পিলু মমতাজ

বাংলাদেশী গায়িকা

পিলু মমতাজ (মৃত্যুঃ ২৩ মে, ২০১১) ছিলেন বাংলাদেশের একজন জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী। সত্তর ও আশির দশকে দেশীয় পপ সঙ্গীতের ধারায় তিনি অগ্রগামী ছিলেন।[১]

পিলু মমতাজ
মৃত্যু২৩ মে ২০১১
অ্যাপোলো হাসপাতাল, ঢাকা, বাংলাদেশ
ধরনপপ সঙ্গীত
পেশাসঙ্গীতশিল্পী
লেবেললেজার ভিশন
সহযোগী শিল্পীআজম খান, ফেরদৌস ওয়াহিদ, ফকির আলমগীর, ফিরোজ সাঁই

কর্মজীবনসম্পাদনা

বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচারিত ফজলে লোহানীর 'যদি কিছু মনে না করেন' অনুষ্ঠানে তিনি "একদিন তো চলে যাব, পরের ঘরনি হব" গানটি গেয়ে জনপ্রিয়তা অর্জন করেন। পাশাপাশি মঞ্চে তিনি ওই সময়ের চার পপশিল্পী—আজম খান, ফেরদৌস ওয়াহিদ, ফকির আলমগীরফিরোজ সাঁইয়ের সঙ্গে এক হয়ে নিয়মিত গান পরিবেশন করে বেশ জনপ্রিয়তা পান।[১]

২০০১ সালে ঈদে প্রচারিত বিটিভির জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান হানিফ সংকেতের ইত্যাদিতে আজম খান, ফেরদৌস ওয়াহিদ, ফকির আলমগীরের সাথে "দিন আসে দিন যায়" গানটি পরিবেশন করেন। মঞ্চে শেষবারের মত ২০১০ সালে ষষ্ঠ সিটিসেল-চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ডস অনুষ্ঠানে গান পরিবেশন করেছিলেন। ২০১২ সালে তার মৃত্যুর পর মমতাজ আলী খান সংগীত একাডেমী ও লেজার ভিশন ব্যানারে তার গানে অ্যালবাম ছিল কোন দিন প্রকাশিত হয়। এই অ্যালবামের সঙ্গীতায়োজন করেছেন আবিদ হোসাইন। এই অ্যালবামের কয়েকটি উল্লেখযোগ্য গান হলো — "আমি শত্রুকে আপন", "বাতাসে আজ", "কানে কানে বলো", "কতদিন যে", "ছিলে কোন দিন", "কোন এক মধুর" ইত্যাদি।[১]

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

পিলু মমতাজের বাবা বাংলা লোকগানে প্রবাদপুরুষ মমতাজ আলী খান। পিলু লেফটেন্যান্ট কর্নেল আনোয়ারুজ্জামানের সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। তাদের এক কন্যা, হোমায়রা জামান মৌ।[২]

মৃত্যুসম্পাদনা

পিলু ২০১১ সালের ২৩ মে ঢাকার অ্যাপোলো হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন। তাকে বনানী কবরস্থানে সমাহিত করা হয়।[২]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "পিলু মমতাজের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীতে 'ছিলে কোন দিন'"দৈনিক প্রথম আলো। ২৬ মে ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০১৭ 
  2. "Pop Sensation of Yesteryears Pilu Momtaz Passes Away"দ্য ডেইলি স্টার। সংগ্রহের তারিখ ২০ মে ২০১৭