প্রধান মেনু খুলুন

নুরুল মোমেন

একজন বাংলাদেশী অধ্যাপক, শিক্ষাবিদ, নাট্যকার ও নির্দেশক, এবং প্রাবন্ধিক

নুরুল মোমেন ( নভেম্বর ২৫, ১৯০৮ – ফেব্রুয়ারি ১৬, ১৯৯০),যিনি বাংলাদেশের নাট্যগুরু হিসেবেও পরিচিত, ছিলেন একজন বাংলাদেশী অধ্যাপক, শিক্ষাবিদ, নাট্যকার ও নির্দেশক, এবং প্রাবন্ধিক।[১][২][৩] আধুনিক বাংলা নাটকে অগ্রণী ভুমিকার জন্য তাকে "নাট্যগুরু" হিসেবে সম্বোধন করা হয়।[৪][৫]

নুরুল মোমেন
Nurul Momen
জন্ম(১৯০৮-১১-২৫)২৫ নভেম্বর ১৯০৮
আলফাডাঙ্গা, যশোর, বাংলাদেশ
মৃত্যু১৬ ফেব্রুয়ারি ১৯৯০(1990-02-16) (বয়স ৮১)
গুলশান, ঢাকা, বাংলাদেশ
পেশানাট্যকার, লেখক, শিক্ষাবিদ,
ভাষাবাংলা, ইংরেজি
জাতীয়তাবাংলাদেশ
নাগরিকত্ববাংলাদেশ
ধরননাটক, ছোটগল্প, প্রবন্ধ
উল্লেখযোগ্য রচনাবলিনেমেসিস · রুপান্তর
উল্লেখযোগ্য পুরস্কারবাংলা একাডেমি পুরস্কার (১৯৬১)
একুশে পদক (১৯৭৮)
দাম্পত্যসঙ্গীআমেনা মোমেন (তা. ১৯৯৩)
সন্তান

জীবনীসম্পাদনা

প্রাথমিক জীবন ও শিক্ষাসম্পাদনা

নুরুল মোমেন নভেম্বর ২৫, ১৯০৮ সালে তৎকালীন যশোর জেলা বর্তমান ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গায় জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা নুরুল আরেফিন ছিলেন একজন জমিদার ও হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক।[২] তিনি কলকাতায় প্রাথমিক শিক্ষা সম্পন্ন করে ১৯১৬ সালে খুলনা জিলা স্কুলে ভর্তি হন।[৫] দশ বছর বয়সে তার প্রথম পদ্য "সন্ধ্যা" ১৯১৯ সালে সেসময়কার "ধ্রুবতারা" নামক সাময়িকীতে প্রকাশিত হয়েছিল।[৫] ১৯২০ সালে তিনি ঢাকা মুসলিম হাই স্কুল-এ ভর্তি হন এবং সেখান থেকেই ১৯২৪ সালে ম্যাট্রিক, "ঢাকা ইন্টারমেডিয়েট কলেজ" থেকে ১৯২৬ সালে আইএ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯২৯ সালে বিএ পাস করেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির প্রথম বছরেই (১৯২৭) তিনি ক্রীড়া ও নাট্য প্রতিযোগীতায় প্রথম হন। রবিন্দ্রনাথের 'মুক্তধারায়' বটু চরিত্রায়ন করে তিনি প্রথম স্থান অর্জন করেন। সেটি ছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বপ্রথম নাট্য প্রতিযোগিতা এবং নুরুল মোমেন তখন থেকেই পূর্ব বাংলার নাটকে পথিকৃতের ভূমিকা রাখেন। এর পরের ৩ বছর তিনি কার্জন হলে বহু নাটক পরিচালনা ও অভিনয় করেন। পরে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএল ডিগ্রি লাভ করে ১৯৩৬ সালে কলকাতা হাইকোর্টে ওকালতি শুরু করেন।[২]

রেডিওতে কাজসম্পাদনা

১৯৩৯ সালে ঢাকায় "অল ইন্ডিয়া রেডিও" প্রতিষ্ঠা হলে, মোমেন নতুন এই মাধ্যমের সুযোগ গ্রহণ করেন এবং তার প্রথম লেখক হয়ে ওঠেন। ১৯৪১ রেডিওর জন্য রচনা ও নির্দেশনা দেন কমেডি নাটক "রুপান্তর"। এই নাটকের প্রগতিশীল প্লট এবং প্রধান চরিত্র নারী হওয়ার কারণে প্রথাগত মুস্লিম বাংলা নাটকের মধ্যে নতুন ধারার উন্মেষ ঘটে যার ফলশ্রুতিতে কবি ও সাহিত্য সমালোচক মোহিতলাল মজুমদার তার প্রশংসা করেন এবং পরবর্তিতে আনন্দবাজার পত্রিকা তাদের পূজা সংখ্যায় নাটকটি প্রকাশ করেছিল।[২][৫]

সাহিত্যকর্মসম্পাদনা

কর্মতালিকাসম্পাদনা

  • রূপান্তর {রচনা, মঞ্জচায়ন এবং সম্প্রচার - ১৯৪১।বই আকারে প্রকাশিত হয় ১৯৪৮ সালে, প্রকাশক- শেখ ব্রাদার্স, ঢাকা। আনন্দবাজার পত্রিকা শারদীয়া (গ্রন্থাকার) সংখ্যায় ৪৩ পৃষ্ঠাব্যাপী পাইকা হরফে (রবীন্দ্রনাথের পর, সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ রচনা হিসেবে) প্রকাশ করে ১৯৪৩ সালে।}
  • নেমেসিস (রচনা কাল-১৯৪৪, সজনীকান্ত দাস সম্পাদিত 'শনিবারের চিঠি'তে প্রকাশিত হয় ১৯৪৫ সালে। বই আকারে প্রকাশিত হয় ১৯৪৬ সালে, প্রকাশক-মোমেন পাবলিশিং হাউজ, ঢাকা।)
  • যদি এমন হতো ( প্রকাশকাল - জুলাই ১৯৬১, প্রকাশক-মোমেন পাবলিশিং হাউজ, ঢাকা।)
  • নয়া খান্দান (রচনা- সেপ্টেম্বর, ১৯৬১; প্রকাশকাল - ১৯৬২, প্রকাশক- বাংলা একাডেমি, প্রচ্চদ কামরুল হাসান)
  • আলোছায়া (রচনা - ১৯৬২ ; প্রকাশকাল - অক্তোবর, ১৯৬২, প্রকাশক-মোমেন পাবলিশিং হাউজ, ঢাকা।)
  • শতকরা আশি
  • আইনের অন্তরালে
  • রূপলেখা
  • হোসেন সফদারের উইল
  • ভাই ভাই সবাই
  • এইটুকু এই জীবনটাতে
  • যেমন ইচ্ছা তেমন
  • আদিখ্যাতা
  • লন্ডন প্রবাসে
  • হ-য-ব-র-ল
  • অন্ধকারটাই আলো (১৯৬৪)
  • ঠিক চলার পথ
  • যদি এমন হতো
  • নয়া খান্দান

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Mahmud, Jamil (২৭ নভেম্বর ২০০৮)। "Birth centenary of Professor Nurul Momen"The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ১৮ অক্টোবর ২০১০ 
  2. Khan, Tamanna (৩ ডিসেম্বর ২০১০)। "A Pioneer of Modern Drama"Star Weekend Magazine। সংগ্রহের তারিখ ১৮ ডিসেম্বর ২০১০ 
  3. Mahmud, Dr. Faisal (২৫ নভেম্বর ২০১০)। "Natyaguru Nurul Momen (Part 1)"The New Nation। সংগ্রহের তারিখ ১৯ ডিসেম্বর ২০১০ 
  4. Rubin, Don (১৯৯৮)। The World Encyclopedia of Contemporary Theatre: Asia। Taylor & Francis। পৃষ্ঠা 104। আইএসবিএন 978-0-415-05933-6 
  5. Chowdhury, Syed Tashfin (৩ ডিসেম্বর ২০১০)। "Father of Bangladeshi theatre"The Daily New Age [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

বহিঃসংযোগসম্পাদনা