টমাস রাউটলেজ

দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটার

টমাস উইলিয়াম রাউটলেজ (ইংরেজি: Thomas Routledge; জন্ম: ১৮ এপ্রিল, ১৮৬৭ - মৃত্যু: ৯ মে, ১৯২৭) ল্যাঙ্কাশায়ারের লিভারপুল এলাকায় জন্মগ্রহণকারী ইংরেজ বংশোদ্ভূত দক্ষিণ আফ্রিকান আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকা ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৮৯২ থেকে ১৮৯৬ সময়কালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে দক্ষিণ আফ্রিকার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

টমাস রাউটলেজ
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামটমাস উইলিয়াম রাউটলেজ
জন্ম১৮ এপ্রিল, ১৮৬৭
লিভারপুল, ল্যাঙ্কাশায়ার, ইংল্যান্ড
মৃত্যু৯ মে, ১৯২৭
বিলিংহাম, কো ডারহাম, ইংল্যান্ড
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
ভূমিকাব্যাটসম্যান
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ২২)
১৯ মার্চ ১৮৯২ বনাম ইংল্যান্ড
শেষ টেস্ট২১ মার্চ ১৮৯৬ বনাম ইংল্যান্ড
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১২
রানের সংখ্যা ৭২ ৪৯২
ব্যাটিং গড় ৯.০০ ২১.৩৯
১০০/৫০ ০/০ ০/২
সর্বোচ্চ রান ২৪ ৭৭
বল করেছে ১০৫
উইকেট
বোলিং গড় - ২৩.০০
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং - ২/২৬
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ২/০ ৫/০
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ১৮ মার্চ ২০২০

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটে ট্রান্সভাল ও ওয়েস্টার্ন প্রভিন্স দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে খেলতেন। এছাড়াও, ডানহাতে মিডিয়াম বোলিংয়ে পারদর্শী ছিলেন টমি রাউটলেজ নামে পরিচিত টমাস রাউটলেজ

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটসম্পাদনা

১৮৮৯-৯০ মৌসুম থেকে ১৮৯৬-৯৭ মৌসুম পর্যন্ত টমাস রাউটলেজের প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। ঊনবিংশ শতকের শেষ দশকে ট্রান্সভালের পক্ষে খেলেন। এ পর্যায়ে সফরকারী ইংরেজ দলের বিপক্ষে চারটি টেস্টে অংশ নিয়েছিলেন তিনি। সবগুলো টেস্টই নিজ দেশে খেলেছিলেন।

ক্রিজে নেমেই মারমুখী ভূমিকায় অবতীর্ণ হতেন তিনি। একটি বাদে প্রায়শই দলকে চমৎকারভাবে সূচনা এনে দিতে ব্যর্থ হয়েছেন। কেবলমাত্র দুইবার ইনিংসে অর্ধ-শতরান করেছেন তিনি।

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটে টমাস রাউটলেজ তার সর্বোচ্চ রান তুলেন ৭৭। ১৮৯৩-৯৪ মৌসুমে কেপটাউনে অনুষ্ঠিত কারি কাপের খেলায় ইস্টার্ন প্রভিন্সের বিপক্ষে এ সংগ্রহটি করেন। ১৮৯৪ সালে ইংল্যান্ড গমনার্থে দক্ষিণ আফ্রিকার দল নির্বাচনকল্পে সভা বসে। ঐ দিনই তিনি প্রথম-শ্রেণীবিহীন খেলায় সেঞ্চুরি করেছিলেন। এ ফলাফলে দলে তার স্থান নিশ্চিত হয়ে যায়। ঐ সফরে ২৪টি খেলার আয়োজন করা হলেও কোন খেলাই প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটের মর্যাদাপ্রাপ্ত হয়নি। তবে, অনেকগুলো কাউন্টি ক্লাবই প্রথম-শ্রেণীর মর্যাদার অধিকারী ছিল।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটসম্পাদনা

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে চারটিমাত্র টেস্টে অংশগ্রহণ করেছেন টমাস রাউটলেজ। ১৯ মার্চ, ১৮৯২ তারিখে কেপ টাউনে সফররত ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষেক ঘটে তার। ২১ মার্চ, ১৮৯৬ তারিখে একই মাঠে ও একই দলের বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্টে অংশ নেন তিনি।

১৮৯১-৯২ মৌসুমে সফরকারী ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে কেপটাউনে প্রথম টেস্টে অংশ নেন। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে অংশগ্রহণকৃত টেস্টগুলোয় তাকে বড় ধরনের কোন ইনিংস খেলতে দেখা যায়নি। এছাড়াও তিনি ১৮৯০ থেকে ১৮৯৫-৯৬ মৌসুম পর্যন্ত তিন খেলার সিরিজ খেলেছেন। তবে, চার টেস্টে তিনি ৯.০০ গড়ে রান তুলেন। ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ করেন ২৪ রান। ইংল্যান্ড দল সিরিজে একচ্ছত্র প্রভাব বিস্তার করে। প্রত্যেকটি খেলাতেই স্বাচ্ছন্দ্যে জয়লাভ করে সফরকারী দলটি।

৯ মে, ১৯২৭ তারিখে ৬০ বছর বয়সে কো ডারহাম এলাকার বিলিংহামে টমাস রাউটলেজের দেহাবসান ঘটে। ১৯২৭ সালে তার মৃত্যুর পর উইজডেনে কোন শোকসংবাদ প্রকাশিত হয়নি।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. World Cricketers - A Biographical Dictionary by Christopher Martin-Jenkins, published by Oxford University Press (1996).
  2. The Wisden Book of Test Cricket, Volume 1 (1877-1977) compiled and edited by Bill Frindall, published by Headline Book

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা