মোশারেফ হোসেন শাহজাহান

বাংলাদেশী রাজনীতিবিদ

মোশাররফ হোসেন শাহজাহান ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের রাজনীতিবিদ। ভোলা-১ভোলা -২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য। তিনি ভোলা থেকে মোট ৬ বার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। [১] তিনি প্রাক্তন পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী ও ধর্ম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ছিলেন।[২][৩]

মোশারেফ হোসেন শাহজাহান
মোশারেফ হোসেন শাহজাহান.jpg
প্রতিমন্ত্রী
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
১৯৯১–১৯৯৬ (পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী)
২০০১ – ২০০৬ (ধর্ম প্রতিমন্ত্রী)
ভোলা-১ভোলা-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
১৯৬৫-১৯৬৯ (পাকিস্তান আমলে)

১৯৭৯–১৯৮২
উপ-নির্বাচন সেপ্টেম্বর ১৯৯১–১৯৯৬ (ভোলা-২)
ফেব্রুয়ারি ১৯৯৬– জুন ১৯৯৬ (ভোলা-১)

২০০১–২০০৬ (ভোলা-১)
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম১৯ সেপ্টেম্বর ১৯৩৯
ভোলা, বেঙ্গল প্রেসিডেন্সি, British Raj Red Ensign.svg ব্রিটিশ ভারত,
(বর্তমান  বাংলাদেশ)
মৃত্যু৫ মে ২০১২
ইউনাইটেড হাসপাতাল, ঢাকা
নাগরিকত্ব ব্রিটিশ ভারত (১৯৪৭ সালের পূর্বে)
 পাকিস্তান (১৯৭১ সালের পূর্বে)
 বাংলাদেশ (১৯৭১ সালের পর)
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল

জন্ম ও প্রাথমিক জীবনসম্পাদনা

মোশারেফ হোসেন শাহজাহান ১৯ সেপ্টেম্বর ১৯৩৯ সালে ভোলা জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মরহুম আলতাজের রহমান তালুকদার ও মাতা মাসুমা খাতুন। প্রথম জীবনে তিনি নাটক, সাংবাদিকতা, আবৃতি, ফটোগ্রাফিকসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে জড়িত ছিলেন। তিনি নাটক, সাংবাদিকতা, আবৃতি, ফটোগ্রাফিকসহ বিভিন্ন সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে জড়িত ছিলেন। ছাত্রাবস্থায়ই রচনা করেন নাটক ‘নীর ভাঙ্গাঁ ঝড়’ সেই নাটকে তিনি নিজেও অভিনয় করেছেন। ভোলা থেকে পাকিস্তান আমলে ‘পাক্ষিক মেঘনা পত্রিকা’ প্রকাশ করেছিলেন। তার উদ্যোগে ১৯৬৮ সালে সর্ব প্রথম ভোলা প্রেসকাব প্রতিষ্ঠিত হয় তিনি সেই প্রেসকাবের সভাপতি নির্বাচিত হন। ১৯৮০ সালের তিনিই সর্বপ্রথম সাপ্তাহিক ভোলাবাণী প্রকাশের উদ্যোগ নেন।[৪]

রাজনৈতিক ও কর্মজীবনসম্পাদনা

১৯৬৫ সালে মাত্র সাড়ে ২৫ বছর বয়সে এমপি নির্বাচিত হয়ে সম্পৃক্ত হন রাজনীতির সাথে। ভোলার ১ম মুক্তিযোদ্ধা সংগঠক ছিলেন। জিয়াউর রহমান দলটি প্রতিষ্ঠার পরপরই শাহজাহান বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলে যোগ দেন। ১৯৭৯ সালে তিনি বিএনপি থেকে এমপি নির্বাচিত হন তিনি। প্রেসিডেন্ট জিয়া তাকে উপমন্ত্রীর মর্যাদায় বৃহত্তর বরিশালের জেলা উন্নয়ন সমন্বয়কারী মনোনীত করেন। ১৯৯১ সালে প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার প্রথম মন্ত্রিসভায় তাকে পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী করা হয় এবং ২০০১ সালে খালেদা জিয়ার দ্বিতীয় মন্ত্রিসভায় তিনি ধর্ম বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী নিযুক্ত হন। [১][৫][৬][৭][৮][৯]

মৃত্যুসম্পাদনা

মোশারেফ হোসেন শাহজাহান ৫ মে ২০১২ ঢাকা ইউনাইটেড হাসপাতালে মারা যান। মৃত্যুকালে তার স্ত্রী অধ্যাপিকা, এক ছেলে, তিন মেয়ে ও ২ ভাইসহ অসংখ্যা গুণগ্রাহী রেখে যান। [১]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "BNP leader Mosharraf passes away"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  2. Breach of Faith (ইংরেজি ভাষায়)। Human Rights Watch। পৃষ্ঠা 32। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  3. "ভোলা সদর উপজেলার প্রখ্যাত ব্যক্তিত্ব"বাংলাদেশ জাতীয় তথ্য বাতায়ন। ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 
  4. "সাবেক মন্ত্রী মোশারেফ হোসেন শাজাহান আর নেই"The Daily Sangram। ২০১৯-১০-২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৯-২৪ 
  5. "Aug 17 Blasts"archive.thedailystar.net। The Daily Star। UNB। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ 
  6. "২য় জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  7. "৫ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  8. "৬ষ্ঠ জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 
  9. "৮ম জাতীয় সংসদে নির্বাচিত মাননীয় সংসদ-সদস্যদের নামের তালিকা" (PDF)জাতীয় সংসদবাংলাদেশ সরকার। ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ তারিখে মূল (PDF) থেকে আর্কাইভ করা। 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা