সুইডিশ সাংবাদিক কার্স্টিন ব্রুনবার্গ (সভাপতি), অস্ট্রেলিয়ান একাডেমিক বিনা ডি'কোস্টা (সাধারণ সম্পাদক) ও মার্কিন সাংবাদিক ডেন মরিসন (কোষাধ্যক্ষ)।[৬]

নেত্র নিউজ ইংরেজিবাংলা উভয় ভাষায় প্রকাশিত হয়। খলিল প্রধান সম্পাদক হিসাবে কাজ করেছেন, অপরদিকে ডেভিড বার্গম্যান ইংরেজি সংস্করণের সম্পাদক। বার্গম্যান ব্যাপকভাবে বাংলাদেশ বিষয়ে গণমাধ্যমে কাজ করেছেন। ওয়েবসাইটটি তার উদ্বোধনী সম্পাদকীয়তে জানিয়েছে যে তারা "নিরাপত্তা উদ্বেগের" কথা উল্লেখ করে এর সাথে যুক্ত অন্য কোনও সাংবাদিকের নাম না প্রকাশের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।[৭]

ওয়েবসাইট ব্লকসম্পাদনা

ওয়েবসাইটটির প্রথম দিকের একটি প্রতিবেদনে[৮] অভিযোগ করা হয় যে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ দলের সাধারণ সম্পাদক ও মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের রোলেক্স, লুই ভিটন ও ইউলিসহ ব্র্যান্ডের বিলাসবহুল ঘড়ির পরিধান করেন। এসব ঘড়ির মূল্য তার প্রকাশিত আয়ের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়।[৪] প্রতিবেদনটি প্রকাশের কয়েক দিনের মধ্যেই ওয়েবসাইটটি ব্লক করে দেওয়া হয়।[৯][১০]

এই ব্লকটির পরে, ওয়েবসাইটটি গুগল ক্লাউড ফায়ারবেস স্টোরেজ ভিত্তিক একটি আয়না সংস্করণ চালু করেছে, এটি গুগল পরিষেবাটিতে নির্ভর করে এমন অ্যাপ্লিকেশন বিকাশকারীদের অভিযোগের পরে কর্তৃপক্ষ কেবল নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করতে বাধ্য হয়েছিল।[১১]

তবে, "অ-হস্তক্ষেপ" দৃশ্যে সিভিডি -১৯ সংকটে বাংলাদেশে ২০ মিলিয়ন লোকের মৃত্যুর পূর্বাভাস দেওয়া জাতিসংঘের একটি ফাঁস হওয়া মেমোর উপর ভিত্তি করে একটি প্রতিবেদন প্রকাশের পরে আয়না সাইটটি আবার অবরুদ্ধ করা হয়েছিল। [১২] নেত্রা নিউজের বরাত দিয়ে গল্পটি প্রকাশের পরে মালয়েশিয়া ভিত্তিক সংবাদ সংস্থা বেনার নিউজের ওয়েবসাইটও বাংলাদেশে ব্লক করা হয়েছিল।[১৩]

প্রভাবসম্পাদনা

ওবায়দুল কাদের এক্সপোজার- ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০ এপ্রিল ২০২০ তারিখে শিরোনামে একটি প্রতিবেদন নিয়ে সুশীল সমাজের সংস্থা ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ [১৪] সহ একাধিক সংস্থা থেকে একটি প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। মন্ত্রী দাবি করেছেন যে তিনি ঘড়িগুলি উপহার হিসাবে পেয়েছেন। [১৫]

২০২০ সালের জানুয়ারিতে নেত্র নিউজ একটি প্রতিবেদন ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে প্রকাশ করেছে ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখে, ঢাকার মেয়র নির্বাচনে বিরোধী বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের প্রার্থী তাবিথ আউয়ালকে "বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশনকে দেওয়া হলফনামায় একটি বিদেশি সংস্থার মালিকানা প্রকাশ করতে ব্যর্থ হয়েছে" বলে অভিযোগ করেছে। [১৬] প্রতিবেদনটি প্রকাশের পরে , বাংলাদেশের সুপ্রিম কোর্টের প্রাক্তন বিচারপতি এএইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক আউলের প্রার্থিতা চ্যালেঞ্জ করে উচ্চ আদালতে একটি আবেদন করেছিলেন।[১৭] তবে উচ্চ আদালত সেই আবেদন নাকচ করে আউয়ালকে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার অনুমতি দিয়েছেন।[১৮]

২০২০ সালের ২১শে মার্চ নেত্র নিউজ ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের মলয় কান্তি মৃধার নেতৃত্বে বাংলাদেশী এবং ইউএস ভিত্তিক গবেষকগণের একটি গ্রুপের তৈরি একটি প্রাথমিক গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১০ এপ্রিল ২০২০ তারিখে করেছিল যে সরকার ছাড়াই কভিড-১৯ সংকটে বাংলাদেশ ৫ লাখ মানুষ মৃত্যুর মুখোমুখি হতে পারে। এই প্রতিবেদনটি প্রকাশের পর বিশ্ববিদ্যালয় মৃধার বিরুদ্ধে একটি অভ্যন্তরীণ তদন্ত শুরু করেছিল,[১৯] যার ফলে একাডেমিক স্বাধীনতায় বিশ্বাসী কর্মীরা নিন্দা করেছিল।[২০] ওয়েবসাইটটি এই প্রতিবেদনের পরিচালনা বা অনুমোদন দেয়নি এমন দাবি সত্ত্বেও বিশ্ববিদ্যালয়ের দস্তাবেজ হোস্টিং ওয়েবসাইট স্ক্রিবডকে পরবর্তী ওয়েবসাইট থেকে সরিয়ে দেওয়ার জন্য জোর করে "এই প্রতিবেদনে" প্রবেশাধিকারকে সীমাবদ্ধ রাখার" অভিযোগ করেছে।[২১]

২২শে মার্চ ২০২০-তে, ওয়েবসাইটটি জাতিসংঘের আন্তঃজাগতিক মেমো ফাঁস করেছে,[২২] যা "কো-হু-হস্তক্ষেপ" দৃশ্যে কোভিড-১৯ থেকে বাংলাদেশে ২০ মিলিয়ন মানুষের মৃত্যুর পূর্বাভাস ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ১০ এপ্রিল ২০২০ তারিখে দিয়েছে। বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন অভিযোগ করেছেন যে জাতিসংঘ যে জাতীয় মেমো তৈরি করেছিল তা "জাতিসংঘের সনদের সম্পূর্ণ লঙ্ঘন।" [১৩]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Welle (www.dw.com), Deutsche। "Bangladesh journalist's disappearance casts poor light on press freedom | DW | 22.03.2020"DW.COM (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  2. "Bangladesh blocks Sweden-based Netra News"New Age | The Most Popular Outspoken English Daily in Bangladesh (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  3. "Free Speech under fire: investigative journalism censored in Bangladesh"Chaos Press (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০২-১১। ২০২০-০৫-৩১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  4. "Bangladesh blocks news website accusing minister of corruption"www.aljazeera.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  5. "Bangladesh blocks Sweden-based news website Netra News"cpj.org (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  6. "ABOUT"Netra News — নেত্র নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  7. "Journalism in the public interest"Netra News — নেত্র নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-১২-২৬। ২০২০-১০-২২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  8. "A wrist of luxury"Netra News — নেত্র নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-১২-২৬। ২০২০-০৪-২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  9. Avenue, Human Rights Watch | 350 Fifth; York, 34th Floor | New (২০২০-০১-০৮)। "Bangladesh: Online Surveillance, Control"Human Rights Watch (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  10. "মন্ত্রীর বিরুদ্ধে খবর প্রকাশ করায় নেত্র নিউজ বন্ধ"BenarNews। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-১০ 
  11. "BANGLADESH: Muzzling press freedom triggering risks on livelihood of Information Technology professionals"Asian Human Rights Commission (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  12. "Netra News"www.facebook.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  13. "Bangladesh Govt Acknowledges Blocking BenarNews Websites"BenarNews (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  14. Correspondent, Staff। "TIB asks why minister did not deposit costly watches with the state"Prothomalo (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  15. "Watch Out: Bangladeshi Minister Comments on His Published Photos with Fancy-looking Timepieces"BenarNews (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  16. Correspondent, Staff; bdnews24.com। "Tabith keeps his mouth shut on reportedly undisclosed company in Singapore"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  17. "Former SC Justice Manik demands cancellation of Tabith Awal's candidacy"Daily Sun (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  18. "HC rejects petition seeking cancellation of Tabith's candidacy"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০১-২৭। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  19. Defranoux, Laurence (২০২০-০৪-০২)। "Coronavirus : le Bangladesh censure les lanceurs d'alerte"Libération.fr (ফরাসি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  20. "Researcher in trouble for co-authoring Bangladesh Covid-19 projections"Netra News — নেত্র নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০৩-২২। ২০২০-০৪-১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  21. "Brac University attempts to restrict access to Bangladesh Covid-19 report"Netra News — নেত্র নিউজ (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২০-০৩-২৬। ২০২০-০৪-১০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮ 
  22. McLaughlin, Timothy (২০২০-০৪-০২)। "The Unseen Pandemic"The Atlantic (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৪-০৮