প্রবেশদ্বার:উসমানীয় সাম্রাজ্য

উসমানীয় সাম্রাজ্যের
প্রবেশদ্বারে স্বাগতম!


ভূমিকা

উসমানীয় সাম্রাজ্যের পতাকা
উসমানীয় সাম্রাজ্যের পতাকা

উসমান প্রথমের সাথে বাইজেন্টাইনদের বিরোধ থেকে শুরু করে প্রথম বিশ্বযুদ্ধের শেষের পরও সামান্যকিছু কাল যাবত মাথা উঁচু করে দাঁড়িয়ে থাকা সাম্রাজ্যটি তার ইতিহাসে কম চড়াই-উৎরাইয়ের সম্মুখীন হয়নি। আনুমানিক ১২৯৯ খ্রিস্টাব্দে শুরু হওয়া সাম্রাজ্যটির সর্বশেষ সূর্য খেলাফত বিলুপ্তি হয় ১৯২৪ খ্রিস্টাব্দে। সর্বপ্রথম প্রথম উসমান বাইজেন্টাইনদের সাথে লড়ে প্রকাশ্যে আসেন। তার নামেই উসমানীয় সাম্রাজ্য বা সালতানাত বা খিলাফতের নামকরণ করা হয়। তারপর ১৪৫৩ খ্রিস্টাব্দে দ্বিতীয় মুহাম্মদের হাতে পতন ঘটে বাইজেন্টাইন সাম্রাজ্যের। এরপরই ইতিহাসের উল্লেখযোগ্য সময় শুরু হয় উসমানীয়দের। সুলাইমান দ্য ম্যাগনিফিসেন্টের শাসনামলে ইউরোপ, এশিয়া ও আফ্রিকা; এই তিনটি মহাদেশ পর্যন্ত এই সাম্রাজ্যের বিস্তার ঘটে। তবে ১৮শ শতকের পর থেকে সাম্রাজ্যটির পতনের সুর বেজে উঠে। লোভ, সিংহাসনকেন্দ্রিক ঝগড়া আর উজিরদের রাজনীতির চালের ভারে নুয়ে পড়ে সালতানাতটি। অবশেষে এই সমস্যাগুলো থাকার মধ্যেই প্রথম বিশ্বযুদ্ধের আগে ও পরে ভুল পক্ষ ও অক্ষকে সমর্থন করে পুরোপুরি বিলুপ্তি ঘটে এই সাম্রাজ্যের। উসমানীয় সাম্রাজ্য সুদীর্ঘ ছয়শত বছরেরও বেশি ধরে প্রাচ্য ও পাশ্চাত্যের যোগাযোগের কেন্দ্র হিসেবে কাজ করেছে। তবে দীর্ঘদিনব্যাপী ইউরোপীয়দের তুলনায় সামরিক ক্ষেত্রে পিছিয়ে পড়ে। ধারাবাহিক অবনতির ফলে সাম্রাজ্য ভেঙে পড়ে এবং প্রথম বিশ্বযুদ্ধের পর সম্পূর্ণ বিলুপ্ত হয়ে যায়। এরপর আনাতোলিয়ায় নতুন প্রজাতন্ত্র হিসেবে আধুনিক তুরস্কের উদ্ভব হয়। বলকান ও মধ্যপ্রাচ্যে সাম্রাজ্যের সাবেক অংশগুলো প্রায় ৪৯টি নতুন রাষ্ট্র হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে।

ভালো নিবন্ধ

কনস্টান্টিনোপল বিজয় ১৪৫৩ খ্রিষ্টাব্দে উসমানীয় সুলতান দ্বিতীয় মুহাম্মদ কর্তৃক শহরটি অধিকারের মাধ্যমে সম্পন্ন হয়। পূর্বে এটি পূর্ব রোমান (বাইজেন্টাইন) সাম্রাজ্যের রাজধানী ছিল। শহর অধিকারের পূর্বে এটি জুলিয়ান ক্যালেন্ডার অনুসারে ১৪৫৩ খ্রিষ্টাব্দের ৬ এপ্রিল থেকে ২৯ মে পর্যন্ত অবরোধের সম্মুখীন হয়। এরপর চূড়ান্তভাবে শহরটি উসমানীয়দের অধিকারে আসে। তারও পূর্বে মহান সেলযুক সুলতান আল্প আরসালান ও শহরটি জয় করেছিলেন কিন্তু এর দখল ধরে রাখতে পারেননি।

কনস্টান্টিনোপলে বিজয়কে ১৫০০ বছরের মত টিকে থাকা রোমান সাম্রাজ্যের সমাপ্তি হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। উসমানীয়দের এই বিজয়ের ফলে উসমানীয় সেনাদের সামনে ইউরোপে অগ্রসর হওয়ার পথে আর কোনো বাধা থাকল না। খ্রিষ্টানজগতে এই পতন ছিল বিরাট ধাক্কার মত। বিজয়ের পর সুলতান মুহাম্মদ তার রাজধানী এড্রিনোপল থেকে সরিয়ে কনস্টান্টিনোপলে নিয়ে আসেন। শহর অবরোধের আগে ও পরে শহরের বেশ কিছু গ্রীক ও অগ্রীক বুদ্ধিজীবী পালিয়ে যায়। তাদের অধিকাংশ ইতালিতে চলে যায় এবং ইউরোপীয় রেনেসাতে সাহায্য করে।


নির্বাচিত উক্তি

"আমরা ভূমি বিজয় করিনা, আমরা হৃদয় বিজয় করি।"
দ্বিতীয় মুহাম্মদ

নির্বাচিত ছবি

রুকাইয়া সাবিহা সুলতানের বিয়ের ছবি
রুকাইয়া সাবিহা সুলতানের বিয়ের ছবি
কৃতিত্ব: শিবেকার কচুবে

১৯২০ সালে রুকাইয়া সাবিহা সুলতানের বিয়ের দিন, বাম থেকে ডানে: ফাতমা উলভিয়ে সুলতান, খাদিজা খাইরিয়াহ আয়শা দুররে শাহওয়ার সুলতান, আমিনা নাজিকেদা কাদিনেফেন্দী, রুকাইয়া সাবিহা সুলতান, মেহমেদ আরতুগ্রুল এফেন্দী, শাহসুওয়ার হানিম এফেন্দী।

আপনি জানেন কি...

  • ...উসমানীয় সাম্রাজ্যের প্রথম দিককার সুলতানগণ তোপকাপি প্রাসাদে বসবাস করতেন, যেটিকে সাম্রাজ্যের পতনের পর জাদুঘরে পরিণত করা হয়?

বিষয়শ্রেণী

মূল আলোচ্য বিষয়

উল্লেখযোগ্য সম্রাট উল্লেখযোগ্য যুদ্ধসমূহ সাম্রাজ্যের পদসমূহ উল্লেখযোগ্য অন্যান্য ব্যক্তি আরও দেখুন

আপনি যা যা করতে পারেন

প্রস্তাবিত/অনুরোধকৃত নিবন্ধ
নিবন্ধ সহায়ক উইকি নিবন্ধ ভাষা
উসমানীয় সাম্রাজ্যের উত্থান Rise of Ottoman Empire ইংরেজি
উসমানীয় অ্যাডমিরালদের তালিকা List of Ottoman admirals ইংরেজি
মুস্তাফা চেলেবি Mustafa Çelebi ইংরেজি
তৃতীয় আহমেদ Ahmed III ইংরেজি
তৃতীয় উসমান Osman III ইংরেজি
খিলাফতের বিলুপ্তি Abolition of the Caliphate ইংরেজি
মানোয়ন্নন বা সম্প্রসারণ আবশ্যক নিবন্ধসমূহ
অনুবাদ আবশ্যক সম্প্রসারণ আবশ্যক
উসমানীয় সুলতানদের তালিকা উসমানীয় রাজবংশ  · উসমানীয় নৌবাহিনী

উইকিমিডিয়া


উইকিউক্তিতে উসমানীয় সাম্রাজ্য
উক্তি-উদ্ধৃতির সংকলন


উইকিবইয়ে উসমানীয় সাম্রাজ্য
উন্মুক্ত পাঠ্যপুস্তক ও ম্যানুয়াল


উইকিঅভিধানে উসমানীয় সাম্রাজ্য
অভিধান ও সমার্থশব্দকোষ


উইকিউপাত্তে উসমানীয় সাম্রাজ্য
উন্মুক্ত জ্ঞানভান্ডার


উইকিভ্রমণে উসমানীয় সাম্রাজ্য
উন্মুক্ত ভ্রমণ নির্দেশিকা