হ্যারি বয়েল

অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার

হেনরি ফ্রেডেরিক (হ্যারি) বয়েল (ইংরেজি: Harry Boyle; জন্ম: ১০ ডিসেম্বর, ১৮৪৭ - মৃত্যু: ২১ নভেম্বর, ১৯০৭) নিউ সাউথ ওয়েলসের সিডনিতে জন্মগ্রহণকারী শীর্ষস্থানীয় অস্ট্রেলীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার ছিলেন। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি মিডিয়াম বোলিং করতেন। পাশাপাশি ডানহাতে নিচেরসারিতে ব্যাটহাতে কার্যকরী ভূমিকা পালন করতেন তিনি। ১৮৭০-এর দশকের শেষভাগ থেকে ১৮৮০-এর দশকের সূচনাকাল পর্যন্ত অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে টেস্ট ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন হ্যারি বয়েল

হ্যারি বয়েল
Harry Boyle.png
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামহেনরি ফ্রেডেরিক বয়েল
জন্ম(১৮৪৭-১২-১০)১০ ডিসেম্বর ১৮৪৭
সিডনি, নিউ সাউথ ওয়েলস, অস্ট্রেলিয়া
মৃত্যু২১ নভেম্বর ১৯০৭(1907-11-21) (বয়স ৫৯)
পূর্ব বেন্ডিগো, ভিক্টোরিয়া
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি মিডিয়াম
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট এফসি
ম্যাচ সংখ্যা ১২ ১৪০
রানের সংখ্যা ১৫৩ ১৭১১
ব্যাটিং গড় ১২.৭৫ ১০.২৪
১০০/৫০ ০/০ ১/১
সর্বোচ্চ রান ৩৬* ১০৮
বল করেছে ১৭৪৩ ১৬৪২৯
উইকেট ৩২ ৩৭০
বোলিং গড় ২০.০৩ ১৫.৩৮
ইনিংসে ৫ উইকেট ২৬
ম্যাচে ১০ উইকেট
সেরা বোলিং ৬/৪২ ৭/৩২
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১০/০ ১২৬/০
উৎস: ক্রিকইনফো, ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৭
১৮৮৮ সালে অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের সাথে হেনরি বয়েল (মাঝারিসারিতে বামে)

খেলোয়াড়ী জীবনসম্পাদনা

বয়েল ভিক্টোরিয়ার প্রতিনিধিত্ব করেছেন। ১৮৭৮, ১৮৮০ ও ১৮৮২ সালে সফরে আসলে ইংল্যান্ড দলের বিপক্ষে প্রস্তুতিমূলক খেলায় অনিন্দ্যসুন্দর ক্রীড়াশৈলী উপহার দেন। বয়েলের কিছুটা আপত্তি স্বত্ত্বেও ১৮৮০ সালের সফরকে ঘিরে অধিনায়ক করা হয়। তবে, তাদের প্রত্যাবর্তনের পূর্বেই দলীয় সিদ্ধান্তে তার পরিবর্তে বিলি মারডককে অধিনায়ক মনোনীত করা হয়।[১] অসাধারণ মিডিয়াম-পেসার হিসেবে বয়েলের সেরা সাফল্য এসেছে বলের নিখুঁততা ও ব্যাটসম্যানের দূর্বলতা প্রমাণে সক্ষমতাকে ঘিরে। ইংরেজ পরিবেশেই তার বোলিং মূলতঃ কার্যকরী ছিল। বল হাতে তার এ অর্জনগুলো প্রায়শঃই দলীয় সঙ্গী ‘দ্য ডেমন বোলার’ নামে পরিচিত ফ্রেড স্পফোর্থের কারণে আড়ালে ঢাকা পড়তো।

কাছাকাছি এলাকায় ফিল্ডিং করেও যথেষ্ট সুনাম কুড়িয়েছেন তিনি। নিচেরসারিতে ব্যাটিং করেও সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন। সর্বমোট ১২ টেস্টে অংশ নিয়েছেন। ২০.০৩ গড়ে ৩২ উইকেট লাভ করেছেন তিনি।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

১৮৭০-এর দশকের মাঝামাঝি সময় কার্লটন ফুটবল ক্লাবের পক্ষে অস্ট্রেলীয় রুলস ফুটবলার হিসেবেও খ্যাতি অর্জন করেন।[২] ২১ নভেম্বর, ১৯০৭ তারিখে ভিক্টোরিয়ার পূর্ব বেন্ডিগো এলাকায় ৫৯ বছর বয়সে তার দেহাবসান ঘটে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Garrie Hutchinson and John Ross (eds.) (১৯৯৭)। 200 Seasons of Australian Cricket (ইংরেজি ভাষায়)। Ken Finn Books। পৃষ্ঠা 66। আইএসবিএন 0-330-36034-5 
  2. Atkinson, p. 182.

আরও দেখুনসম্পাদনা

গ্রন্থপঞ্জীসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা