বাংলাবান্ধা ইউনিয়ন

পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলার একটি ইউনিয়ন

বাংলাবান্ধা বাংলাদেশের রংপুর বিভাগের পঞ্চগড় জেলার অন্তর্গত তেঁতুলিয়া উপজেলার একটি ইউনিয়ন। এটি বাংলাদেশের সর্ব উত্তরের ইউনিয়ন।[১] বাংলাদেশের সর্ব উত্তরের স্থলবন্দরটিও এখানে অবস্থিত।

বাংলাবান্ধা
ইউনিয়ন
১ নং বাংলাবান্ধা ইউনিয়ন
বাংলাবান্ধা জিরো পয়েন্ট
বাংলাবান্ধা জিরো পয়েন্ট
বাংলাবান্ধা রংপুর বিভাগ-এ অবস্থিত
বাংলাবান্ধা
বাংলাবান্ধা
বাংলাবান্ধা বাংলাদেশ-এ অবস্থিত
বাংলাবান্ধা
বাংলাবান্ধা
বাংলাদেশে বাংলাবান্ধা ইউনিয়নের অবস্থান
স্থানাঙ্ক: ২৬°৩৭′৪৬.২০″ উত্তর ৮৮°২৪′৪৫.৩৬″ পূর্ব / ২৬.৬২৯৫০০০° উত্তর ৮৮.৪১২৬০০০° পূর্ব / 26.6295000; 88.4126000 উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
দেশবাংলাদেশ
বিভাগরংপুর বিভাগ
জেলাপঞ্চগড় জেলা
উপজেলাতেঁতুলিয়া উপজেলা উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
সরকার
 • চেয়ারম্যানমো: কুদরত- ই খুদা মিলন
সময় অঞ্চলবিএসটি (ইউটিসি+৬)
পোস্ট কোড৫০৩০ উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
ওয়েবসাইটদাপ্তরিক ওয়েবসাইট উইকিউপাত্তে এটি সম্পাদনা করুন
মানচিত্র
মানচিত্র

আয়তন সম্পাদনা

বাংলাবান্ধা ইউনিয়নের আয়তন ৫,১৯৪ একর (২১.০২ বর্গ কিলোমিটার।[২]

অবস্থান সম্পাদনা

তেঁতুলিয়া উপজেলা সদর থেকে বাংলাবান্ধা ইউনিয়নের দূরত্ব ১২ কিলোমিটার। হিমকন্যা নামে খ্যাত এ ইউনিয়নের কার্যালয়টি পঞ্চগড়-তেঁতুলিয়া-বাংলাবান্ধা জাতীয় মহাসড়কের পাশে সিপাইপাড়া নামক স্থানে অবস্থিত।[১] ত্রিভুজাকৃতির এ ইউনিয়নের দক্ষিণে তিরনইহাট ইউনিয়ন, পূর্বে ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের জলপাইগুড়ি জেলা এবং পশ্চিমে মহানন্দা নদীর ওপাড়ে ভারতের দার্জিলিং জেলা অবস্থিত।[২] বাংলাবান্ধা থেকে ভারতের শিলিগুড়ি শহর মাত্র সাত কিলোমিটার এবং দার্জিলিং মাত্র ৬৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। আর বাংলাবান্ধা থেকে নেপালের কাঁকরভিটা সীমান্ত মাত্র ৩০ কিলোমিটারের মধ্যে।[৩] এন৫ (বাংলাদেশ) জাতীয় মহাসড়কটি বাংলাবান্ধা সীমান্ত হয়ে ভারতে প্রবেশ করেছে।

প্রশাসনিক এলাকা সম্পাদনা

বাংলাবান্ধা ইউনিয়ন তেঁতুলিয়া উপজেলার ১নং ইউনিয়ন পরিষদ। এ ইউনিয়নের প্রশাসনিক কার্যক্রম তেঁতুলিয়া থানার আওতাধীন। এটি জাতীয় সংসদের ১নং নির্বাচনী এলাকা পঞ্চগড়-১ এর অংশ। এটি ৩টি মৌজায় বিভক্ত। যথা: বাংলাবান্ধা, সিপাইপাড়া এবং খানজি কিসমত। এ ইউনিয়নে ৯টি ওয়ার্ড এবং ২৬টি রয়েছে।

ওয়ার্ডভিত্তিক এ ইউনিয়নের গ্রামসমূহ হলো:[১]

ওয়ার্ড নং গ্রামের নাম
১নং ওয়ার্ড ঝাড়ুয়াপাড়া, বাংলাবান্ধা
২নং ওয়ার্ড জায়গীরজোত, পাগলীডাঙ্গী, ঘাটিয়ারপাড়া
৩নং ওয়ার্ড সরদারপাড়া, নিধীগছ, ঘুঘরীভিটা, বাইনগছ
৪নং ওয়ার্ড সন্যাসীপাড়া, সিপাইপাড়া, উকিলজোত
৫নং ওয়ার্ড হাওয়াজোত, দিঘলগাঁও
৬নং ওয়ার্ড চতুরাগছ, হাজীপাড়া, ধাইজান
৭নং ওয়ার্ড দক্ষিণ কাসিমগঞ্জ, পাঠানপাড়া, জামাদারগছ
৮নং ওয়ার্ড গোয়ালগছ, উত্তর কাসিমগঞ্জ, হুলাসুজোত
৯নং ওয়ার্ড ফুটকীবাড়ী, নারায়নজোত, পেদীভিটা

প্রাক্তন চেয়ারম্যানবৃন্দ সম্পাদনা

  • মোঃ খোরশরদ আলী
  • মোঃ জাহেরুল ইসলাম
  • মোঃ মহসীন আলী প্রধান
  • মোঃ নায়বুল ইসলাম
  • মোঃ কুদরত-ই-খুদা (মিলন)

স্থলবন্দর সম্পাদনা

বাংলাদেশের সর্ব উত্তরের স্থলবন্দরটি এখানে অবস্থিত। বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরের মাধ্যমে ভারত, নেপাল ও ভুটানের সাথে বাণিজ্য সম্পাদিত হয়। সীমান্তের ওপাড়ে ভারত-এর ফুলবাড়ি। । ১৯৯৭ সালের ১১ই সেপ্টেম্বর থেকে নেপাল-বাংলাদেশের মাঝে সীমিত আকারে বাণিজ্য অব্যহত রয়েছে। সম্প্রতি বাংলাদেশ সরকারের বিশেষ উদ্যোগ এর ফলে এলাকাটির ব্যাপক উন্নতি সাধিত হয়েছেএএ

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. "বাংলাবান্ধা ইউনিয়ন - জাতীয় তথ্য বাতায়ন"banglabandhaup.panchagarh.gov.bd। জাতীয় তথ্য বাতায়ন। ৩০ মার্চ ২০২৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২৩ 
  2. "তেঁতুলিয়া উপজেলা - বাংলাপিডিয়া"bn.banglapedia.org। বাংলাপিডিয়া। সংগ্রহের তারিখ ৩০ মার্চ ২০২৩ 
  3. "দৈনিক প্রথম আলো"। ২০১৭-১০-১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৪-০১-১২