মোস্তাক আহমদ চৌধুরী

বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

মোস্তাক আহমদ চৌধুরী যিনি এলাকায় মোস্তাক মিয়া নামেই পরিচিত। বাংলাদেশের কক্সবাজার জেলার রাজনীতিবিদ ও মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক। তিনি তৎকালীন চট্টগ্রাম-১৭, তৎকালীন চট্টগ্রাম-১৪কক্সবাজার-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য[১][২][৩][৪]

মোস্তাক আহমদ চৌধুরী
চট্টগ্রাম-১৭ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
১৯৭৩ – ১৯৭৫
পূর্বসূরীআসন শুরু
উত্তরসূরীমোহাম্মদ হারুন-আর-রশিদ
চট্টগ্রাম-১৪ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
১৯৭৯ – ১৯৮২
কক্সবাজার-৩ আসনের সংসদ সদস্য
কাজের মেয়াদ
১৯৯১ – ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬
পূর্বসূরীদিদারুল আলম চৌধুরী
উত্তরসূরীমোহাম্মদ খালেকুজ্জামান
কক্সবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান
কাজের মেয়াদ
২০১১ – চলমান
ব্যক্তিগত বিবরণ
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ,বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল
দাম্পত্য সঙ্গীকানিজ ফাতেমা মোস্তাক
সন্তানএক ছেলে ও এক মেয়ে
পিতামাতামমতাজ আহমদ চৌধুরী খান বাহাদুর

প্রাথমিক জীবন সম্পাদনা

মোস্তাক আহমদ চৌধুরী কক্সবাজার সদর উপজেলার চৌফলদন্ডী ইউনিয়নে এক সম্ভান্ত্য জমিদার পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা খান বাহাদুর মমতাজ আহমদ চৌধুরী।খান বাহাদুর মোজাফফর আহমদ চৌধুরী ছিলেন তার দাদা।কক্সবাজার সংরক্ষিত মহিলা আসনের বর্তমান সংসদ সদস্য জনাবা কানিজ ফাতেমা মোস্তাক তার সুযোগ্য স্ত্রী। যিনি কক্সবাজার জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী ও কক্সবাজার মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান।খান বাহাদুর মোস্তাক আহমেদ চৌধুরী দুই সন্তানের জনক।এই দম্পতির এক ছেলে ও এক মেয়ে রয়েছে।[১]

রাজনৈতিক ও কর্মজীবন সম্পাদনা

মোস্তাক আহমদ চৌধুরী কক্সবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান।[৫] এর পূর্বে তিনি কক্সবাজার জেলা পরিষদের প্রশাসক ছিলেন।[৬] তিনি ১৯৭০ সালের নির্বাচনে তিনি চট্টগ্রাম-১৭ (কক্সবাজার -মহেশখালী)

আসন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে পূর্ব পাকিস্তান প্রাদেশিক পরিষদ সদস্য ( এমপিএ) নির্বাচিত হন। এরপর ১৯৭৩ সালের প্রথম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তৎকালীন চট্টগ্রাম-১৭ (সদর-রামু) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়নে দ্বিতীয় দফায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন।[২] ১৯৭৯ সালের দ্বিতীয় জাতীয় নির্বাচনে তিনি চট্টগ্রাম-১৪ আসন থেকে সাংসদ নির্বাচিত হন।[৩]

সর্বশেষ ১৯৯১ সালের পঞ্চম জাতীয় নির্বাচনে কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসন থেকে পুনরায় সাংসদ নির্বাচিত হন।[১][৪][৭]

১২ জুন ১৯৯৬ সালের সপ্তম ও ২০০১ সালের অষ্টম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়ন নিয়ে একই আসন থেকে পরাজিত হয়েছিলেন।[৭] এরপর তিনি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলে যোগ দেন।

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. "পর্যটন শহর গড়ে তুলব —মোস্তাক আহমদ"দৈনিক প্রথম আলো। ১৮ ডিসেম্বর ২০১১। ১১ মে ২০২০ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  2. "১ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (পিডিএফ)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। 
  3. "২য় জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (পিডিএফ)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। 
  4. "৫ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (পিডিএফ)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (পিডিএফ) থেকে আর্কাইভ করা। 
  5. স্টাফ করেসপন্ডেন্ট (২৮ ডিসেম্বর ২০১৬)। "কক্সবাজার জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হলেন মোস্তাক আহমদ"বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  6. কক্সবাজার, তোফায়েল আহমদ (২৭ ডিসেম্বর ২০১৬)। "দুই চেয়ারম্যান প্রার্থীর জমজমাট লড়াই, ব্যাংকে মোস্তাকের আছে ১০ হাজার সালাউদ্দিনের তিন লাখ টাকা!"দৈনিক কালের কণ্ঠ। ১৮ মার্চ ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০ 
  7. "মোস্তাক আহমেদ চৌধুরী, আসন নং: ২৯৬, কক্সবাজার-৩, দল: আওয়ামী লীগ (নৌকা)"দৈনিক প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ৯ মে ২০২০