জিনজিরিলি মসজিদ, সেরেস

জিনজিরিলি মসজিদ ( গ্রিক: Ζινζιρλί Τζαμί,তুর্কি ভাষায় অর্থ "শিকলের মসজিদ"), গ্রিসের উত্তরাঞ্চলীয় সেরেস শহরের একটি ঐতিহাসিক মসজিদ । সেরেসের দক্ষিণ-পশ্চিম কোনে অবস্থিত ষোড়শ শতকে নির্মিত মসজিদটির স্থাপত্যরীতিতে মিমার সিনানের স্থাপত্যকৌশলের প্রভূত বৈশিষ্ট্য বিদ্যমান।

জিনজিরিলি মসজিদ
20111030 Zinzirli mosque Serres Greece 1.jpg
২০১১ সালে মসজিদের সম্মুখভাগ
ধর্ম
অন্তর্ভুক্তিইসলাম
অঞ্চলমধ্য মেসিডোনিয়া
পবিত্রীকৃত বছর১৬শ শতকের শেষের দিকে
অবস্থান
পৌরসভাসেরেস
দেশগ্রিস
জিনজিরিলি মসজিদ, সেরেস গ্রিস-এ অবস্থিত
জিনজিরিলি মসজিদ, সেরেস
গ্রিসের মধ্যে প্রদর্শিত
ভৌগোলিক স্থানাঙ্ক৪১°০৫′১৭.০″ উত্তর ২৩°৩৩′১৩.৪″ পূর্ব / ৪১.০৮৮০৫৬° উত্তর ২৩.৫৫৩৭২২° পূর্ব / 41.088056; 23.553722
স্থাপত্য
স্থাপত্য শৈলীইসলামি স্থাপত্য, অটোম্যান স্থাপত্য

বর্ণনাসম্পাদনা

মসজিদটি শহরের দক্ষিণ-পশ্চিম কোণে অবস্থিত। এটি একটি মাঝারি আকারের মসজিদ। যেখানে পূর্ব, উত্তর এবং পশ্চিম দিকে দুইতলা বিশিষ্ট পোর্টিকোসহ একটি কেন্দ্রীয়, বর্গাকার নামাজের স্থান রয়েছে; কিবলা দক্ষিণ দিকে অবস্থিত, যখন প্রবেশ পথটি উত্তর দিক থেকে। কেন্দ্রীয় স্থানটি একটি গম্বুজ দ্বারা আচ্ছাদিত, অন্যদিকে পোর্টিকোগুলি শীর্ষস্থানীয় শিবিরের গম্বুজ দ্বারা। মিম্বর ভবনের দক্ষিণ-পশ্চিম কোণে অবস্থিত। এটি মার্বেল দ্বারা তৈরি, এবং গ্রিসে আজও টিকে থাকা অন্যতম সেরা মার্বেলের কাজের উদাহরণ। প্রবেশদ্বারে কলামগুলির মধ্যে ফাঁকা স্থানগুলির উপরে ছোট গম্বুজগুলি শীর্ষে একটি কলাম-সমর্থিত বারান্দা বৈশিষ্ট্যযুক্ত। মূল কাঠামোর গাঁথুনীতে ইট দিয়ে ঘেরা বা রুক্ষ পাথরের বৈশিষ্ট্য রয়েছে, বারান্দাটি পুরোপুরি চুনাপাথরের আশলারযুক্ত।[১]

স্থাপত্য বৈশিষ্ট্যসম্পাদনা

মসজিদটির স্থাপত্যরীতি এবং ভুমি পরিকল্পনা ও নকশায় ১৬শ শতাব্দীর শেষের দিকের অটোম্যান স্থাপত্যরীতির সাধারণ বৈশিষ্ট্য বিদ্যামান। এতে মিমার সিনানের স্থাপত্য কৌশল অনুসরণ করা হয়েছে, যা একই সময় ইস্তাম্বুলের মসজিদ্গুলিতে দেখা যায়।[১]

চিত্রশালাসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Dadaki, Spyridoula। "Ζινζιρλί Tζαμί: Περιγραφή" (গ্রিক ভাষায়)। Hellenic Ministry of Culture। সংগ্রহের তারিখ ২ ডিসেম্বর ২০১৮