কে এম খালিদ

(কে এম খালিদ বাবু থেকে পুনর্নির্দেশিত)

কে এম খালিদ বাবু (জন্ম ৪ আগস্ট ১৯৫৫) বাংলাদেশের সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের রাজনীতিবিদ। তিনি নবম ও একাদশ জাতীয় সংসদে ময়মনসিংহ-৫ আসন থেকে নির্বাচিত হন। ২০১৯ সালের ৭ জানুয়ারি শেখ হাসিনার চতুর্থ মন্ত্রিসভার সদস্য হিসেবে শপথ গ্রহণ করেন।[২][৩]

কে এম খালিদ বাবু
KM Khalid Babu 1 (1).jpg
সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
৭ জানুয়ারি ২০১৯
পূর্বসূরীআসাদুজ্জামান নূর
ময়মনসিংহ-৫ আসন আসনের
সংসদ সদস্য
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
৩ জানুয়ারি ২০১৯
পূর্বসূরীসালাহউদ্দিন আহমেদ মুক্তি
কাজের মেয়াদ
৬ জাুয়ারি ২০০৯ – ২৯ জানুয়ারি ২০১৪
ব্যক্তিগত বিবরণ
জন্ম (1955-08-04) ৪ আগস্ট ১৯৫৫ (বয়স ৬৪)
ময়মনসিংহ, পূর্ববঙ্গ
জাতীয়তাবাংলাদেশি
রাজনৈতিক দলবাংলাদেশ আওয়ামী লীগ
দাম্পত্য সঙ্গীসোহেলা আক্তার [১]
পিতামাতা
  • মরহুম আবদুল ওয়াদুদ (পিতা)
  • রাবেয়া খাতুন (মাতা)[১]
শিক্ষাএমএ, এলএলবি
প্রাক্তন শিক্ষার্থীআনন্দ মোহন কলেজ, ময়মনসিংহ
পেশারাজনীতি
ওয়েবসাইটhttp://www.khalidbabu.com

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

খালিদ ১৯৫৫ সালের ৪ আগস্ট ময়মনসিংহ জেলায় জন্মগ্রহণ করেন।[৪] তার পিতার নাম এম আবদুল ওয়াদুদ ও মাতা রাবেয়া খাতুন। তিনি প্রথমে আনন্দ মোহন কলেজে ও পরবর্তীতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষা লাভ করেন।[৪]

রাজনৈতিক জীবনসম্পাদনা

ছাত্র রাজনীতিসম্পাদনা

খালিদ আনন্দ মোহন কলেজের ছাত্র থাকাবস্থায় রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত হন। ১৯৭৭ থেকে ১৯৮০ সাল পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশ ছাত্রলীগের আনন্দ মোহন শাখার আহবায়ক ছিলেন। ১৯৮০-১৯৮১ মেয়াদে কলেজের ছাত্র সংসদের সহ-সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৮১ থেকে ১৯৮৩ সাল পর্যন্ত ছাত্রলীগের ময়মনসিংহ জেলা শাখার সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।[৪]

১৯৮৭ থেকে বর্তমানসম্পাদনা

খালিদ এরপর আওয়ামী যুবলীগে যোগদান করেন এবং ১৯৮৭ থেকে ১৯৯৪ সাল পর্যন্ত সংগঠনের কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য ছিলেন। ১৯৯৫ সালে তিনি আওয়ামী লীগে যোগদান করেন। ১৯৯৭ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত আওয়ামী লীগের ময়মনসিংহ জেলা শাখার যুগ্ম- সাধারণ সম্পাদক এবং ২০০৪ থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত সহ-সভাপতি ছিলেন। পরবর্তীতে ময়মনসিংহ জেলার মুক্তাগাছা উপজেলা শাখার সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব নেন।[৪]

২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি আওয়ামী লীগের মনোনয়নে ময়মনসিংহ-৫ আসন থেকে প্রথমবারেরমত সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এবং নবম জাতীয় সংসদে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৮ সালের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি পুনরায় একই আসন থেকে একাদশ জাতীয় সংসদে নির্বাচিত হন। ২০১৯ সালের ৭ জানুয়ারি থেকে তিনি শেখ হাসিনার চতুর্থ মন্ত্রিসভায় সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করছেন।[৫]

ব্যক্তিগত জীবনসম্পাদনা

খালিদ ব্যক্তিগত জীবনে সোহেলা আক্তারের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন।[৪] এই দম্পতির তিন সন্তান রয়েছে।[৪]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "পারিবারিক পরিচিতি"www.khalidbabu.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০১-০৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  2. "প্রথমবারের মতো এমপি হয়ে মন্ত্রী হলেন যারা"www.jugantor.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০১-০৭ 
  3. "সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পেলেন কে এম খালিদ বাবু"www.bdtodays.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০১-০৭ [স্থায়ীভাবে অকার্যকর সংযোগ]
  4. "কে এম খালিদ বাবু"সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০২০ 
  5. "বেশি মন্ত্রীর প্রত্যাশা তৃণমূলে"সমকাল। সংগ্রহের তারিখ ২৩ জানুয়ারি ২০২০