জামিয়া ইসলামিয়া আজিজিয়া আনওয়ারুল উলুম

দিনাজপুর জেলার একটি কওমি মাদ্রাসা

জামিয়া ইসলামিয়া আজিজিয়া আনওয়ারুল উলুম ( সংক্ষেপে হিলি আজিজিয়া মাদ্রাসা ) রংপুরের দিনাজপুর শহরের বাংলা হিলিতে অবস্থিত একটি কওমি মাদ্রাসা। এটি প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৬০ সালে। ইসলামি শিক্ষার প্রচার-প্রসারে তৎকালীন সময়ে ফেনী থেকে দিনাজপুরে আসেন বিশিষ্ট আলেম সাদেক আহমদ। এখানে এসে রেল স্টেশন সংলগ্ন মসজিদে ইমামতির পাশাপাশি শিশু-কিশোরদের মাঝে ধর্মীয় শিক্ষা দিতে প্রভাতকালীন মক্তব চালু করেন। পরবর্তীতে তার একান্ত ইচ্ছা ও এলাকাবাসীর চাহিদায় মক্তবটি প্রসারিত হয়ে দারুল উলুম দেওবন্দের মূলনীতির আলোকে একটি পূর্ণাঙ্গ মাদ্রাসায় পরিণত হয়।

জামিয়া ইসলামিয়া আজিজিয়া আনওয়ারুল উলুম
ধরনকওমি মাদ্রাসা
স্থাপিত১৯৬০ খ্রি.
প্রতিষ্ঠাতাসাদেক আহমদ
মূল প্রতিষ্ঠান
দারুল উলুম দেওবন্দ
অধিভুক্তিআল হাইআতুল উলয়া লিল জামিআতিল কওমিয়া বাংলাদেশ
ধর্মীয় অধিভুক্তি
ইসলাম
আচার্যশামছুল হুদা
শিক্ষায়তনিক ব্যক্তিবর্গ
৫৮ (২০২০)
শিক্ষার্থী১১০০ (২০২০)
অবস্থান
বাংলাহিলি, দিনাজপুর, রংপুর
শিক্ষাঙ্গনশহর
সংক্ষিপ্ত নামহিলি আজিজিয়া মাদ্রাসা

১৯৯৪ সালে এখানে দাওরায়ে হাদিস (মাস্টার্স) খােলা হয়। মাদ্রাসাটির প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মাওলানা সাদেক আহমদের মৃত্যুর পর দীর্ঘ ৫০ বছর মাদ্রাসা পরিচালনার দায়িত্ব পালন করেন ফটিকছড়ির মাওলানা হারুন চৌধুরী। বর্তমানে মাদ্রাসাটি পরিচালনা করছেন মাওলানা শামছুল হুদা। ২০২০ সালে এই মাদ্রাসার ছাত্রসংখ্যা ছিল ১১০০, শিক্ষক ৪৬ ও কর্মচারী ১২ জন। মাদ্রাসাটি শিক্ষা কার্যক্রমের পাশাপাশি বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রমেও অংশগ্রহণ করে থাকে।[১][২]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. গোলাম ছরোয়ার, মুহাম্মদ (নভেম্বর ২০১৩)। "বাংলা ভাষায় ফিকহ চর্চা (১৯৪৭-২০০৬): স্বরূপ ও বৈশিষ্ঠ্য বিচার"ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়: ৩২৩। সংগ্রহের তারিখ ২৮ মে ২০২১ 
  2. সাইয়েদ, আহসান (২০০৬)। বাংলাদেশে হাদীছ চর্চা উৎপত্তি ও ক্রমবিকাশ। সেগুনবাগিচা, ঢাকা: অ্যাডর্ন পাবলিকেশন্স। পৃষ্ঠা ৯৭। আইএসবিএন 9842000184