হিরণ পয়েন্ট

বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলে অবস্থিত একটি সংরক্ষিত অভয়ারণ্য

হিরণ পয়েন্ট হল বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলে অবস্থিত পৃথিবীর সর্ববৃহৎ লোনা পানির বন সুন্দরবনের দক্ষিণাংশের একটি সংরক্ষিত অভয়ারণ্য। এর আরেক নাম নীলকমল। প্রমত্তা কুঙ্গা নদীর পশ্চিম তীরে, খুলনা রেঞ্জে এর অবস্থান।[১] হিরণ পয়েন্ট, ইউনেস্কো ঘোষিত অন্যতম একটি বিশ্ব ঐতিহ্য।[২]

নামকরণ

সম্পাদনা

নীলকমল নদীর আশপাশের জঙ্গলে এখনো হরিণের আধিক্য চোখে পড়ে। এদত অঞ্চলে হরিণের অবাধ বিচরণের জন্যই এ স্থানকে হিরণ পয়েন্ট নামে অভিহিত করা হয়।[এসএম শাহনূর]

জীববৈচিত্র্য

সম্পাদনা

হিরণ পয়েন্ট একটি অভয়ারণ্য হওয়ায় এই স্থান অনেক বাঘ, হরিণ, বানর, পাখি এবং সরিসৃপের নিরাপদ আবসস্থল।[১] সুন্দরবন এলাকায় রয়েল বেঙ্গল টাইগার দেখার অন্যতম একটি স্থান হলো এই হিরণ পয়েন্ট। এখানে দেখা পাওয়া যায় চিত্রা হরিণ, বন্য শুকরের; পাখিদের মধ্যে আছে সাদা বুক মাছরাঙা, হলুদ বুক মাছরাঙা, কালোমাথা মাছরাঙা, লার্জ এগ্রেট, কাঁদা খোঁচা, ধ্যানী বক প্রভৃতি। এছাড়া আছে প্রচুর কাঁকড়ার আবাস। আর আছে রঙ-বেরঙের প্রজাপতি[২]

অন্যান্য

সম্পাদনা

হিরণ পয়েন্ট থেকে কিলোমিটার দূরে কেওড়াসুঠিতে রয়েছে একটি পর্যবেক্ষণ টাওয়ার, যা থেকে আশপাশের প্রকৃতি দেখার ব্যবস্থা রয়েছে।[১] সেখানে মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ পরিচালিত তিনটি ভালো রেস্টহাউজ আছে। বন্দর কর্তৃপক্ষের অনুমতিসাপেক্ষে তাতে থাকা যায়।[৩]

উল্লেখযোগ্য ঘটনাবলী

সম্পাদনা

পূর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ, ১৯৯৫

সম্পাদনা
 
সূর্যগ্রহণের গতিপথ

১৯৯৫ খ্রিষ্টাব্দের ২৪ অক্টোর তারিখে বাংলাদেশের হিরণ পয়েন্ট থেকে ১৯শ শতাব্দের সর্বশেষ পুর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ দেখা গিয়েছিলো।[৪] সূর্যগ্রহণটি ২মিনিট ১০সেকেন্ড স্থায়ী হয়েছিলো।

তথ্যসূত্র

সম্পাদনা
  1. শতদল সেন যিশু (২৭ সেপ্টেম্বর ২০১০)। "দারুণ ১০ সুন্দর: হিরণ পয়েন্ট"। A টু Z, দৈনিক কালের কণ্ঠ (প্রিন্ট)। ঢাকা। পৃষ্ঠা ৯। 
  2. মুস্তাফিজ মামুন (২৬ জানুয়ারি ২০০৮)। "সুন্দরবনে, সিডরের পরে"বিডিনিউজ24.কম। ঢাকা। ২ জানুয়ারি ২০১১ তারিখে মূল (ওয়েব) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ৯, ২০১০ 
  3. "সুন্দরবন:হিরণ পয়েন্ট, কচিখালী ও মান্দারবাড়ীয়া"[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ], Ruralinfobd.com; অক্টোবর ৯, ২০১০ তারিখে পরিদৃষ্ট।
  4. [অজানা] (২১ জুলাই ২০০৯)। "শতাব্দির শেষ পুর্ণগ্রাস সূর্যগ্রহণ কাল" (ওয়েব)দৈনিক মাথাভাঙ্গা। চুয়াডাঙ্গা। সংগ্রহের তারিখ অক্টোবর ৯, ২০১০ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]