নদীজন শাহনেওয়াজ কাকলী পরিচালিত ২০১৫ সালের বাংলাদেশী নাট্য চলচ্চিত্র। শেখ জহুরুল হকের গুণ উপন্যাসের কাহিনি অবলম্বনে ছবিটির চিত্রনাট্য লিখেছেন শাহনেওয়াজ কাকলী। ছবিটি প্রযোজনা ও পরিবেশনা করে ইমপ্রেস টেলিফিল্ম। এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন মামুনুর রশীদ, প্রাণ রায়, শর্মীমালা, তমা মির্জানিরব হোসেন

নদীজন
নদীজন চলচ্চিত্রের পোস্টার.jpeg
পরিচালকশাহনেওয়াজ কাকলী
প্রযোজক
চিত্রনাট্যকারশাহনেওয়াজ কাকলী
কাহিনিকারশেখ জহুরুল হক
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকারইমন সাহা
চিত্রগ্রাহকশাহনেওয়াজ কাকলী
সম্পাদকসোহরাব হোসেন
প্রযোজনা
কোম্পানি
পরিবেশকইমপ্রেস টেলিফিল্ম
মুক্তি১৮ জুলাই, ২০১৫
দৈর্ঘ্য১২৭ মিনিট
দেশবাংলাদেশ
ভাষাবাংলা

নদীজন ছবিটির উদ্বোধনী প্রদর্শনী হয় ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে ভারতের বেঙ্গালুরু আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে এবং পরে ২০১৫ সালে ২৯ মার্চ ১০ম জেনেভা ইন্টারন্যাশনাল অরিয়েন্টাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে প্রদর্শিত হয়। পরে ২০১৫ সালের ১৮ জুলাই ঈদ-উল-ফিতরে বাংলাদেশে মুক্তি পায়।[১] তমা মির্জা এই চলচ্চিত্রে ছায়া চরিত্রে অভিনয়ের জন্য ৪০তম জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী বিভাগে পুরস্কৃত হন।[২]

কুশীলবসম্পাদনা

নির্মাণসম্পাদনা

চিত্রনাট্যসম্পাদনা

শেখ জহুরুল হকের গুণ উপন্যাসের কাহিনি অবলম্বনে শাহনেওয়াজ কাকলী ছবিটির চিত্রনাট্য রচনা করেন। প্রথমে ছবির নামকরণ করা হয় 'ঢেউ'।[৩] পরে নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় 'নদীজন'।[৪]

শিল্পী নির্বাচনসম্পাদনা

কাকলী চিত্রনাট্য লেখার সময় থেকেই তার পাশে ছিল প্রাণ রায়। কাকলী তাকেই কেন্দ্রীয় চরিত্রে আয়ানের ভূমিকার জন্য নির্বাচন করেন। তার স্ত্রী সামছির ভূমিকার জন্য নির্বাচন করেন শর্মীমালাকে। নেতিবাচক চরিত্র ফতেহ আলী খান চরিত্রের জন্য নির্বাচন করা হয় মামুনুর রশীদকে। কাকলীর ছবিটির বাণিজ্যিক দিক বিবেচনা করে তমা মির্জা এবং নিরব হোসেনকে দুটি পার্শ্বচরিত্রের জন্য নির্বাচন করেন।[৫]

চিত্রগ্রহণসম্পাদনা

নদীজন চলচ্চিত্রের শুটিং হয় ২০১৩ সালের ২২ অক্টোবর কুষ্টিয়ার শিলাইদহে। গড়াই ও পদ্মা নদীতে ছবিটির কিছু দৃশ্যের চিত্রায়ণ হয়। এ প্রসঙ্গে পরিচালক কাকলী বলেন "ওখানে বড় নৌকা পাওয়া যায়। তেমনই একটি নৌকাকে আমরা আগের দিনের রূপ দিয়েছি। এখন তো আর পালতোলা নৌকা দেখা যায় না। টানা তিন দিন আমরা ওই নৌকায় শুটিং করেছি। কারণ, নৌকার মাঝি নদীজন ছবির অন্যতম একটি চরিত্র।"[৬]

নির্মাণ-পরবর্তীসম্পাদনা

শুটিং শেষে ছবিটি সম্পাদনার পর ২০১৫ সালের ৫ এপ্রিল সেন্সর ছাড়পত্রের জন্য বাংলাদেশ চলচ্চিত্র সেন্সর বোর্ডে পাঠানো হয়। ১৫ এপ্রিল ছবিটি সেন্সর বোর্ডে প্রদর্শিত হয় এবং ছবিতে হিল্লা বিয়ের একটি দৃশ্য থাকায় সেন্সর বোর্ড ছবিটি আটকে দেয়। এ প্রসঙ্গে পরিচালক কাকলী বলেন "১৯৮২ সালে বাংলাদেশে একটি আইন করে হিল্লা বিয়ে নিষিদ্ধ করা হয়েছিল। কিন্তু বিষয়টি আমি জানতাম না।"[৭] পরে হিল্লা বিয়ের অংশ বাদ দিয়ে পুনরায় সেন্সরে পাঠানো হয় এবং সেন্সর ছাড়পত্র লাভ করে।

সঙ্গীতসম্পাদনা

চলচ্চিত্রের সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন ইমন সাহা। গানের কথা লিখেছেন আরিফ নূর ও প্রদীপ সাহা।

মুক্তিসম্পাদনা

নদীজন চলচ্চিত্রটি ২০১৪ সালের ডিসেম্বরে ভারতের বেঙ্গালুরু আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে[৮] এবং ২০১৫ সালে ২৯ মার্চ ১০ম জেনেভা ইন্টারন্যাশনাল অরিয়েন্টাল ফিল্ম ফেস্টিভ্যালে প্রদর্শিত হয়।[৯] ২০১৫ সালে ২০১৫ সালের ১৮ জুলাই ঈদ-উল-ফিতরে বাংলাদেশী টেলিভিশন চ্যানেল চ্যানেল আইতে চলচ্চিত্রটির টিভি প্রিমিয়ার হয়[১০] এবং ঢাকার যমুনা ফিউচার পার্কে মুক্তি পায়।[১১]

পুরস্কারসম্পাদনা

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "ঈদের যত চলচ্চিত্র"দৈনিক জনকণ্ঠ। ১৭ জুলাই ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৭ 
  2. "আবেগে আপ্লুত তমা মির্জা"দৈনিক মানবজমিন। ৪ জুন ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৭ 
  3. "শাহনেওয়াজ কাকলী'র নতুন ছবি"বাংলা মুভি ডেটাবেজ। ২৭ অক্টোবর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  4. "শাহনেওয়াজ কাকলীর 'নদীজন'"বাংলা মুভি ডেটাবেজ। ২২ নভেম্বর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৭ 
  5. সাহা, জয়ন্ত (১৮ জুলাই ২০১৫)। "ঈদের ছবি 'নদীজন': মানুষ, প্রকৃতি, রাজনীতির কথা"বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৭ 
  6. "এবার শাহনেওয়াজ কাকলীর 'নদীজন'"দৈনিক প্রথম আলো। ২২ নভেম্বর ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৭ 
  7. "সেন্সরে আটকে গেল 'নদীজন'"যায়যায়দিন। ২৩ এপ্রিল ২০১৩। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৭ 
  8. "ব্যাঙ্গালুরু উৎসবে যাচ্ছে 'অাকাশ কত দূরে' ও 'নদীজন'"বাংলা ট্রিবিউন। ২৯ নভেম্বর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  9. "জেনেভা উৎসবে 'নদীজন' ও সামিয়া জামান"বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম। ২১ মার্চ ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৭ 
  10. "ঈদে চ্যানেল আইতে পাঁচ চলচ্চিত্রের প্রিমিয়ার"বাংলা মুভি ডেটাবেজ। ১৩ জুলাই ২০১৫। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৭ 
  11. বাবু, মাজহার (১৭ জুলাই ২০১৫)। "'নদীজন' নিয়ে আশাবাদী নিরব"এনটিভি অনলাইন। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  12. "নির্বাক, থমকে যাওয়া অনুভূতি..."বণিকবার্তা। ২৭ জুলাই ২০১৭। সংগ্রহের তারিখ ১ আগস্ট ২০১৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]

বহিঃসংযোগসম্পাদনা