ড্রাগন নৌকা হল মানবচালিত এক ধরনের নৌযান, যা গণচীনের দক্ষিণাঞ্চলের কুয়াংতুং প্রদেশের পার্ল ব-দ্বীপের আবিষ্কৃত হয়েছিল। এই নৌকা নির্মাণে প্রধানত সেগুন কাঠ ব্যবহার করা হলেও চীনের বেশ কয়েকটি অঞ্চলে ভিন্ন ধরনের কাঠের ব্যবহার করা হয়। এশিয়া, আফ্রিকা, প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপপুঞ্জপুয়ের্তো রিকোর বিভিন্ন লম্বা গড়নের ঐতিহ্যবাহী নৌযানের সাথে ড্রাগন নৌকার সাদৃশ্যতা পাওয়া যায়। ড্রাগন নৌকা বাইচ বা ড্রাগন বোট রেস অতি প্রাচীনকাল থেকে গ্রামবাসীদের মাঝে চলে আসা এক ধরনের রীতির মধ্যে পড়ে, যা ২০০০ বছর আগে দক্ষিণ চীন জুড়ে প্রচলিত ছিলো। এমনকি প্রাচীন গ্রীসে অনুষ্ঠিত অলিম্পিয়া গেমসে এই নৌকা বাইচ অন্তর্ভুক্ত ছিলো। চীন এবং গ্রীস উভয় অঞ্চলেই ড্রাগন নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতাটি সাম্প্রদায়িক উৎসব এবং ধর্মীয় ভাবমর্যাদার সাথে উদযাপিত হতো।

ড্রাগন নৌকা বাইচ
Dragon boat budapest 2010.jpg
ক্রীড়া পরিচালনা সংস্থাআন্তর্জাতিক ড্রাগন নৌকা ফেডারেশন
প্রথম উন্নতপ্রাচীন চীন
বৈশিষ্ট্যসমূহ
শারীরিক সংস্পর্শনা
দলের সদস্য২২ (প্রবিধান)
বিভাগনৌকাবাইচ
সরঞ্জামড্রাগন নৌকা, বৈঠা, ড্রাম
অলিম্পিকনা
দেশ বা অঞ্চলবিশ্বব্যাপী

ইতিহাসসম্পাদনা

 
তাং রাজবংশের আমলে নির্মিত ড্রাগন নৌকা

ড্রাগন নৌকা বাইচের সমৃদ্ধশালী প্রাচীন ধর্মীয় ও রীতিনীতি রয়েছে। যার ফলে বর্তমানে সংঘটিত ড্রাগন নৌকা বাইচে সেই ঐতিহ্যের খুব কম অংশই প্রতিফলিত হয়। নৃতাত্ত্বিকদের মতে ২৫০০ বছর পূর্বে চীনের দক্ষিণে কেন্দ্রে (বর্তমান হংকং) বিদ্য়মান দোংতিং হ্রদে সর্বপ্রথম ড্রাগন নৌকাবাইচে পত্তন ঘটে।[১] প্রায় একই সময়ে গ্রিসের প্রাচীন অলিম্পিয়া গেমসের সূচনা হয়েছিলো।[২] সেই তখন থেকেই ড্রাগন নৌকাবাইচ বার্ষিক পানি নিয়মরীতি ও উৎসব পালনে সংঘটিত হয়ে আসছে। প্রাচীন চীনের কৃষি সমাজে উক্ত উৎসব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতো।

 
তাং রাজবংশের আমলের শিল্পে ড্রাগন নৌকা বাইচ

দলসম্পাদনা

 
ফ্লোরিডার মায়ামিতে একটি ড্রাগন নৌকা দল প্রতিযোগিতার প্রস্তুতি নিচ্ছে।

একটি আদর্শ ড্রাগন নৌকায় সাধারণত ২২ জন সদস্য থাকে। এদের মধ্যে থেকে ২০ জন মাঝি জোড়া বেধে নৌকার গতিপথের দিকে মুখ করে বৈঠা চালায়। বাকি দুই সদস্যের মাঝে একজন ড্রাম বাদক এবং একজন দিক নির্দেশক। এই দুই ব্যক্তি চালকদের দিকে মুখ করে বসে। ড্রাগন নৌকা আকার ও আয়তনে বিভিন্ন হয়ে থাকে। ছোট আকারের ড্রাগন নৌকায় দশজন মাঝি এবং ঐতিহ্যবাহী বড় আকারের ড্রাগন নৌকায় ৫০ জনের মতো মাঝিও থাকতে পারে।

মাঝিসম্পাদনা

ড্রাগন নৌকায় জোড়া সংখ্যক মাঝি থাকে। নৌকা চালানোর জন্য তৈরি সাধারণ বৈঠা এই ধরনের নৌকার ক্ষেত্রে ব্যবহার হয় না। যেহেতু ড্রাগন নৌকায় মাঝিরা নৌকা যেদিকে যাচ্ছে সেদিকেই মুখ করে থাকে, তাই এই নৌকার মাঝিদের ভিন্ন ধরনের বৈঠার প্রয়োজন হয়। বর্তমানে আন্তর্জাতিক ড্রাগন নৌকা ফেডারেশন কর্তৃক নির্ধারিত আদর্শ নকশা মেনে ড্রাগন নৌকার বৈঠা তৈরি করা হয়।[১]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "IDBF Library"। International Dragon Boat Federation। ২০১৬-০৩-০১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৬-০২-১১ 
  2. Worcester, George. The Junks and Sampans of the Yangtze River, 1971.