নুয়ান জয়সা

শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটার

ডিমুনি নুয়ান থারাঙ্গা জয়সা (জন্ম: ১৩ মে, ১৯৭৮) কলম্বোয় জন্মগ্রহণকারী শ্রীলঙ্কার আন্তর্জাতিক ক্রিকেটারশ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। দলে তিনি মূলতঃ বামহাতি সিম বোলার ছিলেন। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাবের পক্ষে প্রতিনিধিত্ব করেন নুয়ান জয়সা। ৬ ফুট ৫ ইঞ্চি উচ্চতার অধিকারী দীর্ঘদেহী জয়সা বামহাতে ফাস্ট-মিডিয়াম বোলিংয়ের পাশাপাশি বামহাতে নীচের সারিতে ব্যাটিং করতেন। কলম্বোর ইসিপাথানা বিদ্যালয়ে পড়াশোনা করেন জয়সা।[১]

নুয়ান জয়সা
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম
ডিমুনি নুয়ান থারাঙ্গা জয়সা
উচ্চতা৬ ফুট ৫ ইঞ্চি (১.৯৬ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনবামহাতি
বোলিংয়ের ধরনবামহাতি ফাস্ট-মিডিয়াম
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই
ম্যাচ সংখ্যা ৩০ ৯৫
রানের সংখ্যা ২৮৮ ৩৪৩
ব্যাটিং গড় ৮.৪৭ ১৩.১৯
১০০/৫০ ০/০ ০/০
সর্বোচ্চ রান ২৮* ৪৭*
বল করেছে ৪৪২২ ৪২৫৯
উইকেট ৬৪ ১০৮
বোলিং গড় ৩৩.৭০ ২৯.৭৫
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট -
সেরা বোলিং ৫/২০ ৫/২৬
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৪/- ১৩/-
উৎস: ক্রিকইনফো, ৯ ফেব্রুয়ারি ২০০৬

খেলোয়াড়ী জীবন সম্পাদনা

১৯৯৬-৯৭ মৌসুমে প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। প্রথম মৌসুমেই তিনি নিজস্ব সেরা ৭/৫৮ গড়েন। এর পরপরই ডুনেডিনে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দলের বিপক্ষে তার টেস্ট অভিষেক হয়। সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে ৩০ টেস্ট ও ৯৫ ওডিআইয়ে অংশগ্রহণ করেছেন তিনি। নিজস্ব ৮ম টেস্টে জয়সা হ্যাট্রিক করেন। টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে প্রথম বোলার হিসেবে প্রথম তিন বলেই হ্যাট্রিক করার গৌরব অর্জন করেন তিনি। নভেম্বর, ১৯৯৯ সালে হারারেতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিনি এ কৃতিত্ব গড়েন। তিনি একে-একে ট্রেভর গ্রিপার, মারে গুডউইননিল জনসনকে আউট করেন।

শ্রীলঙ্কার ৯ম ক্রিকেটার হিসেবে শতাধিক ওডিআই উইকেট পান। নীচের সারির ব্যাটসম্যান হিসেবে আক্রমণাত্মক ঢংয়ে খেলেছেন। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে অপরাজিত ৪৭ রান তোলে দলকে জয়ের দিকে নিয়ে যান। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগে ডেকান চার্জাসের সাথে খেলার জন্য চুক্তিবদ্ধ হন। কিন্তু দূর্বলমানের ক্রীড়াশৈলী উপস্থাপনের কারণে দল থেকে বাদ দেয়া হয়।

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. "Determined Isipathana"। ৩ ডিসেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ আগস্ট ২০১৫ 

আরও দেখুন সম্পাদনা

বহিঃসংযোগ সম্পাদনা