প্রধান মেনু খুলুন

মোনেম মুন্না

বাংলাদেশী ফুটবলার
(মোনেম মুন্না (ফুটবলার) থেকে পুনর্নির্দেশিত)

মোনেম মুন্না (জন্ম: ৯ জুন, ১৯৬৮ - মৃত্যু: ১২ ফেব্রুয়ারি, ২০০৫) একজন প্র‌য়াত বাংলাদেশী ফুটবল তারকা। বাংলাদেশের ফুটবল ইতিহাসের সেরা ডিফেন্ডারদের মধ্যে তাকে গণ্য করা হয়। এক যুগ ধরে আবাহনী ক্রীড়া চক্রের সাথে খেলেছেন। আবাহনী ও বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের অধিনায়ক ছিলেন। ১৯৯২ সনে আবাহনীর জন্য ২০ লাখ টাকার চুক্তিতে স্বাক্ষর করে নতুন দেশীয় রেকর্ড সৃষ্টি করেন। কোলকাতার ইস্ট বেঙ্গল দলেও খেলেছেন। খেলোয়াড়ী জীবন শেষে আবাহনীর ম্যানেজারের দায়িত্বভার গ্রহণ করেন।

মোনেম মুন্না
জন্ম৯ জুন ১৯৬৮, নারায়ণগঞ্জ
মৃত্যু১২ ফেব্রুয়ারি ২০০৫, ঢাকা
মৃত্যুর কারণকিডনি সংক্রান্ত জটিলতা
বাসস্থানবাংলাদেশ Flag of Bangladesh.svg
পেশাখেলা
যে জন্য পরিচিতফুটবলার
উপাধিকিংব্যাক
আত্মীয়রানী হামিদ

পরিচ্ছেদসমূহ

জন্মসম্পাদনা

১৯৬৮ সালের ৯ জুন নারায়ণগঞ্জ জেলায় মোনেম মুন্না জন্মগ্র হণ করেন।

ফুটবল ক্যারিয়ারসম্পাদনা

মোনেম মুন্না ঢাকায় ১৯৮১ সালে পাইওনীয়ার ডিভিশনের দল গুলশান ক্লাবে খেলা শুরু করেন। পরবর্তী বছর দ্বিতীয় বিভাগের দল শান্তিনগরে যোগ দেন। সেই বছর ১৯৮২ সালে নারায়নগঞ্জ জেলা দলের সাথে জাতীয় দলের এক প্রদর্শনী খেলায় কিশোর মোনেম মুন্না সবার নজরে আসেন। দ্বিতীয় বিভাগের দল মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ১৯৮৩ সালে মুন্নাকে দলে নেয় এবং দ্বিতীয় বিভাগ চ্যাম্পিয়ন হয়ে প্রথম বিভাগে উঠে।

১৯৮৬ সালে মুন্না ব্রাদার্স ইউনিয়নে যোগদেন এবং সে বছরই মাত্র ১৮ বছর বয়সে জাতীয় দলে খেলার সুযোগ পান, ১৯৯৭ সালে খেলা ছেড়ে দেয়ার পূর্ব পর্যন্ত তিনি জাতীয় দলের অপরিহার্য অংশ ছিলেন।

১৯৮৭ সালে মুন্না আবাহনীতে যোগ দেন এবং আমৃত্যু আবাহনী ক্লাবের সাথে জড়িত ছিলেন। মাঝখানে ৯১/৯২ সালে কলকাতার ইস্টবেঙ্গলের হয়েও ফুটবল খেলেন।

বাংলাদেশে জাতীয় দলের হয়ে মুন্না প্রথম খেলার সুযোগ পান ৮৬ সালে। সে বছর সিউলে অনুষ্ঠিত এশিয়ান গেমসের জন্য নির্বাচিত দলে তিনি প্রথমবারের মতো ডাক পান। একটানা আধিপত্য বিস্তার করে খেলেন ১৯৯৭ সাল পর্যন্ত। ১৯৯৫ সালে তারই নেতৃত্বে মায়ানমারে অনুষ্ঠিত চার জাতি কাপ ফুটবলে চ্যাম্পিয়ন হয়ে দেশের বাইরে প্রথম বাংলাদেশ কোন ট্রফি জেতার অনন্য কৃতিত্ব দেখায়।

ফুটবল ক্যারিয়ার
  • ১৯৮০-৮১ : পাইওনিয়ার ফুটবল পোস্ট অফিস
  • ১৯৮২ : দ্বিতীয় বিভাগ ফুটবল শান্তিনগর
  • ১৯৮৩ : দ্বিতীয় বিভাগ ফুটবল মুক্তিযোদ্ধা সংসদ
  • ১৯৮৪-৮৫ : প্রথম বিভাগ ফুটবল মুক্তিযোদ্ধা সংসদ
  • ১৯৮৬ : প্রথম বিভাগ ফুটবল ব্রাদার্স ইউনিয়ন
  • ১৯৮৭-৯৮ : প্রথম বিভাগ ফুটবল আবাহনী
  • ১৯৯১-৯৩ : ইস্টবেঙ্গল ক্লাব কলকাতা
  • ১৯৮৬-১৯৯৭: জাতীয় দল

মৃত্যুসম্পাদনা

তিনি ২০০৫ সালে স্বল্প বয়সে কিডনিজনিত কারনে মৃত্যুবরন করেন। ১৯৯৯ সালের রমজান মাসে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে চিকিত্সার্থে সিঙ্গাপুর যান। সেখানেই কিডনি সমস্যা ধরা পড়ে। ২০০০ সালের মার্চে ব্যাঙ্গালোরে বোন শামসুন নাহার আইভীর কিডনি তার দেহে প্রতিস্থাপন করা হয়। ২০০৪ সালে দেহে ক্ষতিকারক ভাইরাসের উপস্থিতি ধরা পড়ে। ২০০৫ সালের ২৬ জানুয়ারি গুরুতর অসুস্থ মুন্নাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। প্রায় তিন সপ্তাহ পর ১২ ফেব্রুয়ারি সকাল ৬টায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

স্মৃতিসম্পাদনা

২০০৮ সালে ঢাকা সিটি কর্পোরেশন কর্তৃপক্ষ মোনেম মুন্নার স্মরণে ধানমন্ডির ৮ নম্বর সেতুটির নামকরণ করে 'মোনেম মুন্না সেতু'।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা