কাজী শহীদুল্লাহ

বাংলাদেশী শিক্ষাবিদ

কাজী শহীদুল্লাহ একজন বাংলাদেশী শিক্ষাবিদ.বর্তমানে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন এর চেয়ারম্যান। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর প্রাক্তন ভাইস চ্যান্সেলর [৩][৪]

কাজী শহিদুল্লাহ
চেয়ারম্যান বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন
দায়িত্বাধীন
অধিকৃত কার্যালয়
২২ মে ২০১৯[১]
পূর্বসূরীইউসুফ আলী মোল্লা
ভাইস-চ্যান্সেলর জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়
কাজের মেয়াদ
২৪ ফ্রেবুয়ারী ২০০৯ – ৫ মার্চ ২০১৩
পূর্বসূরীএম মোফাখারুল ইসলাম
উত্তরসূরীহারুন অর রশিদ
ব্যক্তিগত বিবরণ
জাতীয়তাবাংলাদেশী
আত্মীয়স্বজনকাজী জাফরউল্লাহ (ভাই)[২]
প্রাক্তন শিক্ষার্থীঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়
ব্রিটিশ কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়
ওয়েস্টান বিশ্ববিদ্যালয় অস্ট্রেলিয়া

জন্ম ও পড়ালেখাসম্পাদনা

অধ্যাপক কাজী শহীদুল্লাহ ১৯৬৭ সালে সেইন্ট গ্রেগরী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করেন প্রথম বিভাগে ।১৯৬৯ সালে ঢাকা কলেজ থেকে এইচ.এস.সি করেন এবং বোর্ডের মেধা তালিকায় ১ম স্থান অর্জন করেন।ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এ ইতিহাস বিভাগ থেকে বি.এ (অনার্স) ১৯৭২ এবং এম.এ. ডিগ্রি (১৯৮৩) লাভ করেন এবং উভয় পরীক্ষায় প্রথম স্থান অর্জন করেন। পরবর্তীকালে, তিনি কানাডার ব্রিটিশ কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উচ্চতর পড়াশোনা করেন, যেখান থেকে ১৯৭৯ সালে তিনি এমএ ডিগ্রি লাভ করেন এবং ১৯৮৪ সালে তিনি পশ্চিম অস্ট্রেলিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেছিলেন [৫]

কর্মজীবনসম্পাদনা

অধ্যাপক কাজী শহীদুল্লাহ ১৯৭৬ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ইতিহাসের প্রভাষক হিসাবে তাঁর শিক্ষক জীবন শুরু করেছিলেন। ১৯৯১ সালের ফেব্রুয়ারিতে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর হন। তিনি বিভিন্ন প্রশাসনিক সক্ষমতাতেও এই প্রতিষ্ঠানের দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ২০০২ থেকে ২০০৫ সাল পর্যন্ত ইতিহাস বিভাগের প্রধান ছিলেন। ১৯৯৭ থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত তিনি কলা অনুষদের নির্বাচিত ডিইএন হিসাবে টানা তিনবার দায়িত্ব পালন করেছিলেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সিনেট এ নির্বাচিত হয়েছিলেন এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্বাচিত সদস্যও ছিলেন।টানা দশ বছর সিন্ডিকেট নির্বাচনে বিজয়ী লাভ করেন [৬] । ২০০৯ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এর ভাইস-চ্যান্সেলর পদে দায়িত্ব পালন করেন।বর্তমানে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন এর চেয়াম্যান পদে দায়িত্ব পালন করেন [৭]

গবেষণাসম্পাদনা

১৯৮৯ সালে নফিল্ড সহকর্মী হিসাবে, অধ্যাপক কাজী শহিদুল্লাহ যুক্তরাজ্য এবং অস্ট্রেলিয়ায় স্নাতকোত্তর গবেষণা কাজ করেছেন। কমনওয়েলথ ইনস্টিটিউট, ইউ.কে.-এর সাথে যুক্ত ছিলেন এবং১৯৯২ সালে তিনি কমনওয়েলথ একাডেমিক সহকর্মী ছিলেন এবং লন্ডন বিশ্ববিদ্যাটলয়ের স্কুল অফ ওরিয়েন্টাল এবং আফ্রিকান স্টাডিজের সাথে যুক্ত ছিলেন। ১৯৯৩ থেকে ১৯৯৫ সাল পর্যন্ত শহীদুল্লাহ অস্ট্রেলিয়ার কার্টিন ইউনিভার্সিটি অব টেকনোলজি ইউনিভার্সিটি, দক্ষিণ এশিয়া গবেষণা ইউনিট সহকর্মী হিসাবে পোস্ট-ডক্টরাল গবেষণা কাজ করেছেন। তিনি একই সময়ে কার্টিন বিশ্ববিদ্যালয় এবং পশ্চিম অস্ট্রেলিয়া বিশ্ববিদ্যালয় দ্বারা যৌথভাবে পরিচালিত একটি সংস্থা ইন্ডিয়ান ওশান সেন্টার ফর পিস স্টাডিজের পরিদর্শক ছিলেন।তিনি মেলবোর্নে অবস্থিত ন্যাশনাল সেন্টার ফর সাউথ এশিয়ান স্টাডিজের সাথেও যুক্ত ছিলেন। কার্টিন বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যাপক শহীদুল্লাহ স্কুল অব সোশ্যাল সায়েন্সেস এবং এশিয়ান ল্যাঙ্গুয়েজে ভারত মহাসাগর অঞ্চলের ইতিহাস বিষয়ে একটি কোর্সও পড়াতেন [৬]

প্রকাশনাসম্পাদনা

অধ্যাপক কাজী শহীদুল্লাহ দুটি উপন্যাস প্রকাশ করেছেন, মধ্য-উনিশ শতকের ডিভন এন্ড সাফলক (ঢাকা: ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেড, ১৯৮৪) এবং পাঠশালাস বিদ্যালয়ে: বাংলায় আদিবাসী প্রাথমিক শিক্ষার বিকাশ, ১৮৪৪-১৯০৫ (কলকাতা: ফার্মা কেএলএম ১৯৮৭) তিনি অংশগ্রহণ করেছেন দক্ষিণ এশিয়ায় ট্রান্সমিশন অব নলেজ (অক্সফোর্ড: নয়াদিল্লি ১৯৯৬) -তে একটি প্রবন্ধও অবদান রেখেছেন এবং ভারতীয় অর্থনৈতিক ও সামাজিক ইতিহাস পর্যালোচনা, ঐতিহাসিক স্টাডিজের ত্রৈমাসিক পর্যালোচনা, জার্নালের মতো জাতীয় ও আন্তর্জাতিক জার্নালেও তিনি নিবন্ধ অবদান রেখেছেন। পাকিস্তান হিস্টোরিকাল সোসাইটি, এশিয়াটিক সোসাইটি অব বাংলাদেশ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় স্টাডিজের জার্নাল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় স্টাডিজ, পার্ট বি এর সম্পাদকীয় বোর্ডে দায়িত্ব পালন করেছেন এবং সমকালীন দক্ষিণ এশিয়ার রিজিওনাল এডিটর ছিলেন, যেটি একটি বহুল খ্যাতিমান আন্তর্জাতিক জার্নাল থেকে প্রকাশিত হয়েছে। কারফ্যাক্স পাবলিশিং কোম্পানির কুইন এলিজাবেথ হাউস, অক্সফোর্ড। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, জাপান, ইরান, পাকিস্তান এবং নেপালের বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের বিভিন্ন সেমিনারে বক্তব্য রেখেছেন।

পারিবারিক জীবনসম্পাদনা

তিনি বিবাহ করেন শবনম শহীদুল্লাহ কে। তাদের তিনজন সন্তান রয়েছে যথাক্রমে নাতাশা,রিয়াদ,নাদের।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Prof Kazi Shahidullah new UGC chairman"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৯-০৫-২২। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৫-২৩ 
  2. "Begum Zebunnessa and Kazi Mahboobullah Janakalyan Trust Founders" (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-২৬ 
  3. "National University Bangladesh"www.nu.ac.bd (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-২১ 
  4. "NU, JagU get new VCs"। bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৮-১০-২৬ 
  5. "জেবরুন্নেসা ফাউন্ডেশন"। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  6. "জেবরুন্নেসা ফাউন্ডেশন"। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ 
  7. "ইউজিসির নতুন চেয়ারম্যান ড. কাজী শহীদুল্লাহ"। সংগ্রহের তারিখ ১১ ডিসেম্বর ২০১৯