বাঙালি হিন্দুদের পদবিসমূহ

নামের অংশ
(বাঙালি হিন্দুদের পদবীসমূহ থেকে পুনর্নির্দেশিত)

নিজেদের বংশকে চিহ্নিত করে তার গৌরব প্রকাশের চিরাচরিত প্রবৃত্তি থেকে উদ্ভব হয় পদবির যা রাজবংশ গুলির একটি সাধারণ বৈশিষ্ট্য ছিল এবং রাজবংশ থেকে ক্রমান্বয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যেও ছড়িয়ে যায় এই প্রথা।এই পদবি এবং উপাধি বিভিন্ন উত্তম কাজের স্বীকৃতি/পুরস্কার সরূপ রাজারা ধারণ করতেন এবং রাজ কর্মকর্তা-সৈন্য-সামন্ত-বিদ্বাণ ব্যক্তিদের প্রদান করতেন।এই প্রথা সাধারণ প্রজাদের মাঝে জনপ্রিয় হয় এবং তারা নিজেদের পেশা অনুসারে নামের শেষে পদবি যোগ করে। মহাভারতের যুগে কারো পদবি না থাকলেও বাঙালি রাজাদের পদবি ছিল।মহাভারতের দ্বিতীয় পর্বে উল্লেখ করা হয়েছে সমুদ্র সেন এবং তার ছেলে চন্দ্র সেন পান্ডবদের হয়ে কুরুক্ষেত্রের যুদ্ধে যোগ দিয়েছিলেন এবং যুধিষ্ঠিরের রাজসূয় যজ্ঞে ঋত্বিকের ভূমিকা পালন করেছিলেন বীর সেন নামক ঋষি [১] । এরপর প্রথমে জৈন এবং তারপর বৌদ্ধদের প্রভাব বাঙলায় বৃদ্ধি পায় এবং হিন্দুদের ধর্মাচার জৈন-বৌদ্ধ প্রভাবান্বিত হয়।বল্লালসেন তার অদ্ভুতসাগর গ্রন্থে উল্লেখ করেন আদিপিতৃভূমি বৈদিক বৈদহ রাজ্যের (উত্তরবঙ্গ,মিথিলা,নেপালের দক্ষিণাঞ্চল নিয়ে গঠিত বেদে উল্লেখিত রাজ্য)এরূপ অধঃপতনে মর্মাহত হয়ে কর্ণাটলক্ষি ছেড়ে তার পূর্বপুরুষ বরেন্দ্রসেন বাঙলায় অভিযান চালিয়ে পুন্ড্র রাজ্য অধিকার করেন যেটি বরেন্দ্র হিসেবে পরিচিতি লাভ করে।এই সামন্ত রাজ্য সাম্রাজ্যে পরিণত হয় এবং সনাতন ধর্ম পুনঃপ্রতিষ্ঠিত হয়।প্রজারা সৎপথে চলবে রাজ্যে শান্তি বিরাজ করবে এই লক্ষ্যে বল্লালসেন কৌলিন্য এবং বর্ণ সমীকরণ করেন।সেইসময় ৩৬ জাতির হিন্দু ছিল প্রত্যেক ৩৬ বছর পরপর তাদের কৌলিন্য নির্ধারণ করে কর্মানুসারে বর্ণ নির্ধারণ করার নিয়ম করা হয়;এই প্রক্রিয়াকে "সমীকরণ" বলে উল্লেখ করা হয় ।এভাবেই বাঙালি পদবির পুনর্গঠন ঘটে। ভারতের পশ্চিমবঙ্গ, আসামত্রিপুরা ও অন্যান্য অঞ্চলে, বাংলাদেশ এবং ভারতবাংলাদেশের বাইরে বসবাসরত বাঙালি হিন্দু পদবিসমূহ বেশ বৈচিত্র্যপূর্ণ। এখানে যেমন ধর্মীয় জাতিভেদ প্রথার প্রভাব বিদ্যমান তেমনই ঐতিহ্যবাহী পেশা হতে পদবি গ্রহণের রেওয়াজ বিদ্যমান। [২] পাল রাজত্ব শেষে বিজয় সেনের পুত্র সম্রাট বল্লালসেন সর্বপ্রথম বাংলায় কৌলীন্য প্রথা প্রচলন করেছিলেন "বল্লালচরিত" গ্রন্থে এর উল্লেখ রয়েছে। বাঙালি হিন্দুরা পেশাভিত্তিক কারণে বহুবার নিজেদের পদবি পরিবর্তন করেছেন। বাঙালি হিন্দুদের পদবিসমূহ হিন্দুধর্মের চার বর্ণের পরিবর্তে অনেক জাতি দেখতে পাওয়া যায়। কায়স্থ, বৈদ্য,পুরোহিত, বণিক, সদগোপ, তেলি, মালি, কর্মকার, বারুজীবী, সূত্রধর, কপালি, চণ্ডাল ইত্যাদি অনেক শ্রেণীর জাতিগোষ্ঠীর উপস্থিতি দেখা যায়। যারা রাজকার্য পরিচালনায় সহায়ক ছিলেন তেমন উচ্চপদস্থ রাজকর্মচারীরা ছিলেন কায়স্থ আর যারা চিকিৎসাবৃত্তি অবলম্বন করতেন তারা বৈদ্য হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে। তবে এই দুই শ্রেণীর সামাজিক মর্যাদা পেশাগত কারণে উচ্চ ছিল।এরা পুরোহিত পেশাজীবিদের দান-দক্ষিণা দিয়ে সাহায্য করতেন । তাছাড়া ব্রিটিশ শাসন আমলে ভূস্বামীদের আলাদা পদবি প্রদান করতেও দেখা যায়।[৩]। কর্মজীবীশ্রেণীর অন্তর্গত ব্যক্তিদের মাঝেও নিজ নিজ কর্মানুসারে পদবি বিদ্যমান হিন্দু সমাজে।

বংশীয় সুত্রে প্রাপ্ত পদবিসম্পাদনা

  • সমদ্দার (কুলিন)
  • ভক্ত
  • মজুমদার
  • সরকার
  • হালদার
  • রায়
  • অধিকারী
  • আচার্য্য/আচার্য্যী/আচার্য
  • উপাধ্যায়
  • কাঞ্জিলাল
  • গঙ্গোপাধ্যায়/গাঙ্গুলী/গাঙ্গুলি
  • গোস্বামী
  • ঘোষাল
  • চক্রবর্তী/চক্রবর্ত্তী

সর্দ্দার

  • নস্কর
  • বাসফোর
  • মল্লবর্মা
  • বর্মণ/বর্মা
  • চন্ডাল
  • মুচি/চর্মকার
  • ঘোষ(গরু দাগানো)
  • মোদক
  • শীল(নরসুন্দর)
  • দেববর্মা
  • হাওলাদার
  • বিশ্বাস
  • রাজবংশী (মৎস পেশাজীবি)
  • মাহিষ্য/মলো
  • মালাকার
  • মিস্ত্রী
  • চট্টোপাধ্যায়/চ্যাটার্জী/চ্যাটার্জি
  • তেওয়ারি/ত্রিবেদী (পশ্চিমা)
  • দেবনাথ/নাথ
  • দেবশর্মা/শর্মা
  • পিরালি
  • দাস
  • পুতিতুন্ড
  • বন্দ্যোপাধ্যায়/ব্যানার্জী/ব্যানার্জি
  • ভট্ট/ভট্টাচার্য্য/ভট্টাচার্য্যী/ভট্টাচার্য
  • ভাদুড়ী
  • মন্ডল
  • মুখোপাধ্যায়/মুখার্জী/মুখার্জি
  • মিশ্র
  • মৈত্র
  • মৌলিক
  • রায় নারায়ণ
  • লাহিড়ী
  • শাস্ত্রী
  • সরখেল
  • সান্যাল
  • হালদার(বন্দ্যোপাধ্যায়)
  • বর্ম্মন
  • রুদ্র
  • নাগ
  • ভদ্র
  • সিংহ
  • সেনগুপ্ত
  • ভাওয়াল
  • পালিত
  • রক্ষিত
  • ভানুশালী
  • আদিত্য
  • সোম
  • চন্দ্র
  • রায়
  • রাহুত
  • ভূঁইয়া
  • রাষ্ট্রী
  • ঘোষ
  • পাইক
  • বালা
  • পুণ্ডরী
  • মণ্ডল
  • রায়
  • কুরী
  • ব্যাপারী
  • সরকার
  • সাধুখাঁ
  • বালো
  • মল্লিক
  • মৃধা
  • তরফদার
  • ভৌমিক
  • দাস
  • পোদ্দার
  • বসাক
  • সাহা
  • বণিক
  • প্রামাণিক
  • সিকদার
  • লাহা
  • বিশ্বাস
  • মন্ডল
  • কাপালি
  • মজুমদার
  • চাকী
  • সোম
  • কর
  • গুপ্ত
  • মিত্র
  • বাগচী
  • নন্দী
  • তরফদার
  • দে
  • ধর
  • দত্ত
  • গুহ
  • পাইন
  • বসু
  • বোস
  • ঘোষ
  • সেন
  • দেব
  • রায়
  • কন্ঠ
  • সরকার
  • কেওট
  • সুর
  • চন্দ
  • কুন্ডু
  • বিশ্বাস
  • আইচ
  • দাশ
  • মহাজন

ভূ-স্বামীদের প্রাপ্ত পদবিসমূহসম্পাদনা

  • সরকার
  • জোতদার
  • মুন্সী
  • চাকলাদার
  • তালুকদার
  • রায় বাহাদুর
  • চৌধুরী
  • ঠাকুর
  • প্রধান
  • মল্লিক
  • রায়চৌধুরী
  • দস্তিদার
  • খাস্তগীর
  • মহলানবীশ
  • মজুমদার
  • ভৌমিক
  • দেওয়ান

পেশা হিসেবে প্রাপ্ত পদবিসমূহসম্পাদনা

  • কানুনগো
  • কারিগর
  • কর্মকার
  • ঘটক
  • গোঁসাই
  • পালাকার
  • কীর্তনীয়া
  • নাগ(শাঁখারী)
  • ভাঁড়
  • শোলাকার
  • মালাকার
  • ঘরামী
  • মিস্ত্রী
  • সূত্রধর/সুতার
  • পাঁটিকার
  • বা‌রুই
  • হাজরা
  • হালদার
  • মাঝি
  • মালী
  • পাখাধরা
  • কার্য্যী
  • দেওরী
  • ওঝা
  • পটুয়া
  • পাটোয়ারি
  • ডাকুয়া
  • পাল
  • বৈদ্য
  • গোমস্তা
  • পোদ্দার
  • বেপারী
  • ঢাকি

অন্যান্য পদবিসমূহসম্পাদনা

  • খাঁ
  • গদগদ
  • গায়েন
  • গুণ
  • জলদাস
  • জলধর
  • দাসগুপ্ত
  • পাজা
  • বর
  • বড়াল
  • বালা
  • ব্রজবাসী
  • মহন্ত (শ্রীচৈতন্য প্রচারিত বৈষ্ণব)
  • সত্যব্রত
  • রং
  • সাউদ
  • সাহানী/সোহানী

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. https://bn.m.wikisource.org/wiki/%E0%A6%AA%E0%A6%BE%E0%A6%A4%E0%A6%BE:%E0%A6%B6%E0%A6%BF%E0%A6%B6%E0%A7%81-%E0%A6%AD%E0%A6%BE%E0%A6%B0%E0%A6%A4%E0%A7%80_-_%E0%A6%B8%E0%A6%AA%E0%A7%8D%E0%A6%A4%E0%A6%AE_%E0%A6%96%E0%A6%A3%E0%A7%8D%E0%A6%A1.djvu/%E0%A7%A9%E0%A7%A8%E0%A7%AF
  2. Kuladīpīkā quoted in History of Brahmin Clans,page 283
  3. desk, kolkata24x7 online (২০১৬-০১-২৯)। "জানুন আপনার পদবীর রহস্য"Kolkata24x7 | Read Latest Bengali News, Breaking News in Bangla from West Bengal's Leading online Newspaper। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৯-১৮