গুন্ডা (চলচ্চিত্র)

আলমগীর কুমকুম পরিচালিত ১৯৭৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত বাংলা চলচ্চিত্র

গুন্ডা ১৯৭৬ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত বাংলাদেশী বাংলা ভাষার চলচ্চিত্র। ছায়াছবিটি পরিচালনা করেছেন আলমগীর কুমকুম[১] এটি ঔপন্যাসিক অ্যান্থনি হপ-এর প্রিজনার অব জেন্দা উপন্যাস অবলম্বনে নির্মিত। ছায়াছবিটির চিত্রনাট্য লিখেছেন পরিচালক আলমগীর কুমকুম এবং সংলাপ লিখেছেন আশীষ কুমার লোহ। এতে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন কবরী সারোয়ার, রাজ্জাক, খলিল উল্লাহ খান, আলমগীর প্রমুখ।[২] অভিনেতা খলিল উল্লাহ খান এই চলচ্চিত্রটিতে অভিনয়ের মাধ্যমে ২য় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ পার্শ্বচরিত্রে অভিনেতার পুরস্কার অর্জন করেন।[৩]

গুন্ডা
গুন্ডা (১৯৭৬) চলচ্চিত্রের পোস্টার.jpg
পরিচালকআলমগীর কুমকুম
প্রযোজককবরী চৌধুরী
চিত্রনাট্যকারআলমগীর কুমকুম
কাহিনিকারআশীষ কুমার লোহ (সংলাপ)
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকারআলম খান
চিত্রগ্রাহকআব্দুল লতিফ বাচ্চু
সম্পাদকআবু তালেব
মুক্তি৬ আগস্ট, ১৯৭৬
দেশবাংলাদেশ
ভাষাবাংলা ভাষা

কাহিনী সংক্ষেপসম্পাদনা

বসতিতে বড় হওয়া সুন্দরী বীনা অন্যের পকেট মেরে ও ছিনতাই করে জীবিকা নির্বাহ করে। একদিন বাহাদুরের পকেট মারতে গিয়ে ধরা খায়। আরেকদিন বিশাল সম্পত্তির অধিকারী এক মহিলার বিশ্বস্ত কর্মচারী খায়রুল আলমের টাকা-পয়সা ছিনতাই করে। খায়রুল আলম বাহাদুরকে দায়িত্ব দেয় বীনাকে খুঁজে দিতে যাতে সে প্রিন্সেস সুলতানা পরিবর্তে তাকে তার মালকিনের কাছে নিয়ে যাতে পারে। বাহাদুর সম্পত্তির অর্ধেক পাওয়ার আশায় রাজি হয়। বাহাদুর মিথ্যে খুনের ঘটনা সাজিয়ে বীনাকে রাজি করায়। খায়রুল আলম ও বাহাদুর বীনাকে চৌধুরী মঞ্জিলে নিয়ে যায়। কিন্তু সেখানে তাদের আসল পরিচয় জানতে পেরে সকলে বিস্মিত হয়।

শ্রেষ্ঠাংশেসম্পাদনা

সঙ্গীতসম্পাদনা

গুন্ডা ছায়াছবিটির সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন আলম খান। গীত রচনা করেছেন মুকুল চৌধুরী। গানে কণ্ঠ দিয়েছেন সাবিনা ইয়াসমিন, মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী, ও ফেরদৌস ওয়াহিদ

গানের তালিকাসম্পাদনা

নং.শিরোনামকণ্ঠদৈর্ঘ্য
১."আমি বসতির রানী"সাবিনা ইয়াসমিন 
২."যেওনা প্রিয়তমা"মোহাম্মদ আলী সিদ্দিকী 
৩."আমি এক মাতাল"ফেরদৌস ওয়াহিদ 
৪."ভয় ভয় লাগে যে"সাবিনা ইয়াসমিনফেরদৌস ওয়াহিদ 

পুরস্কারসম্পাদনা

২য় জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারঃ

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "বিশিষ্ট চলচ্চিত্র পরিচালক আলমগীর কুমকুম আর নেই"দৈনিক আমাদের সময়। ঢাকা, বাংলাদেশ। ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১২। সংগ্রহের তারিখ ৯ আগস্ট ২০১৬ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. "একজন অনন্য আলমগীর"দৈনিক ইত্তেফাক। ঢাকা, বাংলাদেশ। ৪ সেপ্টেম্বর ২০১৪। সংগ্রহের তারিখ ৯ আগস্ট ২০১৬ 
  3. চিন্তামন তুষার (১০ মে ২০১৪)। "'এবার আমাদের দেওয়ার পালা'"বিডিনিউজ। সংগ্রহের তারিখ ৯ আগস্ট ২০১৬ 
  4. রাশেদ শাওন (অক্টোবর ২৪, ২০১২)। "চার দশকে আমাদের সেরা চলচ্চিত্রগুলো"বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম। ২৮ ডিসেম্বর ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৯ আগস্ট ২০১৬ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা