রথীন্দ্রনাথ রায়

একুশে পদক প্রাপ্ত ব্যক্তি

রথীন্দ্রনাথ রায় বাংলাদেশের লোকসঙ্গীতের একজন প্রখ্যাত শিল্পী। তিনি মূলতঃ বাংলাদেশের উত্তরবঙ্গে প্রচলিত লোকসঙ্গীত ভাওয়াইয়া গানের একজন শিল্পী। তিনি অনেক দেশাত্মবোধক গান গেয়ে সমগ্র বাংলাদেশের মানুষের হৃদয় জয় করে নিয়েছেন এবং সিনেমাতেও প্রচুর গান গেয়েছেন।[১] তিনি ১৯৭১ সালের বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীন বাংলা বেতারের নিয়মিত কণ্ঠশিল্পী হিসেবে গান পরিবেশন করে অনন্য ভূমিকা পালন করেন এবং কণ্ঠযুদ্ধশিল্পী হিসেবে পরিচিতি লাভ করেন।

রথীন্দ্রনাথ রায়
জন্ম২৩-০১-১৯৪৯
সূবর্ণখুলী, নীলফামারী, পাকিস্তান
জাতীয়তাবাংলাদেশী
নাগরিকত্ব বাংলাদেশ
পরিচিতির কারণভাওয়াইয়া গানের শিল্পী
পুরস্কারএকুশে পদক

জীবনীসম্পাদনা

রথীন্দ্রনাথ রায় ১৯৪৯ সালের ২৩ জানুয়ারি[২] রংপুরের তারাগঞ্জের বগুলাগাড়ী গ্রামে মামা বাড়িতে জন্মগ্রহণ করেন তবে তাঁর বেড়ে ওঠা নীলফামারী জেলার সূবর্ণখুলী গ্রামের পৈত্রিক বাড়িতে ।[৩][৪] [৫]তার পিতা অন্যতম লোকসঙ্গীত শিল্পী, গীতিকার ও সুরকার হরলাল রায় এবং মা বীণাপাণি রায়।[৬] তিনি ছোটবেলা থেকে সঙ্গীতের প্রতি অনুরক্ত ছিলেন এবং বাবার কাছেই সঙ্গীতের প্রাথমিক তালিম গ্রহণ করেন। এরপর তিনি ওস্তাদ পি. সি গমেজের কাছে সঙ্গীতে তালিম নেন। আট বছর বয়সে তিনি বেতারে ও তের বছর বয়সে টেলিভিশনে সঙ্গীত পরিবেশন করেন। ১৯৫৪ সাল থেকে তিনি ঢাকায় বসবাস শুরু করেন এবং তৎকালীন 'রেডিও পাকিস্তান, ঢাকা' কেন্দ্রে ভাওয়াইয়া গানের শিল্পী হিসেবে যোগ দেন।[৩] রথীন্দ্রনাথ রায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা সাহিত্যে এম এ ডিগ্রী অর্জন করেন। সিনেমায় তাঁর প্রথম প্লেব্যাক ১৯৬৬ সালে খান আতাউর রহমানের সাত ভাই চম্পা ছবিতে।[১] তিনি বাংলাদেশের সাংস্কৃতিক প্রতিনিধি হিসেবে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করেন। তিনি দুবার ১৯৭৯ ও ১৯৮১ সালে ফিল্ম জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন পুরস্কারে ভূষিত হন এবং ১৯৯৫ সালে একুশে পদক লাভ করেন।[৭] বর্তমানে তিনি যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী।[৮][৩] [৯][১০] ২০০০ সালে সর্বশেষ “হৃদয়ের বন্ধন” সিনেমার পর দীর্ঘ ১৯ বছর পর ২০১৯ সালে সরকারি অনুদানে নির্মিত নিশীথ সূর্য পরিচালিত ‘পায়রার চিঠি' সিনেমায় প্লেব্যাক করেন লোকগানের জীবন্ত কিংবদন্তি রথীন্দ্রনাথ রায়।[৭][১১] [১২][১৩]সম্প্রতি ২০২০ সালে তিনি ‘আগুনের জুতো পায়ে হাঁটছি’ শিরোনামের একটি নতুন গান গেয়েছেন।[১৪]

চলচ্চিত্রের গান[১৫][১]সম্পাদনা

পুরস্কারসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. প্রতিবেদক, নিজস্ব। "রথীন্দ্রনাথ রায়ের জনপ্রিয় কিছু গান"Prothomalo। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. "অনুস্বর ও কিংবদন্তী রথীন্দ্রনাথ রায়ের জন্মদিন আজ"Bangla Channel (ইংরেজি ভাষায়)। ২০২২-০১-২৩। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০৭ 
  3. ডটকম, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর। "বাবা রাষ্ট্রীয় সম্মাননা না পাওয়ায় শিল্পী রথীন্দ্রনাথ রায়ের ক্ষোভ প্রকাশ"bdnews24। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০৭ 
  4. "স্বাধীনতা পদকের অন্যতম দাবিদার শিল্পী রথীন্দ্রনাথ রায়"Ekattor TV (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০৭ 
  5. "নীলফামারী জেলা"www.nilphamari.gov.bd (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  6. "রথীন্দ্রনাথ রায়ের মা বীণাপাণি রায় মারা গেছেন"banglanews24.com। ২০২০-০১-১৯। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০৭ 
  7. প্রতিবেদক, নিজস্ব। "১৯ বছর পর প্লেব্যাক করলেন রথীন্দ্রনাথ রায়"Prothomalo। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  8. Zahangir Alom (অক্টোবর ২৯, ২০১১)। "Music in his Blood (part 2)"। The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ জুন ১৫, ২০১৫ 
  9. News, Somoy। "নিউইয়র্কের দেয়ালে 'শাপলা ফোটা ঝিল' | আন্তর্জাতিক"Somoy News। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০৭ 
  10. ডেস্ক, এখন সময়। "নিউইয়র্কে ৩ দিনের 'বাংলাদেশ সম্মেলন' সম্পন্ন"akhonsamoy.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০৭ 
  11. "১৯ বছর পর রথীন্দ্রনাথ রায়"www.dainikamadershomoy.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০৭ 
  12. "১৯ বছর পর রথীন্দ্রনাথ রায়ের ফেরা"Bangla Tribune। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০৭ 
  13. "দেড় যুগ পর পেস্নব্যাকে রথীন্দ্রনাথ রায়"jjdin (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০৭ 
  14. ডেস্ক, বিনোদন। "দীর্ঘদিন পর রথীন্দ্রনাথ রায়'র বিপ্লবী গান"DailyInqilabOnline। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০৭ 
  15. "রথীন্দ্রনাথ রায়"বাংলা মুভি ডেটাবেজ। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০৭ 
  16. "Bhalobashar Dushmon | ভালোবাসার দুশমন | Shakib Khan | Manna | Shabnur | Bangla Superhit Movie" 
  17. "Nolok"। ১৯৭৮-১১-১২। 
  18. "'এখন সবকিছুই চলছে উল্টো'"মানবজমিন। সংগ্রহের তারিখ ২০২২-১২-০৭