প্রধান মেনু খুলুন

নোবেল পুরস্কার বিজয়ী নারীদের তালিকা

উইকিমিডিয়ার তালিকা নিবন্ধ

নোবেল পুরস্কার বিজয়ী নারীদের তালিকায় (ইংরেজি: List of female Nobel laureates) এ পর্যন্ত বিশ্বের ৫১ জন (৫২বার) নারী স্ব-স্ব ক্ষেত্রে অবদান রাখায় নোবেল পুরস্কার লাভ করেছেন; যেখানে পুরুষদের নোবেল পুরস্কার প্রাপ্তির সংখ্যা ৮০৭ জন।

পরিচ্ছেদসমূহ

পদার্থসম্পাদনা

বর্ষ ছবি ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান দেশ অবদান
১৯০৩   মারি ক্যুরি   ফ্রান্স বেকেরেল আবিষ্কৃত বিকিরণের উপর সফল যৌথ গবেষণা
১৯৬৩   মারিয়া গ্যোপের্ট-মায়ার   যুক্তরাষ্ট্র নিউক্লিয় শক্তিস্তরের গঠন সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ আবিষ্কার

৩. ২০১৮- ডোনা দিও স্ট্রিকল্যান্ড (কানাডা)-তিনি লেজার রশ্মির বিজ্ঞানের ক্ষেত্রে অগ্রণী "চাপার্ড পালস এমপ্লিফিকেশন" এর উন্নয়ন ঘটানোর জন্য জেরার মুরুর সাথে যুগ্মভাবে নোবেল অর্জন করেন।

রসায়নসম্পাদনা

বর্ষ ছবি ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান দেশ অবদান
১৯১১   মারি ক্যুরি   পোল্যান্ড/  ফ্রান্স রেডিয়াম এবং পোলোনিয়াম আবিষ্কার
১৯৩৫   আইরিন জোলিও-ক্যুরি   ফ্রান্স নতুন তেজস্ক্রিয় মৌল আবিষ্কার
১৯৬৪ 75px ডরোথি ক্রোফুট হজকিন   যুক্তরাজ্য জৈব রাসায়নিক উপাদানে এক্স-রে রশ্মি প্রয়োগে সাফল্য
২০০৯   আডা ই. ওনাথ   ইসরায়েল "জীব কোষে অবস্থিত রাইবোজোমের গঠন ও ক্রিয়া"[১]

চিকিৎসাবিদ্যাসম্পাদনা

বর্ষ ছবি ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান দেশ অবদান
২০১৪   মে-ব্রিট মোজের   নরওয়ে মস্তিষ্কের অবস্থান বোঝার প্রক্রিয়ার রহস্য সমাধান

সাহিত্যসম্পাদনা

শান্তিসম্পাদনা

বর্ষ ছবি ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান দেশ অবদান
১৯০৫   বের্থা ফন সুটনার অস্ট্রিয়া এবং হাঙ্গেরি
১৯৩১   জেইন অ্যাডাম্‌স যুক্তরাষ্ট্র
১৯৪৬   এমিলি গ্রিন বল্‌চ্‌‌ যুক্তরাষ্ট্র
১৯৭৬   মাইরিয়াড কোরিগান উত্তর আয়ারল্যান্ড
  বেটি উইলিয়ামস
১৯৭৯   মাদার তেরেসা ভারত
১৯৮২   আলভা মিরদল
যুগ্মভাবে অ্যালফোনসো গার্সিয়া রোব্‌লস
সুইডেন "জাতিসংঘে অস্ত্রপ্রতিযোগিতা নিরসন সংক্রান্ত আলোচনায় উল্লেখযোগ্য অবদান ও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখেন এবং আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে ব্যাপক দৃষ্টি আকর্ষণের করেন"[২][৩]
১৯৯১   অং সান সু কি মায়ানমার
১৯৯২   রিগোবার্টা মেঞ্চু গুয়াতেমালা
১৯৯৭   জোডি উইলিয়ামস যুক্তরাষ্ট্র
২০০৩   শিরিন এবাদি ইরান মানবাধিকারগণতন্ত্র রক্ষায় ভূমিকার জন্য। তিনি বিশেষত নারী ও শিশু অধিকার নিয়ে কাজ করেছেন।[৪]
২০০৪   ওয়াংগারি মাথাই কেনিয়া
২০১১   এলেন জনসন সারলিফ লাইবেরিয়া নারীদের অধিকার রক্ষা এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করে শান্তি প্রতিষ্ঠায় অহিংস আন্দোলন করার জন্য[৫]
  লেহমাহ বয়ই
  তাওয়াকেল কারমান ইয়েমেন
  1. ২০১৮- নাদিয়া মুরাদ বাসে তাহা (ইরাক)- যৌন নিপীড়নের বিরুদ্ধে দাঁড়ানো ও "নাদিয়াস ইনিসিয়েটিভ" গঠণের জন্য যুগ্মভাবে (ডেনিস মুকওয়েগে এর সাথে) শান্তিতে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন।

অর্থনীতিসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "The Nobel Prize in Chemistry 2009"। Nobelprize.org। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-১০-০৭ 
  2. "The Nobel Peace Prize 1982"। Nobel Foundation। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-১১-১২ 
  3. "The Nobel Peace Prize 1982–Presentation Speech"। Nobel Foundation। সংগ্রহের তারিখ ২০০৮-১২-০৩ 
  4. http://nobelprize.org/nobel_prizes/peace/laureates/2003/index.html
  5. http://nobelprize.org/nobel_prizes/peace/laureates/2011/press.html