রুক্মিণী হলেন শ্রীকৃষ্ণের ষোড়শ সহস্র এক শত আট কান্তাগণের অন্যতম ও প্রধান।[১] ইনি বিদর্ভরাজ ভীষ্মকের কন্যা এবং ভীষ্মকপুত্র রুক্মীর ভগিনী। ইনি শ্রীকৃষ্ণের প্রতি প্রণয়াসক্ত হন এবং তাঁকে বিবাহ করার ইচ্ছাপ্রকাশ করেন। শিশুপালের সঙ্গে বিবাহের পূর্বলগ্নে শ্রীকৃষ্ণ এনাকে হরণপূর্বক বিবাহ করেন এবং দ্বারকায় আনয়ন করেন। শ্রীকৃষ্ণের দ্বারা এঁর দশবার গর্ভসঞ্চার হয় এবং ইনি দশটি তেজস্বী পুত্রসন্তান লাভ করেন। এঁরা হলেন প্রদ্যুম্ন, চারুদেষ্ণ, সুদেষ্ণ, চারুদেহ, চারুগুপ্ত, ভদ্রচারু, চারুচন্দ্র, বিচারু এবং চারু

রুক্মিণী
(Rukmini)
ভাগ্য
দেবনাগরীरूक्मिणी, रूकमणी
অন্তর্ভুক্তিদেবী লক্ষ্মীর অবতার
আবাসদ্বারকা
সন্তানপ্রদ্যুম্ন
চারুদেষ্ণ
সুদেষ্ণ
চারুদেহ
চারুগুপ্ত
ভদ্রচারু
চারুচন্দ্র
বিচারু
চারু
শ্রীকৃষ্ণের রুক্মিণী হরণ

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. D Dennis Hudson (2008). The Body of God : An Emperor's Palace for Krishna in Eighth-Century Kanchipuram: An Emperor's Palace for Krishna in Eighth-Century Kanchipuram. Oxford University Press. pp. 263–4. আইএসবিএন ৯৭৮-০-১৯-৯৭০৯০২-১.