তামাক (উদ্ভিদ)

গাছ

নিকোটিয়ানা ট্যাবাকাম বা তামাক হল একটি একবর্ষজীবী ভেষজ উদ্ভিদ। এটি চাষ করা হয়, নিকোটিয়ানা প্রজাতির সকল উদ্ভিদের মধ্যে এটি সবচেয়ে বেশি জন্মায় এবং এর পাতা বাণিজ্যিকভাবে বহু দেশে তামাক প্রক্রিয়াকরণের জন্য জন্মানো হয়। এটি ১ থেকে ২ মিটার (৩ থেকে ৬ ফুট) উচ্চতার হয়ে থাকে। এর পূর্বপুরুষ নিয়ে বন্য নিকোটিয়ানা প্রজাতির মধ্যে গবেষণা চলছে, তবে বিশ্বাস করা হয়, এটি নিকোটিয়ানা সিলেভেস্ট্রিস, নিকোটিয়ানা টোমেন্টোসিফর্মিস, এবং সম্ভবত নিকোটিয়ানা ওটোফোরা -এর সংকর। [১]

ইতিহাসসম্পাদনা

উদ্ভিদটি মূলত ক্যারিবীয় অঞ্চলের, যেখানে আরাওয়াক/টাইনো লোকেরা এটি ব্যবহার করত এবং তারাই প্রথম এর চাষ করেছিল।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন] ১৫৬০ সালে, পর্তুগালে তৎকালীন ফরাসী রাষ্ট্রদূত জাঁ নিকট ডি ভিলেমিন ফ্রেঞ্চ কোর্টে তামাকের বীজ এবং পাতা "আশ্চর্য ওষুধ" হিসাবে এনেছিলেন। ১৫৮৬ খ্রিস্টাব্দে উদ্ভিদবিজ্ঞানী জ্যাকুস ডালেচ্যাম্পস এর নাম দেন হার্বা নিকোটিয়ানা, যা লিনিয়াস কর্তৃক গৃহীত হয়েছিল। এটি প্রথমে একটি বাহারি উদ্ভিদ হিসাবে বিবেচিত হত, তারপরে এটি একটি সাধারণ নস্য এবং তামাক উদ্ভিদ হওয়ার আগে এটি সর্বরোগনিবারক ঔষধ হিসাবে ব্যবহৃত হত। ১৭শ শতাব্দীর শুরুতে তামাক আফ্রিকাতে এসেছে। পাতার নির্যাস ২০শ শতাব্দীর শুরু পর্যন্ত একটি জনপ্রিয় কীটনাশক ছিল। ১৮৫১ সালে, বেলজিয়ামের রসায়নবিদ জিন স্টাস তামাক নিষ্কাশনকে হত্যার বিষ হিসাবে নথিবদ্ধ করেছিলেন। বেলজিয়ামের কাউন্ট হিপোলিট ভিসার্ট ডি বোকার্মে কিছু জরুরি টাকার প্রয়োজনে তার শ্যালককে তামাকের পাতার নির্যাসের বিষ প্রয়োগ করেছিল। ফরেনসিক আইনশাস্ত্রে এটিই ছিল উপক্ষার ব্যবহারের প্রথম প্রমাণ। [২]

বাসস্থান এবং বাস্তুবিদ্যাসম্পাদনা

এন. ট্যাবাকাম একটি ক্রান্তীয় এবং প্রায় ক্রান্তীয় আমেরিকা স্থানীয় কিন্তু এখন বাণিজ্যিকভাবে বিশ্বব্যাপী চাষ হচ্ছে। অন্যান্য জাতগুলি বাহিরি উদ্ভিদ হিসাবে চাষ করা হয় বা আগাছা হিসাবে প্রদর্শিত হয়।

এন. ট্যাবাকাম তাপমাত্রা, বায়ু, স্থলজ আর্দ্রতা এবং জমির ধরনের ক্ষেত্রে সংবেদনশীল। ২০–৩০ °সে (৬৮–৮৬ °ফা) তাপমাত্রা পর্যাপ্ত বৃদ্ধির জন্য সেরা; এছাড়া ৮০ থেকে ৮৫% আর্দ্রতা এবং উচ্চ স্তরের নাইট্রোজেন সমৃদ্ধ মাটি এর জন্য সর্বোত্তম।

পরজীবীসম্পাদনা

আলু কন্দ মথ (ফথরিমি অপারকুলেলা) একটি অলিগোফেগাস পোকা যা তামাকের গাছের মতো সোলানাসেই পরিবারের গাছপালা খেতে পছন্দ করে। স্ত্রী পি. অপারকুলেলা তাদের ডিম পাড়ার জন্য পাতাগুলি ব্যবহার করে এবং ডিম থেকে বাইরে বেরিয়ে এই লার্ভা পাতার মেসোফিল বা টিস্যু খেয়ে ফেলে।

অংশ ব্যবহৃত হয়েছেসম্পাদনা

বীজ বাদে গাছের প্রায় প্রতিটি অংশেই নিকোটিন থাকে তবে ঘনত্ব নির্ভর করে এর প্রজাতি, জমির ধরন এবং আবহাওয়ার পরিস্থিতির উপর। উদ্ভিদের বয়সের সাথে নিকোটিনের ঘনত্ব বৃদ্ধি পায়। তামাক পাতায় ২ থেকে ৮% নিকোটিন থাকে ম্যালিক অ্যাসিড বা সাইট্রেট হিসাবে মিশ্রিত। পরিপক্ব উদ্ভিদে নিকোটিনের বিতরণ ব্যাপকভাবে পরিবর্তনশীল: মোট নিকোটিনের ৬৪% পাতায়, কাণ্ডে ১৮%, শিকড়ে ১৩%, এবং ফুলে ৫% বিদ্যমান।[তথ্যসূত্র প্রয়োজন]

প্রধান ব্যবহারসম্পাদনা

গাছের সমস্ত অংশে নিকোটিন থাকে, যা নিষ্কাশিত করে এবং কীটনাশক হিসাবে ব্যবহার করা যায়। শুকনো পাতাও ব্যবহার করা যেতে পারে; এগুলি শুকানোর পর ৬ মাস কার্যকর থাকে। পাতাগুলির রস পোকা বিতাড়ক হিসাবে শরীরে মাখানো যেতে পারে। শুকনো পাতা মাদক হিসাবে চিবানো যায়। শুকনো পাতা নস্য হিসাবে ব্যবহৃত বা ধূমপান করা যায়। এর মূল প্রজাতি যা ধূমপায়ীদের জন্য সিগারেট, সিগার এবং অন্যান্য পণ্য তৈরিতে ব্যবহৃত হয়। এর বীজ থেকে শুকনো তেল -ও পাওয়া যায়।

গ্যালারীসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Ren, Nan; Timko, Michael P. (২০০১)। "AFLP analysis of genetic polymorphism and evolutionary relationships among cultivated and wild Nicotiana species": 559–71। ডিওআই:10.1139/gen-44-4-559পিএমআইডি 11550889 
  2. Wennig, Robert (২০০৯)। "Back to the roots of modern analytical toxicology: Jean Servais Stas and the Bocarmé murder case": 153–5। ডিওআই:10.1002/dta.32পিএমআইডি 20355192 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা

  •   উইকিমিডিয়া কমন্সে Nicotiana tabacum সম্পর্কিত মিডিয়া দেখুন।