পরেশ রাওয়াল

ভারতীয় অভিনেতা ও ভারতীয় রাজনীতিবিদ

পরেশ রাওয়াল (জন্ম: ৩০ মে ১৯৫০) হচ্ছেন একজন হিন্দি চলচ্চিত্র অভিনেতা। ২০১৪ সালে ভারত সরকার তাকে পদ্মশ্রী সম্মানে ভুষিত করে। ১৯৯৪ খ্রিটাব্দেও তাকে সহায়ক চরিত্রে অভিনয়ের জন্যে রাষ্ট্রীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার দেওয়া হয়। পরে হাস্যরসাত্মক চরিত্রে অভিনয়ের জন্যে শ্রেষ্ঠ হাস্যকার হিসেবে সম্মিত করা হয়। শ্রী রাওয়াল কেতন মেহতা নির্দেশিত ছবি সরদার-এ স্বাধীনতা সংগ্রামী বল্লভভাই প্যাটেল চরিত্রে অভিনয় করে সবার মন কেড়েছিলেন। [২]

পরেশ রাওয়াল
પરેશ રાવલ
Paresh Rawal still4.jpg
পরেশ রাওয়াল
জন্ম (1950-05-30) ৩০ মে ১৯৫০ (বয়স ৭০)
জাতীয়তাভারতীয়
যেখানের শিক্ষার্থীএনএম কলেজ
পেশাঅভিনেতা: চলচ্চিত্র ও মঞ্চ
প্রযোজক: চলচ্চিত্র ও ধারাবাহিক
রাজনীতিজ্ঞ
কার্যকাল১৯৮৪–বর্তমান
প্রতিষ্ঠানবলিউড
দাম্পত্য সঙ্গীস্বরূপ সম্পৎ
পুরস্কারIND Padma Shri BAR.png পদ্মশ্রী ২০১৪
রাষ্ট্রীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

পরেশ রাওয়াল ভারতের মুম্বাইতে জন্মগ্রহণ করেন। এবং এনএম কলেজে পড়াশোনা করেন। তিনি ১৯৭৯ সালের মিস ইন্ডিয়া খেতাব জয়ী ও অভিনেত্রী স্বরূপ সম্পৎকে বিয়ে করেন। এবং তাদের দুজন ছেলে আছে।

অভিনয়সম্পাদনা

শ্রী রাওয়াল তার অভিনয় জীবন শুরু করেন ১৯৮৪ খ্রিস্টাব্দে। তখন তিনি হোলি নামক ছবিতে পার্শচরিত্রে প্রথম অভিনয় করেন। তার পর ১৯৮৬ তে নাম ছবিতে তার অভিনয়শক্তি সবার সামনে প্রকাশ পায়। তিনি ১৯৮০-১৯৯০ সালের মধ্যেই একশতাধিক সিনেমাতে খলনায়কের ভূমিকায় অভিনয় করে ফেলেন। তার মধ্যে কব্জা, দৌড়, কিং আঙ্কল, বাজী, রাম লখন ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

তিনি আন্দাজ আপনা আপনা চলচ্চিত্রে প্রথম ডবল রোল করেন। এরপর পরিচালক প্রিয়দর্শনের চলচ্চিত্রে বিভিন্ন ভূমিকায় হাস্যরসাত্মক অভিনয় করে ভারত জোড়া খ্যাতি পান। তার অভিনীত অন্যান্য ছবিগুলির মধ্যে ফান্টুস, ক্রান্তিবীর, হেরা ফেরি, ফির হেরা ফেরি, গরম মসালা, ভাগম ভাগ, মালামাল উইকলি, হাঙ্গামা ইত্যাদি উল্লেখযোগ্য।

রাজনীতিসম্পাদনা

পরেশ রাওয়াল ভারতীয় জনতা পার্টি থেকে গুজরাতের আহমেদাবাদ পুর্ব থেকে তিনি বর্তমান সংসদ সদস্য

উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Asira Tarannum, TNN 2 August 2011, 03.14pm IST. (২ আগস্ট ২০১১)। "'Star kids are not good actors' - Times Of India"। Articles.timesofindia.indiatimes.com। সংগ্রহের তারিখ ১ জানুয়ারি ২০১৩ 
  2. "পদ্ম পুরস্কারের ঘোষণা"। উত্তরবঙ্গ সংবাদ। ২৫ জানুয়ারি ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১০ ডিসেম্বর ২০১৫