বিহার সরকার

ভারতের বিহার রাজ্যের প্রাদেশিক সরকার

বিহার সরকার হচ্ছে ভারতের সিকিম রাজ্য তথা এর অন্তর্ভুক্ত ৩৮টি জেলা বিশিষ্ট ৯টি জেলার সর্বোচ্চ শাসনতান্ত্রিক কর্তৃপক্ষ। এটি বিহার রাজ্য সরকার কিংবা স্থানীয়ভাবে রাজ্য সরকার হিসাবেও পরিচিত। বিহার সরকার একজন রাজ্যপালের (গভর্নর) নেতৃত্বে নির্বাহী বিভাগ, পাটনা উচ্চ ন্যায়ালয়ের প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বে একটি বিচার বিভাগ এবং একটি আইননসভা নিয়ে গঠিত।

বিহার সরকার
Seal of Bihar.svg
সরকারের আসনপাটনা
কার্যনির্বাহী
রাজ্যপালফাগু চৌহান
মুখ্যমন্ত্রীনিতিশ কুমার
উপ-মুখ্যমন্ত্রীসুশীল কুমার মোদী
আইনসভা
বিধানসভা
স্পিকারবিজয় কুমার চৌধুরী
বিধান পরিষদবিহার বিধান পরিষদ
চেয়ারম্যাননেই
বিচারালয়
উচ্চ আদালতপাটনা উচ্চ ন্যায়ালয়
প্রধান বিচারপতিবিচারপতি সঞ্জয় কারল

ভারতের অন্যান্য রাজ্যের মতো বিহার রাজ্যের প্রধান হলেন রাজ্যপাল (গভর্নর)। তিনি কেন্দ্রীয় সরকারের পরামর্শে রাষ্ট্রপতি কর্তৃক নিযুক্ত হন। মুখ্যমন্ত্রী হলেন সরকারের নির্বাহী প্রধান এবং তার উপরেই সরকারের নির্বাহী ক্ষমতার বেশিরভাগই ন্যস্ত থাকে। মুখ্যমন্ত্রী এবং তার নিয়োগকৃত মন্ত্রিসভার মাধ্যমে বিহারের প্রশাসনিক কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে থাকে। পাটনা হচ্ছে বিহারের রাজধানী এবং এখানে রাজ্যের আইনসভা এবং সচিবালয় অবস্থিত। পাটনা উচ্চ ন্যায়ালয় (পাটনা হাইকোর্ট) পাটবায় অবস্থিত যা রাজ্য সরকারের বিচার বিভাগীয় প্রধান। পাটনা উচ্চ ন্যায়ালয় রাজ্যে উদ্ভূত মামলার ক্ষেত্রে এখতিয়ার এবং ক্ষমতা প্রয়োগ করে।[১]

বিহারের আইনসভা দ্বি-কক্ষবিশিষ্ট। এর নিম্ন কক্ষ হল বিহার বিধানসভা এবং উচ্চকক্ষ বিহার বিধান পরিষদ। কোন কারণে আগেই ভেঙে না গেলে দুই কক্ষেরই স্বাভাবিক মেয়াদ পাঁচ বছর।

প্রথম সরকারসম্পাদনা

১৯৪৬ সালে দুই সদস্যের সমন্বয়ে বিহারের প্রথম মন্ত্রিসভা গঠিত হয়। তারা হলেন ড. শ্রীকৃষ্ণ সিনহা এবং ড. অনুগ্রহ নারায়ণ সিনহা।[২] ড. শ্রীকৃষ্ণ ছিলেন বিহারের প্রথম মূখ্যমন্ত্রী, আর ড. অনুগ্রহ নারায়ণ উপ-মুখ্যমন্ত্রী এবং অর্থমন্ত্রী[৩] ছাড়াও শ্রম, স্বাস্থ্য, কৃষি ও সেচ বিভাগের দায়িত্বে ছিলেন। পরে মন্ত্রিসভায় অন্যান্য মন্ত্রীদের যুক্ত করা হয়।[৪] স্বাধীনতার পর এই মন্ত্রিসভাই স্বাধীনতা পরবর্তী বিহারের প্রথম সরকার হিসেবে দায়িত্ব পালন করে।

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Jurisdiction and Seats of Indian High Courts"। Eastern Book Company। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-০৫-১২ 
  2. Kamat। "Anugrah Narayan Sinha"। Kamat's archive। ২০০৬-১১-০৯ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৬-১১-২৫ 
  3. Dr. Rajendra Prasad's Letters to Anugrah Narayan Sinha। First Finance cum Labour Minister। Rajendra Prasad's archive। সংগ্রহের তারিখ ২০০৭-০৬-২৫ 
  4. S Shankar। "The Sri Babu-Anugrah babu government"। website। ২০১৩-০৫-২৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০০৫-০৪-০৮ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা