গণতন্ত্রী পার্টি

বাংলাদেশি রাজনৈতিক দল

গণতন্ত্রী পার্টি বাংলাদেশের একটি বামপন্থী রাজনৈতিক দল।[১] দলটি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাথে যুক্ত।[২] ড. শাহাদাত হোসেন গণতন্ত্র পার্টির সাধারণ সম্পাদক।[৩]

গণতন্ত্রী পার্টি
Ganatantri Party
প্রেসিডেন্টব্যারিষ্টার মোঃ আরশ আলী
মহাসচিবডাঃ শাহাদাত হোসেন
প্রতিষ্ঠা১৯৮৬ সালে
সদর দপ্তরঢাকা, বাংলাদেশ
নির্বাচনী প্রতীক
কবুতর
কবুতর.png

ইতিহাসসম্পাদনা

সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত গণতন্ত্রী পার্টির মনোনয়নে সুনামগঞ্জ-২ আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন।[৪] ২০০১ সালে তিনি গণতন্ত্রী পার্টি থেকে অব্যাহতি নিয়ে আওয়ামী লীগে যোগ দেন।[৫] দলটির সাবেক সভাপতি নুরুল ইসলাম ২০০৯ সালের ডিসেম্বরে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নোয়াখালী-২ আসনের মহাজোটের প্রার্থী হওয়ার আগে তার বাড়িতে আগুনে লাগে এবং তিনি মারা যান।[৬] তার সহযোগী ও পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে অভিযোগ ছিল যে তাকে হত্যা করা হয়েছে।[৭][৮]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Cops foil left parties' procession"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ১ জুলাই ২০১১। সংগ্রহের তারিখ ১৪ এপ্রিল ২০২০ 
  2. এশিয়ান সার্ভে (ইংরেজু ভাষায়)। ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া প্রেস। ১৯৯৪। পৃষ্ঠা ৭৪২। 
  3. "Don't enforce strike by holding people hostage: Nasim"। দি ইন্ডিপেন্ডেন্ট। সংগ্রহের তারিখ ১৪ এপ্রিল ২০২০ 
  4. "Parliament Election Result of 1991,1996,2001Bangladesh Election Information and Statistics"। ২৯ ডিসেম্বর ২০০৮। ২৯ ডিসেম্বর ২০০৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৪ এপ্রিল ২০২০ 
  5. "Four-party loses all Sylhet seats"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ৩০ ডিসেম্বর ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ১৪ এপ্রিল ২০২০ 
  6. "We are profoundly shocked and saddened"দ্য ডেইলি স্টার (ইংরেজি ভাষায়)। ৫ ডিসেম্বর ২০০৮। সংগ্রহের তারিখ ১৪ এপ্রিল ২০২০ 
  7. "Govt nonchalant about Nurul Islam killing"। ঢাকা ট্রিবিউন। সংগ্রহের তারিখ ১৪ এপ্রিল ২০২০ 
  8. "Fresh probe into death of Nurul Islam demanded"। দ্য ডেইলি স্টার। সংগ্রহের তারিখ ১৪ এপ্রিল ২০২০