প্রধান মেনু খুলুন

জন ওয়েন

মার্কিন অভিনেতা

জন ওয়েন (ইংরেজি: John Wayne) নামে পরিচিত মারিয়ন মিচেল মরিসন (ইংরেজি: Marion Mitchell Morrison; জন্ম: মারিয়ন রবার্ট মরিসন, ২৬শে মে ১৯০৭ - ১১ই জুন ১৯৭৯) হলেন একজন মার্কিন অভিনেতা ও চলচ্চিত্র নির্মাতা।[১] তিনি তিন দশক সময় ধরে শীর্ষ বক্স অফিস তারকাদের একজন ছিলেন।[২][৩] ট্রু গ্রিট (১৯৬৯) চলচ্চিত্রের জন্য তিনি একটি একাডেমি পুরস্কার ও একটি গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার অর্জন করেন, এবং একটি গোল্ডেন গ্লোব সেসিল বি. ডামিল পুরস্কার লাভ করেন।

জন ওয়েন
John Wayne - still portrait.jpg
১৯৬৫ সালে ওয়েন
স্থানীয় নাম
John Wayne
জন্ম
মারিয়ন রবার্ট মরিসন

(১৯০৭-০৫-২৬)২৬ মে ১৯০৭
মৃত্যু১১ জুন ১৯৭৯(1979-06-11) (বয়স ৭২)
লস অ্যাঞ্জেলেস, ক্যালিফোর্নিয়া, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র
মৃত্যুর কারণপাকস্থলির ক্যান্সার
সমাধিপ্যাসিফিক ভিউ মেমোরিয়াল পার্ক
৩৩°৩৬′৩৪″ উত্তর ১১৭°৫১′১২″ পশ্চিম / ৩৩.৬০৯৫৩° উত্তর ১১৭.৮৫৩৩৬° পশ্চিম / 33.60953; -117.85336
জাতীয়তামার্কিন
অন্য নামমারিয়ন মিচেল মরিসন, ডিউক
পেশাঅভিনেতা, চলচ্চিত্র নির্মাতা
কার্যকাল১৯২৬-১৯৭৬
দাম্পত্য সঙ্গীজোসেফিন ওয়েন (বি. ১৯৩৩; বিচ্ছেদ. ১৯৪৫)
এস্পেরাঞ্জা বাউর (বি. ১৯৪৬; বিচ্ছেদ. ১৯৫৪)
পিলার পালেট (বি. ১৯৫৪; মৃ. ১৯৭৯)
সন্তান৭ (মাইকেল, প্যাট্রিক, ও ইথান সহ)
পুরস্কারপূর্ণ তালিকা
ওয়েবসাইটjohnwayne.com
স্বাক্ষর
John Wayne signature.svg

আইওয়ার উইন্টারসেটে জন্ম নেওয়া ওয়েন সাউদার্ন ক্যালিফোর্নিয়ায় শৈশব অতিবাহিত করেন। তিনি ১৯২৫ সালে গ্লেনডেল হাই স্কুলের সভাপতি ছিলেন।[৪] বডিসার্ফিং দুর্ঘটনার জন্য সাউদার্থ ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ফুটবল বৃত্তি হারানোর পর তিনি একটি স্থানীয় চলচ্চিত্র স্টুডিওতে কাজ নেন।[৫] শুরুর দিকে তিনি ফক্স ফিল্ম করপোরেশনের হয়ে ছোট চরিত্রে অভিনয় করেন। তার প্রথম শ্রেষ্ঠাংশে কাজ ছিল রাউল ওয়ালশের দ্য বিগ ট্রেইল (১৯৩০)। এতে অভিনয়ের পর তিনি ১৯৩০-এর দশক জুড়ে বেশ কিছু বি শ্রেণীর বা স্বল্প ব্যয়ের চলচ্চিত্রে কাজ করেন, যার বেশিরভাগ পশ্চিমা ঘরনার।

ওয়েনের অন্যান্য উল্লেখযোগ্য পশ্চিমা ঘরনার চলচ্চিত্রগুলো হল রেড রিভার (১৯৪৮), দ্য সার্চার্স (১৯৫৬), দ্য ম্যান হু শট লিবার্টি ভ্যালেন্স (১৯৬২), ট্রু গ্রিট (১৯৬৯)। এছাড়াও তিনি তার দ্য কোয়ায়েট ম্যান (১৯৫২), রিও ব্রাভো (১৯৫৯), দ্য লংগেস্ট ডে (১৯৬২) চলচ্চিত্রে তার ভূমিকার জন্য স্মরণীয় হয়ে আছেন। তার সর্বশেষ চলচ্চিত্রে তিনি দ্য শুটিস্ট (১৯৭৬)-এ একজন বয়স্ক বন্দুকযোদ্ধা চরিত্রে অভিনয় করেন। তিনি হলিউডের অনেক প্রখ্যাত তারকাদের সাথে কাজ করেছেন। ১৯৭৯ সালের ৯ই এপ্রিল একাডেমি পুরস্কার আয়োজনে তাকে শেষ জনসম্মুখে দেখা যায়।[৬][৭][৮]

চলচ্চিত্র কর্মজীবনসম্পাদনা

ওয়েন কর্মজীবনের শুরুতে ফক্স ফিল্ম করপোরেশনের হয়ে ছোট চরিত্রে অভিনয় করেন। ১৯২৯ সালের ওয়ার্ডস অ্যান্ড মিউজিক চলচ্চিত্রে প্রথমবারের মত "ডিউক মরিসন" হিসেবে তার নাম পর্দায় দেখা যায়। রাউল ওয়ালশ তাকে প্রপ বয় হিসেবে স্টুডিওর আসবাবপত্র সরাতে দেখেন এবং তাকে দ্য বিগ ট্রেইল (১৯৩০) চলচ্চিত্রে শ্রেষ্ঠাংশে কাজের জন্য নির্বাচন করেন। মার্কিন স্বাধীনতা যুদ্ধের জেনারেল "ম্যাড" অ্যান্থনি ওয়েনের নামানুসারে ওয়ালশ তাকে "অ্যান্থনি ওয়েন" নামটি গ্রহণের পরামর্শ দেন। ফক্স স্টুডিওর প্রধান উইনফিল্ড শিহান নামটি শুনতে ইতালীয় হওয়ার এই নামের পছন্দ করেননি। ওয়ালশ পরবর্তীতে "জন ওয়েন" নাম গ্রহণের পরামর্শ দেন। শিহার এতে অনুমতি দেন এবং এই নামটিই চূড়ান্ত করা হয়। এই আলোচনা চলাকালীন ওয়েন উপস্থিত ছিলেন না।[৫] তার পারিশ্রমিক প্রতি সপ্তাহে ১০৫ মার্কিন ডলার নির্ধারিত হয়।[৯]

তিনি ২০ বছরে জন ফোর্ড পরিচালিত ২৪টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন, যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল শি ওর আইয়েলো রিবন (১৯৪৯), দ্য কোয়ায়েট ম্যান (১৯৫২), দ্য উইংস অব ঈগলস (১৯৫৭) ও দ্য ম্যান হু শট লিবার্টি ভ্যালেন্স (১৯৬২)। দ্য ম্যান হু শট লিবার্টি ভ্যালেন্স চলচ্চিত্রে তিনি জেমস স্টুয়ার্টের সাথে অভিনয় করেন। ফোর্ড পরিচালিত দ্য সার্চার্স (১৯৫৬) চলচ্চিত্রে তার অভিনয়কে প্রায়শই তার শ্রেষ্ঠ ও সবচেয়ে জটিল কাজ বলে গণ্য করা হয়।[১০] এই চলচ্চিত্রে তার চরিত্রে নামানুসারে তিনি তার সর্বকনিষ্ঠ পুত্রের নাম রাখেন ইথান।

তিনি রিও ব্রাভো (১৯৫৯), দ্য লংগেস্ট ডে (১৯৬২) চলচ্চিত্রে তার ভূমিকার জন্য স্মরণীয় হয়ে আছেন। ১৯৬০ সালে তিনি দি আলামো চলচ্চিত্র নির্মাণ করেন। এই চলচ্চিত্রের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ প্রযোজক হিসেবে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। এটি তার নির্মিত দুটি চলচ্চিত্রে একটি। অপরটি ছিল দ্য গ্রিন বেরেটস (১৯৬৮)। এটি ভিয়েতনাম যুদ্ধ চলাকালীন যুদ্ধের সমর্থনে নির্মিত একমাত্র মূলধারার চলচ্চিত্র। এই চলচ্চিত্র নির্মাণকালে ভিয়েতনামের ডিগার ও মন্টাগনার্ড লোকেরা ওয়েনকে একটি পিতলের ব্রেসলেট উপহার দেন। তিনি এই চলচ্চিত্রে এবং পরবর্তী চলচ্চিত্রগুলোতে এই ব্রেসলেট পরিধান করেন।[৫]

জন ওয়েন ট্রু গ্রিট (১৯৬৯) চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেতার জন্য একাডেমি পুরস্কার অর্জন করেন। এটি তার দ্বিতীয় একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন ছিল। তিনি তার প্রথম মনোনয়ন পেয়েছিলেন ২০ বছর পূর্বে। ১৯৭৪ সালে তিনি অপরাধ নাট্যধর্মী এমসিকিউ চলচ্চিত্রে গোয়েন্দা চরিত্রে অভিনয় করেন। তার সর্বশেষ চলচ্চিত্র দ্য শুটিস্ট (১৯৭৬)-এ তিনি জে. বি. বুকস নামে একজন বয়স্ক বন্দুকযোদ্ধা চরিত্রে অভিনয় করেন।

পুরস্কার ও সম্মাননাসম্পাদনা

একাডেমি পুরস্কার
গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার
হলিউড ওয়াক অব ফেম
  • চলচ্চিত্রে অবদানের জন্য তারকা প্রাপ্তি - ১৫৩১ ভাইন স্ট্রিট (১৯৬০)

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. কের, ডেভ। "John Wayne News"দ্য নিউ ইয়র্ক টাইমস। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মে ২০১৮ 
  2. "John Wayne"। The Numbers। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মে ২০১৮ 
  3. "Quigley's Annual List of Box-Office Champions, 1932–1970"। Reel Classics। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মে ২০১৮ 
  4. "Year Books - John Wayne"ক্লাসমেটস। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মে ২০১৮ 
  5. রবার্টস, র‍্যান্ডি; অলসন, জেমস এস. (১৯৯৫)। John Wayne: American। New York: Free Press। পৃষ্ঠা 63–64। আইএসবিএন 978-0-02-923837-0 
  6. হার্ব, ফ্যাগেন। "Duke, We're Glad We Knew You: John Wayne's Friends and Colleagues Remember His Remarkable life"। পৃষ্ঠা ২৩০। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মে ২০১৮ 
  7. বিসকিন্ড, পিটার। "Easy Riders Raging Bulls: How the Sex-Drugs-And Rock 'N Roll Generation Saved Hollywood"। পৃষ্ঠা ৩৭২। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মে ২০১৮ 
  8. "John Wayne Dies at 72 of Cancer"লস অ্যাঞ্জেলেস টাইমস। ১২ জুন ১৯৭৯। সংগ্রহের তারিখ ২৬ মে ২০১৮ 
  9. জ্যাকবস, ফ্রেড (১৯ মে ২০১৬)। "JOHN WAYNE – The Duke - Vallarta Tribune"ভালার্টা ট্রিবিউন (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুন ২০১৮ 
  10. ফারকিস, জন (২০১৫)। Not Thinkin'... Just Rememberin'... The Making of John Wayne's "The Alamo" (ইংরেজি ভাষায়)। বেয়ারমেনর মিডিয়া। সংগ্রহের তারিখ ১১ জুন ২০১৮ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা