কলমাকান্দা সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়

নেত্রকোণা জেলার কলমাকান্দা উপজেলার একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়

কলমাকান্দা সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় (প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৪২ খ্রিস্টাব্দ) নেত্রকোণা জেলার অন্তর্গত কলমাকান্দা উপজেলার একটি মাধ্যমিক বিদ্যালয়।

কলমাকান্দা সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়
Kalmakanda Govt Pilot High School
ঠিকানা
জেলা পরিষদ সুপার মার্কেট, কলমাকান্দা-দুর্গাপুর সড়ক


, ,
২৪৩০

স্থানাঙ্ক২৫°০৪′৩৯″ উত্তর ৯০°৫৩′১৭″ পূর্ব / ২৫.০৭৭৫৪° উত্তর ৯০.৮৮৮১৭° পূর্ব / 25.07754; 90.88817
তথ্য
বিদ্যালয়ের ধরনসরকারি মাধ্যমিক
ধর্মীয় অন্তর্ভুক্তিনিরপেক্ষ
স্থাপিত১৯৪২ খ্রিস্টাব্দ
কার্যক্রম শুরুসকাল ৯ ঘটিকা
বন্ধবিকাল ৪ ঘটিকা
বিদ্যালয় বোর্ডমাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ময়মনসিংহ, বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডবাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়
সেশনজানুয়ারি-ডিসেম্বর
বিদ্যালয় কোডইআইআইএন-১১২৯৯২
প্রধান শিক্ষকইলিয়াস হোসেন কোকিল[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]
অনুষদবিজ্ঞান, ব্যবসায় শিক্ষা, মানবিক ও কারিগরি (ভোকেশনাল)
শিক্ষকমণ্ডলী২৩ জন
শ্রেণী৬ষ্ঠ-১০ম
লিঙ্গবালক, বালিকা
শিক্ষাদানের মাধ্যমজাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যপুস্তক বোর্ড
ভাষাবাংলা
রঙ     সাদা,      গাঢ় নীল (নেভি ব্লু)
ওয়েবসাইট
কলমাকান্দা সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় লোগো.png

ইতিহাসসম্পাদনা

বাংলাদেশ স্বাাধীন হওয়ার আগে ব্রিটিশ শাসনামলে ১৯৪২ খ্রিষ্টাব্দে কলমাকান্দা সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠিত হয়।[১][২]

সহশিক্ষা কার্যক্রমসম্পাদনা

প্রাতিষ্ঠানিক কার্যক্রমসম্পাদনা

  • বিজ্ঞান মেলা ও বিজ্ঞানাগার

বিজ্ঞান সচেতন সমাজ ও দেশ গড়ার লক্ষ্যে প্রতিবছর বিজ্ঞান মেলার আয়োজন করা হয়। যার ফলে শিক্ষার্থীরা স্বতঃর্স্ফূতভাবে অংশগ্রহণ করে নিজস্ব মেধার পরিচয় রাখতে পারে। এখানে ব্যবহারিক ক্লাসের জন্য রয়েছে অত্যাধুনিক বিজ্ঞানাগার।

  • কম্পিউটার গবেষণাগার

ছাত্র-ছাত্রীদেরকে যুগোপযোগী করে গড়ে তোলা ও কম্পিউটারের বহুমুখী ব্যবহার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে অত্র প্রতিষ্ঠানে একটি কম্পিউটার গবেষণাগার রয়েছে। উক্ত গবেষণাগারে পর্যায়ক্রমে সময়সূচি অনুসারে শ্রেণিভিত্তিক ছাত্র-ছাত্রীদেরকে হাতে কলমে কম্পিউটার ব্যবহার ও তথ্য প্রযুক্তি বিষয়ে শিক্ষা দেওয়া হয়।

  • শিক্ষা সফর

শ্রেণিকক্ষের ক্লান্তি দূর করতে, মনকে প্রফুল্ল রাখতে, অজানাকে জানতে, নিজের চোখে দেশের ঐতিহাসিক ও দর্শনীয় স্থান দেখার জন্য নিজেদের উদ্যোগে ও নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠান প্রধান ও সংশিষ্ট শিক্ষকবৃন্দের সহায়তায় শিক্ষা সফরের আয়োজন করা হয়ে থাকে।

  • গ্রন্থাগার

প্রবন্ধ, উপন্যাস, ছোট গল্প, ইতিহাস, ভূগোল, পৌরনীতি, অর্থনীতি, অনুসন্ধান বা আবিষ্কার বিষয়ক ও জ্ঞান-বিজ্ঞানের নানা ধরনের বই আছে প্রায় চার হাজারের মত।

পাঠাভ্যাস উন্নয়ন কার্যক্রমসম্পাদনা

  • বিতর্ক প্রতিযোগিতা ক্লাব

ছাত্র-ছাত্রীদের গুছিয়ে কথা বলা এবং অন্যের দৃষ্টিভঙ্গি জানা ও সম্মান করার লক্ষ্যে বিতর্ক প্রতিযোগিতা ক্লাবের প্রয়োজনীয়তা অনেক। এছাড়াও বিতর্ক যুক্তির মাধ্যমে বিভিন্ন বিষয় জানা ও বিপক্ষের যুক্তিকে বাস্তবে কাজে লাগানোর জন্য বিতর্ক প্রতিযোগিতা ক্লাব স্থাপন করা হয়েছে।

  • সাংস্কৃতিক ক্লাব

ছাত্র-ছাত্রীদের মানসিক প্রশান্তি ও তাদের সুপ্ত প্রতিভা বিকাশের জন্য সাংস্কৃতিক ক্লাব খুবই গুরুত্বপূর্ণ। নাচ, গান, কবিতা আবৃতিসহ সংস্কৃতিমনা পরিবেশের জন্য ছাত্র-ছাত্রীরা খুব সহজেই সাংস্কৃতিক ক্লাবের সদস্য হতে পারে। এছাড়াও বিনা খরচে বিভিন্ন বাদ্যযন্ত্রের ব্যবহার, নাচ-গান ইত্যাদি শিখানো হয়।

  • খেলাধুলা ক্লাব

পড়াশোনার একঘেয়েমি দূর করার জন্য খেলাধুলা ক্লাবটির প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। এতে ছাত্র-ছাত্রীরা ক্লাবের সদস্য হয়ে ফুটবল, ক্রিকেট, ব্যাডমিন্টন, ভলিবলসহ বিভিন্ন খেলায় অংশগ্রহণ করে নিজের প্রতিভার বিকাশ ঘটাতে পারে। এছাড়াও ছাত্র-ছাত্রীদের উৎসাহ দেওয়ার জন্য প্রতিবছর বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

  • বিজ্ঞান ক্লাব

ছাত্র-ছাত্রীদের বিজ্ঞানমুখী এবং নতুন নতুন সৃষ্টিকর্ম উদ্ভাবন করা ও উৎসাহ দেওয়া এই ক্লাবের মূল লক্ষ্য। বিজ্ঞান মেলার মাধ্যমে ছাত্র-ছাত্রীদের আবিষ্কারগুলো প্রদর্শন করা হয়ে থাকে। এতে ছাত্র-ছাত্রীরা নতুন নতুন সৃষ্টি কর্মে আরো বেশি মনযোগী হয়ে উঠে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "কলমাকান্দা পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট"kkgphs.edu.bd। ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  2. "শিক্ষায় কলমাকান্দাবাসীর আরো একধাপ উন্নয়ন"www.amritabazar.com। ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯