প্রধান মেনু খুলুন

এম. চিন্নাস্বামী স্টেডিয়াম

এম. চিন্নাস্বামী স্টেডিয়াম (কন্নড়: ಎಂ ಚಿನ್ನಸ್ವಾಮಿ ಕ್ರೀಡಾಂಗಣ) কর্ণাটকের বেঙ্গালুরু এলাকায় অবস্থিত ভারতের অন্যতম আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়াম। পূর্বে কর্ণাটক স্টেট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন (কেএসসিএ) নামে এটি পরিচিত ছিল। পরবর্তীতে কেএসসিএতে চার দশকেরও অধিক সময়ে জড়িত ও ১৯৭৭ থেকে ১৯৮০ মেয়াদে বিসিসিআইয়ের সভাপতি এম. চিন্নাস্বামী’র প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শনপূর্বক বর্তমান নামে পরিচিতি ঘটানো হয়েছে।

এম. চিন্নাস্বামী স্টেডিয়াম
Chinnaswamy Stadium MI vs RCB.jpg
M. Chinnaswamy Stadium
স্টেডিয়ামের তথ্যাবলী
অবস্থানBangalore
প্রতিষ্ঠাকাল1969
ধারন ক্ষমতা35,000[১]
স্বত্ত্বাধিকারীGovernment of Karnataka
পরিচালনায়Karnataka State Cricket Association
অন্যান্যKarnataka cricket team
Royal Challengers Bangalore
প্রান্ত
Pavilion End
BEML End
প্রথম টেস্ট22 – 27 Nov 1974: India বনাম West Indies
শেষ টেস্ট14th Nov - 18th Nov 2015: India বনাম South Africa
প্রথম ওডিআই26 Sep 1982: India বনাম Sri Lanka
শেষ ওডিআই2 Nov 2013: India বনাম Australia
26 September 2012 অনুযায়ী
উৎস: M. Chinnaswamy Stadium, Cricinfo

স্টেডিয়ামের দর্শক ধারণ সক্ষমতা ৩৬,০০০। টেস্ট, ওডিআই, প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটসহ সঙ্গীত ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান নিয়মিতভাবে এখানে অনুষ্ঠিত হয়। কর্ণাটক রাজ্য ক্রিকেট দল ও ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুরু দলের প্রধান অনুশীলনী মাঠ হিসেবে এটি ব্যবহৃত হয়।

কর্ণাটক সরকারের অর্থায়ণে ১৯৬৯ সালে এর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়। ১৯৭০ সালে এর নির্মাণকার্য শুরু হয়। ১৯৭২-৭৩ মৌসুমে প্রথমবারের মতো প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেট খেলার আয়োজন করা হয়েছিল। ১৯৭৪-৭৫ মৌসুমে ভারত সফরে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের মধ্যকার খেলায় এটি টেস্ট মর্যাদার অধিকারী হয়।

২২-২৯ নভেম্বর, ১৯৭৪ তারিখে অনুষ্ঠিত টেস্টে ক্লাইভ লয়েডের নেতৃত্বাধীন ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিখ্যাত ব্যাটিং প্রতিভা ভিভ রিচার্ডসগর্ডন গ্রীনিজের অভিষেক হয়েছিল। দলটি পতৌদি'র ভারত দলকে ২৫৬ রানের ব্যবধানে পরাজিত করে। ১৯৭৬-৭৭ মৌসুমে টনি গ্রেগের ইংরেজ দলের বিপক্ষে ভারত এ মাঠে প্রথম জয়ী হয়। ৬ সেপ্টেম্বর, ১৯৮২ তারিখে মাঠে অনুষ্ঠিত প্রথম ওডিআইয়ে শ্রীলঙ্কা দল ৬ উইকেটে হারে।

পরিচ্ছেদসমূহ

১৯৮৭ ক্রিকেট বিশ্বকাপসম্পাদনা

বিশ্বকাপে গ্রুপ পর্বের একটি ম্যাচ ই এ মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। সেটা ভারত বনাম নিউজিলান্ডের ম্যাচ।

১৯৯৬ ক্রিকেট বিশ্বকাপসম্পাদনা

বিশ্বকাপে কোয়ার্টার ফাইনালের একটি ম্যাচ-ই একমাত্র মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। সেটা ভারত বনাম পাকিস্তানের ম্যাচ। ১৯৯৬ সালের উইলস বিশ্বকাপ উপলক্ষে স্টেডিয়ামে প্রথম ফ্লাডলাইট প্রতিস্থাপন করা হয়। ৯ মার্চ, ১৯৯৬ তারিখে ফ্লাডলাইটের আলোয় কোয়ার্টার-ফাইনালে চীর-প্রতিদ্বন্দ্বী ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে অনুষ্ঠিত হয়। এতে ভারত নাটকীয়ভাবে ৩৮ রানে জয়ী হয়।

২০১১ ক্রিকেট বিশ্বকাপসম্পাদনা

বিশ্বকাপের মোট ৫টি গ্রুপ ম্যাচ এই মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। তার মধ্যে ভারত বনাম ইংল্যান্ডের ম্যাচ গুরুত্বপূর্ণ । ম্যাচটি টাই হয়ে যায়।

২০১৩ আইপিএলসম্পাদনা

এই মাঠে ক্রিস গেইল রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হয়ে পুনে ওয়ারিয়র্সের বিপক্ষে টি-টুয়েন্টি এবং ক্রিকেটের যে-কোন ফরম্যাটের ইতিহাসে দ্রুততম সেঞ্চুরি। ম্যাচে তিনি অপরাজিত ১৭৫* (৬৬ বল) রান করেন।

২০১৪ আইপিএলসম্পাদনা

টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচটি এই মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। ভালো ব্যাটিং পিচে এই খেলায় কলকাতা যেতে ও দ্বিতীয়বারের মতো আইপিএল শিরোপা পায়।

২০১৬ আইসিসি বিশ্ব টুয়েন্টি২০সম্পাদনা

টুর্নামেন্টের মোট ৩টি গ্রুপ ম্যাচ এই মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। তার মধ্যে বাংলাদেশ - অস্ট্রেলিয়া এবং ভারত-বাংলাদেশ ম্যাচ গুরুত্বপূর্ণ । দুটো ম্যাচ ই অত্যন্ত উত্তেজনাপূর্ণ হয়।

২০১৬ ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগসম্পাদনা

টুর্নামেন্টের ফাইনাল ম্যাচটি এই মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। ভালো ব্যাটিং পিচে এই খেলায় হায়দরাবাদ জয় লাভ করে ও প্রথমবারের মতো আইপিএল শিরোপা পায়।

টি২০ আন্তর্জাতিক কীর্তিসম্পাদনা

এখনো অব্দি ১টি অএশীয় দেশ ভারতের বিরুদ্ধে এই মাঠে খেলেছে (ইংল্যান্ড) । তারা জয় পায়নি।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা