শার্লি ম্যাকলেইন

মার্কিন অভিনেত্রী

শার্লি ম্যাকলেইন (ইংরেজি: Shirley MacLaine; জন্ম: শার্লি বেটি, ২৪শে এপ্রিল ১৯৩৪)[২] হলেন একজন মার্কিন অভিনেত্রী, গায়িকা, নৃত্যশিল্পী, সমাজকর্মী ও লেখক। অভিনয়ের স্বীকৃতি হিসেবে তিনি একবার একাডেমি পুরস্কার, ২০১২ সালে আমেরিকান ফিল্ম ইনস্টিটিউট থেকে এএফআই আজীবন সম্মাননা পুরস্কার, এবং প্রদর্শন কলার মাধ্যমে মার্কিন সংস্কৃতিতে অবদানের জন্য ২০১৩ সালে কেনেডি সেন্টার সম্মাননা লাভ করেন। তিনি তার নব্য যুগ বিশ্বাসের জন্য পরিচিত এবং তার আধ্যাত্মিকতা ও পুনঃদেহধারনে আগ্রহ রয়েছে। তিনি তার এই বিশ্বাস, বিশ্ব ভ্রমণ ও তার হলিউড কর্মজীবনের উপর কয়েকটি আত্মজীবনীমূলক বই রচনা করেছেন।

শার্লি ম্যাকলেইন
Shirley MacLaine
Shirley MacLaine - 1960.jpg
দি অ্যাপার্টমেন্ট চলচ্চিত্রের প্রচারণামূলক ছবিতে ম্যাকলেইন
জন্ম
শার্লি ম্যাকলেইন বেটি

(1934-04-24) ২৪ এপ্রিল ১৯৩৪ (বয়স ৮৭)
পেশাঅভিনেত্রী, গায়িকা, নৃত্যশিল্পী, সমাজকর্মী, লেখক
কর্মজীবন১৯৫৫–বর্তমান
রাজনৈতিক দলডেমোক্র্যাট[১]
দাম্পত্য সঙ্গীস্টিভ পার্কার
(বি. ১৯৫৪; বিচ্ছেদ. ১৯৮২)
সন্তানসাশি পার্কার
আত্মীয়ওয়ারেন বেটি (ভাই)
ওয়েবসাইটshirleymaclaine.com

ছয়বার একাডেমি পুরস্কারে মনোনীত ম্যাকলেইন প্রামাণ্যচিত্র দ্য আদার হাফ অব দ্য স্কাই: আ চায়না মেমোইর (১৯৭৫) পরিচালনার জন্য শ্রেষ্ঠ পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রামাণ্যচিত্র বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন এবং সাম কেম রানিং (১৯৫৮), দি অ্যাপার্টমেন্ট (১৯৬০), ইরমা লা দুস (১৯৬৩) ও দ্য টার্নিং পয়েন্ট (১৯৭৭) চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন ও টার্মস অব এনডিয়ারমেন্ট চলচ্চিত্রের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে অস্কার লাভ করেন। তিনি আস্ক অ্যানি গার্ল (১৯৫৯) ও দি অ্যাপার্টমেন্ট (১৯৬০) চলচ্চিত্রের জন্য দুইবার শ্রেষ্ঠ বিদেশি অভিনেত্রী বিভাগে বাফটা পুরস্কার লাভ করেন, এবং বিশেষ টিভি অনুষ্ঠান জিপসি ইন মাই সোল-এর জন্য একটি এমি পুরস্কার লাভ করেন। এছাড়া তিনি পাঁচটি প্রতিযোগিতামূলক গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার লাভ করেন এবং ১৯৮৮ সালে তাকে গোল্ডেন গ্লোব সেসিল বি. ডামিল পুরস্কার প্রদান করা হয়।

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

শার্লি ম্যাকলেইন বেটি ১৯৩৪ সালের ২৪শে এপ্রিল ভার্জিনিয়ার রিচমন্ডে জন্মগ্রহণ করেন। তার নামকরণ করা হয় অভিনেত্রী শার্লি টেম্পলের নামানুসারে। তার পিতা আইরা ওয়েন্স বেটি ছিলেন মনোবিজ্ঞানের অধ্যাপক, সরকারি বিদ্যালয়ের প্রশাসক ও আবাসন ব্যবসায়ের প্রতিনিধি। তার মাতা ক্যাথলিন করিনি (বিবাহপূর্ব নাম ম্যাকলিন) ছিলেন নাট্যতত্ত্বের শিক্ষিকা। তিনি কানাডার নোভার স্কটিয়ার উল্‌ফভিলে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। ম্যাকলেইনের ছোট ভাই ওয়ারেন বেটি একজন অভিনেতা, চিত্রনাট্যকার ও পরিচালক।[৩] তাদের পিতামাতা তাদের বাপ্টিস্ট ধর্মমতের শিক্ষা দেন।[৪] তার মায়ের বোনের স্বামী এ. এ. ম্যাকলিয়ড ছিলেন ১৯৪০-এর দশকের অন্টারিও আইন প্রণয়নকারী সংস্থার কমিউনিস্ট সদস্য।[৫][৬] ম্যাকলেইনের শৈশবে তার পিতা সপরিবারে রিচমন্ড থেকে নরফোকে চলে যান এবং এরপর আর্লিংটন ও ওয়েভারলি যান। তারা পুনরায় আর্লিংটনে ফিরে আসেন এবং ১৯৪৫ সালে আর্লিংটনের টমাস জেফারসন জুনিয়র হাই স্কুলে যোগদান করেন। ম্যাকলেইন ছেলেদের দলে বেসবল খেলতেন এবং সর্বাধিক রান করার কারণে তাকে "পাওয়ারহাউজ" নামে ডাকা হত। ১৯৫০-এর দশকে তাদের পরিবার আর্লিংটনের ডোমিনিয়ন হিলসে বসবাস করত।[৭]

কর্মজীবনসম্পাদনা

ম্যাকলেইন প্রধান চরিত্রে সাম কেম রানিং (১৯৫৮) চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারসেরা নাট্য চলচ্চিত্র অভিনেত্রী বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। পরের বছর তিনি আস্ক অ্যানি গার্ল (১৯৫৯) চলচ্চিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ বিদেশি অভিনেত্রী বিভাগে বাফটা পুরস্কার লাভ করেন।

 
দি অ্যাপার্টমেন্ট (১৯৬০)-এর ট্রেইলারে ম্যাকলেইন

১৯৬০ সালে তিনি জ্যাক লেমনের বিপরীতে বিলি ওয়াইল্ডারের দি অ্যাপার্টমেন্ট চলচ্চিত্র অভিনয় করেন। আপার ওয়েস্ট সাইডের পটভূমিতে নির্মিত চলচ্চিত্রটি সি.সি. ব্যাক্সটার (লেমন) নামক একজন বীমা কেরানি উপর আবর্তিত, যিনি তার সহকর্মীকে বিবাহ-বহির্ভূত সম্পর্কের জন্য তার অ্যাপার্টমেন্ট ব্যবহারের অনুমতি দেন। ব্যাক্সটার বীমা কোম্পানির এলিভেটর অপারেটর ফ্র্যান কুবেলিকের (ম্যাকলেইন) প্রতি আকৃষ্ট, যিনি ইতোমধ্যে ব্যাক্সটারের বসের (ফ্রেড ম্যাকমারি) সাথে প্রেম করছেন। প্রণয়মূলক নাট্য ও হাস্যরসের মিশ্রণ সংবলিত চলচ্চিত্রটি দশটি বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করে এবং পাঁচটি বিভাগে পুরস্কৃত হয়। ম্যাকলেইন শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। তিনি পরবর্তী কালে বলেন, "আমি ভেবেছিলাম আমি দি অ্যাপার্টমেন্ট চলচ্চিত্রের জন্য অস্কার পাব, কিন্তু এলিজাবেথ টেলরের সেই সৌভাগ্য হয়েছিল।" তবে তিনি এই কাজের জন্য শ্রেষ্ঠ বিদেশি অভিনেত্রী বিভাগে বাফটা পুরস্কার লাভ করেন। চলচ্চিত্রটিকে রজার ইবার্ট তার ২০০১ সালের সেরা চলচ্চিত্রের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেন এবং এটি ম্যাকলেইনের পরিজ্ঞাপক চরিত্রে পরিণত হয়। শার্লিজ থেরন ৮৯তম একাডেমি পুরস্কারে ম্যাকলেইনের এই অভিনয়ের প্রশংসা করতে গিয়ে বলেন এটি "অরূপান্তরিত ও আসল ও মজাদার" এবং তা "এই সাদাকালো চলচ্চিত্রটিকে রঙ্গিনের অনুভূতি দিয়েছে।"[৮]

এরপর তিনি অড্রি হেপবার্নজেমস গার্নারের সাথে দ্য চিলড্রেন্‌স আওয়ার (১৯৬১) চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। উইলিয়াম ওয়াইলার পরিচালিত চলচ্চিত্রটি লিলিয়ান হেলম্যানের নাটক অবলম্বনে নির্মিত। তিনি পুনরায় ওয়াইলারের পরিচালনায় লেমনের সাথে ইরমা লা দুস (১৯৬৩) চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন এবং শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

১৯৭৭ তিনি অ্যান ব্যানক্রফ্‌টের সাথে দ্য টার্নিং পয়েন্ট চলচ্চিত্রে একজন অবসরপ্রাপ্ত ব্যালেরিনা চরিত্রে অভিনয় করেন। এই কাজের জন্য তিনি শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন। তিনি টার্মস অব এনডিয়ারমেন্ট চলচ্চিত্রের ডেব্রা উইঙ্গারের মায়ের চরিত্রে অভিনয় করে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী বিভাগে একাডেমি পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৮৮ সালে তিনি মাদাম সুসাৎজকা চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য সেরা নাট্য চলচ্চিত্র অভিনেত্রী বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার লাভ করেন।

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

ম্যাকলেইন ১৯৫৪ সালে ব্যবসায়ী স্টিভ পার্কারকে বিয়ে করেন। ১৯৮২ সালে তাদের বিবাহবিচ্ছেদ ঘটে। তাদের সাচি নামে এক কন্যা রয়েছে। সাচির বয়স যখন ত্রিশের কাছাকাছি তখন তিনি জানতে পারেন যে তার মাতা মনে করেন তার পিতা স্টিভ তার প্রকৃত পিতা নন, বরং তিনি পল নামে একজন নভোচারীর ক্লোন সন্তান।[৯][১০]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Shirley MacLaine"United States Studies Centre (ইংরেজি ভাষায়)। ৭ ডিসেম্বর ২০০৫। মার্চ ১১, ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০১৮ 
  2. ওয়ালশ, জন (১ সেপ্টেম্বর ২০১২)। "Shirley MacLaine: Tough at the top" (ইংরেজি ভাষায়)। দি ইন্ডিপেন্ডেন্ট। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০১৮ 
  3. কোন, ডেভিড; ওয়ালেস, মাইক (মে ১৬, ২০০০)। "Shirley MacLaine's Recent Lives"৬০ মিনিটস (ইংরেজি ভাষায়)। সিবিএস নিউজ। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০২০ 
  4. "The religion of Warren Beatty, actor, director" (ইংরেজি ভাষায়)। অ্যাডহিয়ারেন্টস। আগস্ট ৩০, ২০০৫। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০২০ 
  5. ফিনস্ট্যাড, সুজান। "Warren Beatty: A Private Man"গুগল বুকস (ইংরেজি ভাষায়)। পৃষ্ঠা ৩৯৬। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০২০ 
  6. বিসকাইন্ড, পিটার (মে ১৩, ২০১০)। "Star: The Life and Wild Times of Warren Beatty"গুগল বুকস (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০২০ 
  7. ট্রিয়েসম্যান, লরা; ওয়েইশার, পল; স্টিলনার, অ্যানা (মে ২০১১)। "National Register of Historic Places Inventory/Nomination: Dominion Hills Historic District" (PDF) (ইংরেজি ভাষায়)। ১৯ আগস্ট ২০১২ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০২০ 
  8. "Social Media Gushes Over Shirley MacLaine After Oscars Appearance"দ্য র‍্যাপ। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০২১ 
  9. পার্কার, সাচি (ডিসেম্বর ৩, ২০১৩)। Lucky Me: My Life With – and Without – My Mom, Shirley MacLaineঅ্যাভারি পাবলিশিং। পৃষ্ঠা ২০৭। আইএসবিএন 9781592407880 
  10. গস্টিন, নিকি। "Shirley MacLaine's daughter: My mom thought my dad was a clone, astronaut"ফক্স নিউজ। সংগ্রহের তারিখ ২৪ এপ্রিল ২০২১ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা