উকবা ইবনে নাফি

মুসলিম জেনারেল, মুসলিম বিশ্বের আলেকজান্ডার

উকবা ইবনে নাফি (আরবি: عقبة بن نافع‎‎, ৬২২–৬৮৩) ছিলেন উমাইয়া খলিফা প্রথম মুয়াবিয়াপ্রথম ইয়াজিদের শাসনামলের একজন আরব সেনাপতি। তিনি মুসলিমদের মাগরেব বিজয়ের সূচনা করেন।

উকবা ইবনে নাফি
عقبة بن نافع
Statue de Okba ibn Nafi al Fihri en Algérie.jpg
উকাবা ইবনে নাফির ভাস্কর, আলজেরিয়া
জন্ম৬২২
মক্কা, আরব উপদ্বীপ (আধুনিক সৌদি আরব)
মৃত্যু৬৮৩
সিদি উকবা, আলজেরিয়া
আনুগত্যউমাইয়া খিলাফত
সার্ভিস/শাখাসেনাবাহিনী
কার্যকাল৬৭০–৬৮৩
পদমর্যাদাসেনাপতি
উকবা ইবনে নাফি কর্তৃক প্রতিষ্ঠিত কাইরুয়ান জামে মসজিদ, কাইরুয়ান, তিউনিসিয়া

উকবা ছিলেন আমর ইবনুল আসের ভ্রাতুষ্পুত্র। কুরাইশ বংশের বনু ফিহরি শাখার সাথে সম্পর্কিত হওয়ার কারণে তাকে অনেক সময় আল-ফিহরি পদবী দ্বারা সম্বোধন করা হয়। তার বংশধরদেরকে উকবি বা ফিহরি বলা হত। তিনি তিউনিসিয়ার কাইরুয়ান শহরের প্রতিষ্ঠাতা।

আমর ইবনুল আসের উত্তর আফ্রিকা অভিযানের সময় উকবা ইবনে নাফি তার সাথে অংশগ্রহণ করেছেন। তিনি প্রথমে বারকা শহর জয়ে অংশ নেন এবং ৬৪৪ সালে ত্রিপলিতানিয়া পৌছান। ৬৭০ সালে তিনি কমান্ডার হিসেবে তিনি একটি বাহিনীর নেতৃত্ব দেন। এই বাহিনী মিশরীয় মরুভূমি অতিক্রম করে এবং যাত্রাপথে নিয়মিত বিরতিতে সামরিক ছাউনি স্থাপন করে। বর্তমান তিউনিসিয়ায় তিনি বর্তমান তিউনিস থেকে ১৬০কিমি দক্ষিণে কাইরুয়ান শহর স্থাপন করেন। এই শহর পরবর্তীতে তার সামরিক কর্মকাণ্ডের ঘাঁটি হিসেবে ব্যবহৃত হয়েছে।

৬৮৩ সালে বিসক্রার নিকটে বার্বা‌র খ্রিষ্টান রাজা কুসাইলার দ্বারা উকবা ইবনে নাফি আক্রান্ত ও নিহত হন। তার সেনাবাহিনী কাইরুয়ান ত্যাগ করে বারকায় পিছু হটে তবে ৬৮৮ সালে শহরটি পুনরায় অধিকার করা হয়।[১]

আরও দেখুনসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. Conant, Jonathan (২০১২)। Staying Roman : conquest and identity in Africa and the Mediterranean, 439–700। Cambridge New York: Cambridge University Press। পৃষ্ঠা 280–281। আইএসবিএন 0521196973 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা