হিন্দুস্তানি শাস্ত্রীয় সংগীত

ভারতীয় সংগীত

উচ্চাঙ্গ সংগীত · ভজন · গজল · কাওয়ালি
লোকসংগীত · চিত্রগীতি · পপ · রক · হিপ হপ · রবীন্দ্রসংগীত

ধরন

উচ্চাঙ্গ সংগীত (কর্ণাটকী · হিন্দুস্তানি)

পুরস্কার

ফিল্মফেয়ার পুরস্কার · পাঞ্জাবি সংগীত পুরস্কার

উত্সব

সংগীত নাটক অকাদেমি
ত্যাগরাজ আরাধনা
ক্লিভল্যান্ড ত্যাগরাজ আরাধনা
বাংলা সংগীত মেলা

গণমাধ্যম

শ্রুতি
গান ম্যাগাজিন

জাতীয়
সংগীত

"জনগণমন-অধিনায়ক জয় হে"

জাতীয়
স্তোত্র

"বন্দে মাতরম্‌"

দেশ/অঞ্চলের মধ্যে

আন্দামান এবং নিকোবার দ্বীপপুঞ্জ
অন্ধ্র প্রদেশ · অরুনাচল প্রদেশ · আসাম · বিহার · ছত্তীসগঢ় · গোয়া · গুজরাট · হরিয়ানা · হিমাচল প্রদেশ · জম্মু ও কাশ্মীর · ঝাড়খন্ড · কর্ণাটক · কেরালা · মধ্যপ্রদেশে · মহারাষ্ট্র · মণিপুর · মেঘালয় · মিজোরাম · নাগাল্যান্ডে · ওড়িশা · পাঞ্জাব · রাজস্থান · সিক্কিম · তামিল নাড়ু · ত্রিপুরা · উত্তর প্রদেশ · উত্তরাঞ্চল · পশ্চিমবঙ্গ

হিন্দুস্তানি শাস্ত্রীয় সংগীত বা হিন্দুস্থানী শাস্ত্রীয় সঙ্গীত (দেবনাগরী: हिन्दुस्तानी शास्त्रीय संगीत) ভারতীয় শাস্ত্রীয় সংগীতের উত্তর ভারতীয় শাখা। খ্রিষ্টপূর্ব ১০০০ অব্দে উদ্ভূত বৈদিক স্তোত্রগুলির মধ্যে এই ধারার উৎস নিহিত রয়েছে।[১] তবে শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের আধুনিক ধারাটির উদ্ভব খ্রিষ্টীয় দ্বাদশ শতাব্দীতে। আমির খসরুকে (১২৫৩-১৩২৫) আধুনিক শাস্ত্রীয় সঙ্গীতের জনক মনে করা হয়।[২] হিন্দুস্থানি কণ্ঠসঙ্গীতের প্রধান শাখাগুলি হল খেয়াল, ধ্রুপদতারানা। অন্যান্য ধারাগুলির উল্লেখযোগ্য ধামার, কাজরী, টপ্পা, ঠুংরি, দাদরা, গজল, ভজন ইত্যাদি।

একজন ভারতীয় সংগীত শিল্পী ছিলেন, যিনি হিন্দুস্তানি শাস্ত্রীয় সংগীত গাইতেন

নামকরণসম্পাদনা

উত্তর ভারতীয় "হিন্দুস্থান" অঞ্চল থেকে এ সঙ্গীত ঐতিহ্যের নাম রাখা হয়।

অঞ্চলসম্পাদনা

এই সংগীত প্রথা বিন্ধ্য পর্বতের উত্তরে সমগ্র ভারতে প্রচলিত।

ঘরানাসম্পাদনা

  1. মেওয়াতী বা জয়পুর - মেওয়াতী বা যোধপুর ঘরানা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Excerpts from Bharatiya Sangeet Vadya - Swar in Sam Veda"। ২৩ জুলাই ২০১১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৬ সেপ্টেম্বর ২০১০ 
  2. MusicalNirvana - Amir Khusro Dehlavi

বহিঃসংযোগসম্পাদনা