আলফাজ আহমেদ

বাংলাদেশি সাবেক ফুটবল খেলোয়াড়

মোহাম্মদ আলফাজ আহমেদ (জন্ম: ৩ জুন ১৯৭৩; আলফাজ আহমেদ নামে সুপরিচিত) হলেন একজন বাংলাদেশী সাবেক পেশাদার ফুটবল খেলোয়াড় এবং ম্যানেজার। আলফাজ তার খেলোয়াড়ি জীবনের অধিকাংশ সময় ঢাকা মোহামেডান এবং বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে একজন আক্রমণভাগের খেলোয়াড় হিসেবে খেলেছেন।

আলফাজ আহমেদ
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নাম মোহাম্মদ আলফাজ আহমেদ
জন্ম (1973-06-03) ৩ জুন ১৯৭৩ (বয়স ৪৯)
জন্ম স্থান সিলেট, বাংলাদেশ
মাঠে অবস্থান আক্রমণভাগের খেলোয়াড়
জ্যেষ্ঠ পর্যায়*
বছর দল ম্যাচ (গোল)
১৯৯৪ শেখ মনি আরামবাগ
১৯৯৫–১৯৯৯ ঢাকা মোহামেডান
২০০০–২০০১ মোহনবাগান
২০০১–২০০২ ঢাকা মোহামেডান
২০০৩ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ (৩)
২০০৪ ব্রাদার্স ইউনিয়ন
২০০৫–২০০৬ ঢাকা মোহামেডান
২০০৭ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ (৮)
২০০৮–২০০৯ শেখ রাসেল ২০ (১৮)
২০০৯–২০১০ আরামবাগ (১২)
২০১০–২০১১ ঢাকা আবাহনী
২০১২ বিজেএমসি
২০১২–২০১৩ ঢাকা মোহামেডান
জাতীয় দল
১৯৯৫–২০০৮ বাংলাদেশ ৫২ (১১)
পরিচালিত দল
২০২০ উত্তর বারিধারা
* শুধুমাত্র ঘরোয়া লিগে ক্লাবের হয়ে ম্যাচ ও গোলসংখ্যা গণনা করা হয়েছে

১৯৯৪ সালে, বাংলাদেশী ক্লাব শেখ মনি আরামবাগের হয়ে খেলার মাধ্যমে তিনি তার জ্যেষ্ঠ পর্যায়ের খেলোয়াড়ি জীবন শুরু করেছিলেন, যেখানে তিনি ১ মৌসুম অতিবাহিত করেছিলেন। অতঃপর ১৯৯৫–৯৬ মৌসুমে তিনি ঢাকা মোহামেডানে যোগদান করেছিলেন, ঢাকা মোহামেডানের হয়ে প্রথম বারে তিনি ২টি লীগ শিরোপা জয়লাভ করেছিলেন। ঢাকা মোহামেডানে ৪ মৌসুম অতিবাহিত করার পর ভারতীয় ক্লাব মোহনবাগানের সাথে চুক্তি স্বাক্ষর করেছিলেন। পরবর্তীকালে, তিনি ঢাকা মোহামেডান, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, ব্রাদার্স ইউনিয়ন, শেখ রাসেল, আরামবাগ, ঢাকা আবাহনী এবং বিজেএমসির মতো ক্লাবের হয়ে খেলছেন। সর্বশেষ ২০১২–১৩ মৌসুমে, তিনি বিজেএমসি হতে ঢাকা মোহামেডানে যোগদান করেছিলেন; ঢাকা মোহামেডানের হয়ে মাত্র ১ মৌসুম খেলার পর তিনি অবসর গ্রহণ করেছিলেন।

১৯৯৫ সালে, আলফাজ বাংলাদেশের হয়ে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অভিষেক করেছিলেন; বাংলাদেশের জার্সি গায়ে তিনি সর্বমোট ৫২ ম্যাচে ১১টি গোল করেছিলেন। তিনি বাংলাদেশের হয়ে সর্বমোট ২টি এএফসি এশিয়ান কাপে (২০০০ এবং ২০০৭) অংশগ্রহণ করেছিলেন।

খেলোয়াড়ি জীবনের ইতি টানার পর ২০২০ সালে, আলফাজ বাংলাদেশী ফুটবল ক্লাব উত্তর বারিধারার ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করার মাধ্যমে ম্যানেজার হিসেবে ফুটবল জগতে অভিষেক করেন। তিনি উত্তর বারিধারার হয়ে ১ মৌসুমরও কম সময় ম্যানেজারের দায়িত্ব পালন করেছেন।

দলগতভাবে, খেলোয়াড় হিসেবে আলফাজ সর্বমোট ১৩টি শিরোপা জয়লাভ করেছিলেন, যার মধ্যে ৭টি ঢাকা মোহামেডানের হয়ে, ১টি ঢাকা আবাহনীর হয়ে, ২টি মুক্তিযোদ্ধা সংসদের হয়ে, ১টি ব্রাদার্স ইউনিয়নের হয়ে এবং ২টি বাংলাদেশের হয়ে জয়লাভ করেছিলেন।

প্রারম্ভিক জীবনসম্পাদনা

মোহাম্মদ আলফাজ আহমেদ ১৯৭৩ সালের ৩রা জুন তারিখে বাংলাদেশের সিলেটে জন্মগ্রহণ করেছেন এবং সেখানেই তার শৈশব অতিবাহিত করেছেন।

আন্তর্জাতিক ফুটবলসম্পাদনা

১৯৯৫ সালের ২৫শে মার্চ তারিখে, মাত্র ২১ বছর ৯ মাস ২৩ দিন বয়সে, আলফাজ পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ১৯৯৫ দক্ষিণ এশীয় গোল্ড কাপের গ্রুপ পর্বের ম্যাচে অংশগ্রহণ করার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক ফুটবলে বাংলাদেশের হয়ে অভিষেক করেছিলেন। উক্ত ম্যাচের ৬০তম মিনিটে মধ্যমাঠের খেলোয়াড় মোহাম্মদ নুরুল মানিকের বদলি খেলোয়াড় হিসেবে তিনি মাঠে প্রবেশ করেছিলেন। ম্যাচটি বাংলাদেশ ১–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিল।[১] বাংলাদেশের হয়ে অভিষেকের বছরে আলফাজ সর্বমোট ৩ ম্যাচে অংশগ্রহণ করেছিলেন। জাতীয় দলের হয়ে অভিষেকের ২ বছর ৫ দিন পর, বাংলাদেশের জার্সি গায়ে প্রথম গোলটি করেছিলেন; ১৯৯৭ সালের ২৯শে মার্চ তারিখে, তাইওয়ানের বিরুদ্ধে ম্যাচে বাংলাদেশের প্রথম গোলটি করার মাধ্যমে তিনি আন্তর্জাতিক ফুটবলে তার প্রথম গোলটি করেছিলেন।

২০০৭ সালের ২২শে আগস্ট তারিখে তারিখে আলফাজ ভারতের নতুন দিল্লির আম্বেড়কর স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত কম্বোডিয়ার বিরুদ্ধে ম্যাচে অংশগ্রহণ করার মাধ্যমে তিনি বাংলাদেশের জার্সি গায়ে তার ৫০তম ম্যাচ খেলেছিলেন, ম্যাচটি ১–১ গোলে ড্র হয়েছিল, যেখানে তিনি ৫৭ মিনিট খেলেছিলেন। ২০০৮ সালের ১৩ই নভেম্বর তারিখে আলফাজ ৩৫ বছর বয়সে বাংলাদেশের তার সর্বশেষ ম্যাচটি খেলে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসর গ্রহণ করেছিলেন। উক্ত ম্যাচে বাংলাদেশ ২–০ গোলের ব্যবধানে পরাজিত হয়েছিল। আন্তর্জাতিক ফুটবলে, তার ১৪ বছরের খেলোয়াড়ি জীবনে তিনি সর্বমোট ৫২ ম্যাচে ১১টি গোল করেছিলেন।

পরিসংখ্যানসম্পাদনা

আন্তর্জাতিকসম্পাদনা

দল সাল ম্যাচ গোল
বাংলাদেশ ১৯৯৫
১৯৯৬
১৯৯৭
১৯৯৮
১৯৯৯
২০০০
২০০১
২০০২
২০০৩
২০০৪
২০০৫
২০০৬
২০০৭
২০০৮
সর্বমোট ৫২ ১১

আন্তর্জাতিক গোলসম্পাদনা

গোল তারিখ মাঠ প্রতিপক্ষ স্কোর ফলাফল প্রতিযোগিতা সূত্র
২৯ মার্চ ১৯৯৭ প্রিন্স আব্দুল্লাহ আল ফয়সাল স্টেডিয়াম, জেদ্দা, সৌদি আরব   চীনা তাইপেই –১ ২–১ ১৯৯৮ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
২৪ এপ্রিল ১৯৯৭ ফতোরদা স্টেডিয়াম, গোয়া, ভারত   পাকিস্তান –০ ৪–০ ১৯৯৯ সাফ গোল্ড কাপ
২৯ এপ্রিল ১৯৯৭     নেপাল –০ ২–১
৪ অক্টোবর ১৯৯৯ দশরথ রঙ্গশালা, কাঠমান্ডু, নেপাল –০ ১–০ ১৯৯৯ দক্ষিণ এশীয় গেমস [২]
২৮ নভেম্বর ১৯৯৯ আবুধাবি, সংযুক্ত আরব আমিরাত   ভারত –০ ২–২ ২০০০ এএফসি এশিয়ান কাপ বাছাইপর্ব
–১
১২ ফেব্রুয়ারি ২০০১ প্রিন্স মোহাম্মদ বিন ফাহদ স্টেডিয়াম, দাম্মাম, সৌদি আরব   মঙ্গোলিয়া –০ ৩–০ ২০০২ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব
–০
১১ জানুয়ারি ২০০৩ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম, ঢাকা, বাংলাদেশ     নেপাল –০ ১–০ ২০০৩ সাফ গোল্ড কাপ
১০ ১ এপ্রিল ২০০৬   কম্বোডিয়া –০ ২–১ ২০০৬ এএফসি চ্যালেঞ্জ কাপ
১১ ১০ এপ্রিল ২০০৬   তাজিকিস্তান –১ ১ –৬

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Pakistan v Bangladesh, 25 March 1995"১১ বনাম ১১। ২৫ মার্চ ১৯৯৫। সংগ্রহের তারিখ ১০ মার্চ ২০২১ 
  2. "8th South Asian Federation Games 1999 (Kathmandu, Nepal)"আরএসএসএসএফ। সংগ্রহের তারিখ ১০ মার্চ ২০২১ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা