প্রধান মেনু খুলুন

রবি বোপারা

ইংরেজ ক্রিকেটার

রবিন্দার সিং "রবি" বোপারা (জন্ম: ৪ মে ১৯৮৫) হলেন একজন ইংলিশ ক্রিকেটার যিনি এসেক্স কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাব এবং ইংল্যান্ড দলের হয়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলে থাকেন। মূলত তিনি একজন টপ অর্ডারে ব্যাটসম্যান এবং মিডিয়াম ফাস্ট বোলার হিসেবে অলরাউন্ড ভূমিকা রাখেন এবং ইংল্যান্ডের টি-২০ আন্তর্জাতিক খেলার সেরা বোলিং নৈপুন্য তার দখলে। এছাড়াও বোপারা কিংস এলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগ, চিটাগং কিংস এর হয়ে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লীগ[১][২] এবং সিডনী সিক্সার্স এর হয়ে বিগ ব্যাশ লীগ খেলে থাকেন।

রবি বোপারা
Ravi Bopara.jpg
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামরবিন্দার সিং বোপারা
জন্ম (1985-05-04) ৪ মে ১৯৮৫ (বয়স ৩৪)
ফরেস্ট গেট, লন্ডন, ইংল্যান্ড
ডাকনামরনি
উচ্চতা৫ ফুট ১০ ইঞ্চি (১.৭৮ মিটার)
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি ব্যাটসম্যান
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট মিডিয়াম
ভূমিকাঅলরাউন্ডার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
টেস্ট অভিষেক
(ক্যাপ ৬৩৭)
১ ডিসেম্বর ২০০৭ বনাম শ্রীলঙ্কা
শেষ টেস্ট১৯ জুলাই ২০১২ বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ২০২)
২ ফেব্রুয়ারী ২০০৭ বনাম অস্ট্রেলিয়া
শেষ ওডিআই২৩ জুন ২০১৩ বনাম ভারত
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
২০০২–বর্তমানএসেক্স কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাব
২০০৬–২০০৮ম্যারিলেবন ক্রিকেট ক্লাব
২০০৯–২০১০কিংস এলেভেন পাঞ্জাব
২০০৯–২০১০অকল্যান্ড এসেস
২০১০/২০১৩-বর্তমানডলফিনের ক্রিকেট দল
২০১২ (এক ম্যাচ)গ্লৌচেস্টারশায়ার কাউন্টি ক্রিকেট ক্লাব
২০১৩-বর্তমানচিটাগং কিংস
২০১৩-সিডনি সিক্সার্স
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা টেস্ট ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১৩ ৯৪ ১৩৮ ২৪৫
রানের সংখ্যা ৫৭৫ ২,২১৬ ৮,৩৩৮ ৭,৫২৮
ব্যাটিং গড় ৩১.৯৪ ৩২.৫৮ ৪১.৪৮ ৪১.১৩
১০০/৫০ ৩/০ ১/১১ ২৩/৩২ ১২/৪৩
সর্বোচ্চ রান ১৪৩ ১০১* ২২৯ ২০১*
বল করেছে ৪৩৪ ১,৩৬৭ ৯,৯৭৬ ৫,৬৪০
উইকেট ৩০ ১৫০ ১৮৬
বোলিং গড় ২৯০.০০ ৩৬.৫০ ৪১.৭৫ ২৬.৪৩
ইনিংসে ৫ উইকেট
ম্যাচে ১০ উইকেট n/a n/a
সেরা বোলিং ১/৩৯ ৪/৩৮ ৫/৭৫ ৫/৬৩
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ৬/– ২৭/– ৮০/– ৭৭/–
উৎস: ক্রিকেট আর্কাইভ, ২৯ নভেম্বর ২০১৩

পরিচ্ছেদসমূহ

প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

তিনি ভারতীয় একটি পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন, শিক্ষিত হয়েছেন ব্রাম্টন ম্যানোর স্কুলে, ইস্ট হাম এবং বারকিং অভি স্কুলে, বোপারা উপস্থিত ছিলেন ফ্রেন্ডফড ক্লাব এবং প্রতিনিধিত্ব করেন এসেক্স বয়েস এন্ড গার্লস ক্লাব অনূর্ধ্ব ১৪ ক্রিকেট দল।

ইংল্যান্ড খেলোয়াড় হিসেবে আত্মপ্রকাশসম্পাদনা

২০০৭ সালে কেভিন পিটারসেন আঘাতপ্রাপ্তিজনিত কারণে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ইংল্যান্ডের প্রথম একদিনের আন্তর্জাতিক খেলায় সিরিজ থেকে বাদ পড়ায় তার জায়গায় দলে প্রবেশ করেন রবি বোপারা এবং ২ ফেব্রুয়ারি তার ওডিআই অভিষেক হয়। পরবর্তী মাসে, ২০০৭ সালের বিশ্বকাপ ক্রিকেট ম্যাচের জন্য তার নাম স্কোয়াডে রাখা হয়।[৩] এবং তিনি টুর্ণামেন্টের দ্বিতীয় ম্যাচে তার দ্বিতীয় ওডিআই ম্যাচ খেলেন। শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে বোপারা প্রথম ম্যান অব দ্যা ম্যাচ নির্বাচিত হন যেখানে তার অবদান ছিল ৫৩ বলে ৫২ রান। ম্যাচটিতে মাত্র ৩ রানের ব্যাবধানে ইংল্যান্ড জয়লাভ করে যাতে বোপারার অবদান অনস্বীকার্য।[৪][৫]

টেস্ট অভিষেকসম্পাদনা

বোপারার ২০০৭ সালে ডিসেম্বরে শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে টেস্টে অভিষেক হয়। কিন্তু এই সিরিজে তিনি বাজে নৈপূন্য প্রদর্শন করেন, ৫ ইনিংসে মাত্র ৪২ রান করেন সাথে মাত্র ১টি উইকেট। যাতে করে ধারাভাষ্যকারেরা তার উদ্দেশ্য বর্ণনা করেন "টেস্ট ক্রিকেট থেকে শুভ বিদায়"।[৬]

 
বোপারা ২০০৯ সালে এ্যাসেজ সিরিজের প্রথম টেস্ট খেলার সময় একটি বাউন্স বল দ্বারা গলায় আঘাত পান।

২২ শে জুন অ্যাশেজ সিরিজের জন্য ১৬ সদস্যর দলে বোপারাকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়।[৭] ক্রিকইনফো কর্মীরা লিখেছিলেন যে "বোপারাকে স্কোয়াডে রাখা মানসম্মত হবেনা"।[৮] উইকশায়ারের বিরুদ্ধে একটি ওয়ার্ম আপ ম্যাচে তিনি অ্যান্ড্রু স্ট্রস-এর সাথে খেলতে নেমে ১০৪ রান করেন।[৯]

বোপারা সিরিজে দূর্বল পারফরম্যান্স দেখান, যেখানে তিনি ৩৫, ১, ১৮, ২৭, ২৩, এবং ০।[১০]

প্রত্যন্তেসম্পাদনা

 
রবি বোপারা আয়ারল্যান্ডের বিরুদ্ধে অর্ধশতক উদযাপন করছেন।

শতকসমূহসম্পাদনা

টেস্ট শতকসমূহসম্পাদনা

রবি বোপারার টেস্ট শতকসমূহ
রান ম্যাচ প্রতিপক্ষ শহর/দেশ মাঠ বছর
১০৪ ওয়েস্ট ইন্ডিজ ব্রিজটাউন, বার্বাডোস কেনসিংটন ওভাল ২০০৯
১৪৩ কেনসিংটন ওভাল লন্ডন, ইংল্যান্ড লর্ডস ২০০৯
১০৮ ওয়েস্ট ইন্ডিজ চেস্টার লে স্ট্রেট, ইংল্যান্ড রিভারসাইড গ্রাউন্ড ২০০৯

ওডিআই শতকসম্পাদনা

রবি বোপারার ওডিআই শতক
রান ম্যাচ প্রতিপক্ষ শহর/দেশ মাঠ বছর
১০১* ৯০ আয়ারল্যান্ড মালাহাইড, আয়ারল্যান্ড মালাহিন্ডে কিক্রেট ক্লাব গ্রাউন্ড ২০১৩

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. http://www.banglanews24.com/Cricket/detailsnews.php?nssl=5bc78186c55328312f1bb0c78cade65e&nttl=20130124065634168563[স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. http://www.thedailysangbad.com/index.php?ref=MjBfMTJfMDFfMTNfMV8xOF8xXzE0ODgyNg==
  3. Bopara wins place ahead of Loye, Cricinfo, 14 February 2007.
  4. Scorecard from Cricinfo, retrieved 5 April 2007.
  5. Match report from the BBC, retrieved 5 April 2007.
  6. England series rankings from the BBC Test Match Special blog, retrieved 23 December 2007.
  7. "Vaughan and Harmison left out of Ashes training squad"। Cricinfo। ২২ জুন ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৬-২২ 
  8. "Bopara backs Vaughan"। Cricinfo। ২২ জুন ২০০৯। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৬-২২ 
  9. Miller, Andrew (৩ জুলাই ২০০৯)। "England make most of Ashes practice"। CricInfo। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৭-০৬ 
  10. "Statistics / Statsguru / RS Bopara / Test matches"। CricInfo। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৮-১৬ 

নোটসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা