মোহাম্মদ নাশিদ

চতুর্থ মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি

মোহাম্মদ নাশিদ (ধিবেহী: މުހައްމަދު ނަޝީދު; জন্ম ১৭ মে ১৯৬৭) মালদ্বীপের গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রথম প্রেসিডেন্ট ছিলেন। [১] ২০০৮ সালে দেশটির গণতান্ত্রিক ইতিহাসে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত অবাধ এবং নিরপেক্ষ প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়লাভ করেন তিনি। জলবায়ুর পরিবর্তন ও গণতন্ত্রের জন্য লড়াই, বিশ্বে প্রথম পানির নিচে মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠান, দেশের পর্যটন শিল্পের আয় দিয়ে নতুন দেশ গড়ার পরিকল্পনা প্রভৃতি কারণে তিনি আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বিশেষ সুনাম অর্জন করেছিলেন।[২]

মোহাম্মদ নাশিদ
Mohamed Nasheed by UNDP.jpg
মালদ্বীপের ৫ম রাষ্ট্রপতি
কাজের মেয়াদ
১১ নভেম্বর ২০০৮ – ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১২
উপরাষ্ট্রপতিমোহাম্মদ ওয়াহেদ হাসান
পূর্বসূরীমামুন আব্দুল গাইয়ুম
উত্তরসূরীমোহাম্মদ ওয়াহেদ হাসান
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1967-05-17) ১৭ মে ১৯৬৭ (বয়স ৫৩)
মালে, মালদ্বীপ
রাজনৈতিক দলমালদ্বীপ ডেমোক্রেটিক পার্টি
দাম্পত্য সঙ্গীলায়লা আলী আব্দুল্লাহ
সন্তানমিরা লায়লা নাশিদ
জায়া লায়লা নাশিদ
প্রাক্তন শিক্ষার্থীলিভারপুল জন মুর বিশ্ববিদ্যালয়
ধর্মইসলাম

রাষ্ট্রপতিসম্পাদনা

১৯৭৮ সালে মামুন আব্দুল গাইয়ুম মালদ্বীপের প্রেসিডেন্টের দায়িত্বভার গ্রহণ করেন এবং দীর্ঘ ৩০ বৎসর তিনি দেশ শাসন করেন। ২০০৮ সালে মালদ্বীপে প্রথম বহুদলীয় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় এবং এ নির্বাচনে মামুন আব্দুল গাইয়ুমকে পরাজিত করে এমডিপির মোহাম্মদ নাশিদ প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হয়েছিলেন। তার হাত ধরেই মালদ্বীপে নতুন করে গণতন্ত্রের জয়যাত্রা শুরু হয়। কিনতু তিন বৎসর ক্ষমতায় থাকার পর বিচার বিভাগ ও পুলিশ বাহিনীর সাথে মতপার্থক্যের কারণে তিনি পদত্যাগ করেন।[২]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. মোহাম্মদ নাশিদ গ্রেপ্তার, দৈনিক প্রথম আলো। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: ০৮-১০-২০১২ খ্রিস্টাব্দ।
  2. রাজনৈতিক সঙ্কটের আবর্তে মালদ্বীপ ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৫ মার্চ ২০১৬ তারিখে,এম এস শহিদ, দৈনিক সংগ্রাম। ঢাকা থেকে প্রকাশের তারিখ: ২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১২ খ্রিস্টাব্দ।

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

রাজনৈতিক দপ্তর
পূর্বসূরী
মামুন আব্দুল গাইয়ুম
মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি
২০০৮–২০১২
উত্তরসূরী
মোহাম্মদ ওয়াহিদ হাসান

টেমপ্লেট:Footer Anna Lindh Prize laureates