সায়ন্তনী গুহঠাকুরতা

অভিনেত্রী

সায়ন্তনী গুহঠাকুরতা (এই শব্দ সম্পর্কেউচ্চারণ ) একজন জনপ্রিয় ভারতীয় অভিনেত্রী। বাংলা টেলিভিশন ধারাবাহিক এবং চলচ্চিত্র জগতের চেনা মুখ। তিনি থিয়েটারেও কাজ করেন। সেই সঙ্গে করেছেন প্রচুর মডেলিঙের অ্যাসাইনমেন্টও।সফলভাবে তার টেলিভিশন এবং চলচ্চিত্র প্রকল্প ম্যানেজ করেছেন।[৩] এখানেই শেষ নয়, এছাড়াও তিনি করেছেন বেশকিছু শর্ট ফিল্ম, বিজ্ঞাপনের ছবি, এবং মিউজিক ভিডিও।  কেরিয়ারের কিছুটা সময় একটি বাংলা মিউজিক চ্যানেলের ভিজেও ছিলেন।

সায়ন্তনী গুহঠাকুরতা
Sayantani Guhathakurta at the Premiere of Amar Artanad at Priya Cinema.jpg
জন্ম (1990-11-04) ৪ নভেম্বর ১৯৯০ (বয়স ৩১)[১]
পেশাঅভিনেত্রী
কর্মজীবন২০১২- বর্তমান
আত্মীয়সৌম্যব্রত গুহঠাকুরতা (ভাই)[২]

প্রথম জীবনসম্পাদনা

সায়ন্তনীর জন্ম ও বড়ো হওয়া কলকাতা শহরে। তিনি দুর্ভাগ্যবশত খুব অল্প বয়সেই (পঞ্চম শ্রেণীতে পড়াকালীন) তার পিতাকে হারান।[৪] সায়ন্তনী তিন বছর বয়স থেকে নাচের সঙ্গে যুক্ত। তিনি থাঙ্কমণি কুট্টি ঘরানার শাস্ত্রীয় নাচে প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন এবং পরে নিজের আদ্রিকা নামে একটি নৃত্য দল তৈরি করেন। ভেবেও ছিলেন যে তিনি পেশায় একজন নৃত্যশিল্পী হবেন। মূলত নাচের জন্য নাচের সায়ন্তনীকে বিভিন্ন শো করতে বহু জায়গায় ভ্রমণ করতে হতো। এই শো-গুলির মধ্যে একটিতে তিনি নজরে আসেন ও তাকে একটি ফ্যাশন শো-তে অংশ নিতে হয়েছিল। এরপর বিজ্ঞাপনের বিলবোর্ড অ্যাড, বুটিক্স এবং সোনা-গয়নার বিজ্ঞাপন টেলিভিশন বিজ্ঞাপন তিনি করেন। এরই মধ্যে একটি সৌন্দর্য প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে রানার আপ হন তিনি। তিনি রাষ্ট্রবিজ্ঞানে স্নাতকের পর পোশাক নকশাকরণের উপর কোর্স সম্পন্ন করেন। তার মা তাকে ডাব্লুসিবিএস পরীক্ষা দেওয়াতে চেয়েছিলেন। তখন তিনি বিজ্ঞাপনের অফার পেয়েছিলেন। যা তিনি করতে চেয়েছিলেন। তার মা তাকে নিজেকে প্রমাণ করার জন্য মাত্র এক বছর সময় দিয়েছিলেন। তিনি তার মাকে অবশেষে সন্তুষ্ট করতে পেরেছিলেন।[৫]

অভিনয়সম্পাদনা

মানস বসুর সিনেমা, টলিউড ফোকাসে স্বস্তিকা মুখার্জী এবং অমিতাভ ভট্টাচার্যের সাথে অভিনয় করেন। এটি তার প্রথম সিনেমা। সায়ন্তনী গুহঠাকুরতার কেরিয়ার গ্রাফ যদিও একইভাবে থাকেনি। সিরিয়ালের শুটিং সেরে বাড়ি ফেরার পথে তাঁর একটি দুর্ঘটনা ঘটে। সেই জন্য প্রায় দেড় বছর তিনি এইসব কিছু থেকে নিজেকে বিরত রাখেন। তারপর আবার সুস্থ হয়ে তিনি ফ্লোরে ফিরে আসেন। তবে সেই সময়টা তিনি ভিজে হিসেবে কাজ করেছেন। মডেলিং থেকে সিরিয়ালে আসা। ‘হিরো’ তাঁর প্রথম অভিনীত ধারবাহিক। তিনি জনপ্রিয় পারিবারিক নাটক 'জয়ী' একটি ছোট চরিত্র করেছেন, যাতে অভিনেতা দেবজ্যোতি দত্ত এবং দেবাদ্রিতা বসুও রয়েছে। তাকে এতে জয়ীর মা (সুধা) হিসাবে দেখা যায়।[৬] টেলিভিশনের জনপ্রিয় সিরিয়াল‘ জয় কালী কলকাত্তায়ালী’, 'কিরণমালা'[৭] এবং 'সাত ভাই চম্পা' [৮] তে ও তিনি অভিনয় করেছেন।[৯] তিনি অভিনয় করেছেন বাংলা সিনেমা চারদিকের গল্প,জলে জঙ্গলে,তদন্ত,মহাকাশ কাণ্ড,আমি সায়রাবানু,[১০] উমা (চলচ্চিত্র),হইচই আনলিমিটেড, গেম প্ল্যান,সমান্তরাল (চলচ্চিত্র)[১১][১২],কিন্তু গল্প নয়[১৩],বৃষ্টি তোমাকে দিলাম[১৪],কে তুমি নন্দিনী,এক যে ছিল রাজা প্রভৃতিতে ।[১৫][১৬][১৭][১৮][১৯] তার প্রথম তেলুগু ছবি চিকাটি গাদিলো চিতাকটডু[২০]

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

সায়ন্তনী ভ্রমণে উৎসাহী। তিনি বিভিন্ন জায়গায় ঘোরার একটি সুযোগ ও মিস করেন না। সায়ন্তনী তার ভদ্র প্রকৃতির জন্য পরিচিত।[৯] তিনি থিয়েটার দেখতে পছন্দ করেন ।[২১] তার পৈতৃক বাড়ি বাংলাদেশের বরিশালে[২২]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Bengali actress Sayantani Guhathakurta enjoys her birthday with family and friends"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১১ 
  2. "Sayantani Guhathakurta had a blast in Bhai Phonta celebration"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১১ 
  3. Desk, NewsXp Online (২০১৮-০৫-২৬)। "টলিউডে কাস্টিং কাউচ নিয়ে প্রশ্নের জবাবে যা বললেন সুন্দরী এই নায়িকা, শুনলে চমকে যাবেন"NewsXP Bengali (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৪-১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১৩ 
  4. "I miss Baba and his Panchami surprises: actress Sayantani Guhathakurta - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১৩ 
  5. "Exploitations are for real: Sayantani - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১১ 
  6. "Actress Sayantani Guhathakurta bags a meaty role in Bengali show 'Joyee' - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১১ 
  7. "জয়ার 'দেবী' নিয়ে যা বললেন কিরণমালা সিরিয়ালের অভিনেত্রী"jagonews24.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১৩ 
  8. পর্দা, রুপালী। "আসছে 'সাত ভাই চম্পা', ফাঁস হলো রানিদের আসল পরিচয়!" (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৪-১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১৩ 
  9. "Bengali actress Sayantani Guhathakurta stuns in a slow-motion video; take a look - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১১ 
  10. "KOLKATA Edition Page: 7 - sangbadnazar Patrika epaper"sangbadnazar online epaper, kolkata edition। ২০১৯-০৪-১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১৩ 
  11. "সৃজিতদার সঙ্গে কফি খেতে যাইনি"anandabazar.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১২ 
  12. ""সমান্তরাল" নিয়ে কথা বললেন সায়ন্তনি গুহঠাকুরতা"What's New Life। ২০১৭-০৯-১৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১৩ 
  13. "'Kintu Galpo Noy' depicts deplorable plight of Indian medical services"Sangbad Pratidin Home (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৮-০৫-২৮। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১৩ 
  14. "'বৃষ্টি তোমাকে দিলাম' ছবির গান প্রকাশ"আনন্দ সংবাদ। ফেব্রুয়ারি ৯, ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ এপ্রিল ১৩, ২০১৯ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  15. "Sayantani Guhathakurta joins Bonny and Rupsha in Pathikrit Basu's next - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১১ 
  16. "Sayantani Guhathakurta bags another offer from South! - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১১ 
  17. "I am completely in love with Jaya Ahsan: Sayantani Guhathakurta - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১১ 
  18. "Sayantani Guhathakurta joins 'Hoichoi Unlimited' cast - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১১ 
  19. "'Game Plan' and adda session - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১১ 
  20. "Telugu Debut: Sayantani's 'sexy bhoot' avatar is already a hit - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১১ 
  21. "Our friendship feeds on trust and mutual respect: Actress Sayantani Guhathakurta - Times of India"The Times of India (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-১১ 
  22. "'আমার লাভ লাইফ ইন্টারেস্টিং নয়' - DNA Bangla"Dailyhunt (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০১-২২ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা