আযান বা আজান[ক] (আরবি: أَذَان‎‎ আযান্‌) হচ্ছে মসজিদে জামাতে নামাজ আদায়ের জন্য ইসলামি আহ্বান বা ডাকধ্বনি। দিনের নির্ধারিত সময়ে একজন মুয়াজ্জিন আযান পাঠ করেন।

আযান
আরবিأَذَان
আক্ষরিক অর্থপ্রার্থনার ডাক

ঐতিহ্যগতভাবে অধিকাংশ সময় দৈনিক পাঁচবার এবং ঈদুল ফিতরঈদুল আযহায় সারাদিন মসজিদের মিনার থেকে উচ্চস্বরে আযান দেওয়া হয়। ফরজ নামাজের উদ্দেশ্য মসজিদে প্রবেশের জন্য এটি মুসলিমদের প্রথম ডাকধ্বনি। ইকামত নামে পরিচিত দ্বিতীয় ডাকধ্বনিতে মসজিদে উপস্থিত থাকা লোকেদের নামাজের শুরুর জন্য লাইনে দাঁড়ানোর আহ্বান জানানো হয়। প্রতিটি মসজিদে একাধিক উচ্চস্বরে আযানের মূল উদ্দেশ্য হলো সকলের কাছে ইসলামি বিশ্বাসের সহজে বোধগম্য সারসংক্ষেপ উপলব্ধ করানো। কেবলমাত্র তুরস্কে, আজানকে বিভিন্ন সময়ে পাঁচটি ভিন্ন শৈলীতে দেওয়া হয়; সাবা, উশাক, হিকাজ, রাস্ত, সেগাহ।[৩]

ব্যুৎপত্তিসম্পাদনা

ʾআযান শব্দের মূল অর্থ দাড়ায় أَذِنَ ডাকা, আহবান করা। যার মূল উদ্দেশ্য হলো অবগত করানো। এই শব্দের আরেকটি ব্যুৎপত্তিগত অর্থ হল ʾআজুন। (أُذُن), যার অর্থ হলো "শোনা"। কুরআনে মোট পাঁচ স্থানে আজুন শব্দটি এসেছে। পারিভাষিক অর্থে, শরিয়ত নির্ধারিত আরবি বাক্যসমূহের মাধ্যমে নির্ধারিত সময়ে উচ্চকণ্ঠে সালাতের আহবান করাকে আযান বলা হয়। ১ম হিজরি সনে আযানের প্রচলন হয়।[৪]

সময়সম্পাদনা

প্রতি দিন-রাতে বিভিন্ন সময়ে পাঁচ বার আযান দেওয়া হয়। আর আযান তখনই দেওয়া হয় যখন নামাযের সময় হয়। ১। ফজর:সবহে সাদিক উদিত হলে। সূর্য পূর্ব আকাশে উদিত হওয়ার আগ মুহূর্তে । ২। যোহর: সূর্য পশ্চিম আকাশে একটু ঢলে গেলে । ৩। আছর:সূর্যের প্রখরতা থাকতে । ৪। মাগরিব:সূর্য অস্ত যাওয়ার সাথে সাথে । ৫। এশা: সূর্য অস্ত যাওয়ার পর রাতেরএক তৃতীয়াংশে । [৫]

সপ্তাহে একদিন শুক্রবার একটি অতিরিক্ত আজান হয় জুমআর খুতবার পূর্বে। [৬]

ইতিহাসসম্পাদনা

বিলাল ইবনে রাবাহ ইসলামের ইতিহাসে প্রথম আযান দেন। মুহাম্মদের নির্দেশে তিনিই প্রথম মদিনার মসজিদে নববীতে আযান প্রদান করেন। উল্লেখ্য মুহাম্মাদ মক্কায় আযান ও ইকামত ছাড়া নামাজ পড়েছেন। [৭]

বাক্যসমূহসম্পাদনা

কাজাকিস্তানের মাতেই মসজিদে আযানের দৃশ্য .

সুন্নি[৮][৯][১০][১১]সম্পাদনা

আবৃত্তি আরবি প্রতিবর্ণীকরণ অনুবাদ বর্ণ
৪ বার* الله اكبر আল্‌লাহু আক্‌বার্‌ আল্লাহ [সর্ব]মহান সুন্নি এবং শিয়া
২ বার اشهد ان لا اله الا الله আশ্‌হাদু-আল্‌ লা-ইলাহা ইল্‌লাল্‌লাহ্‌ আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, আল্লাহ ব্যতীত [কোনো] উপাস্য নেই সুন্নি এবং শিয়া
২ বার اشهد ان محمد الرسول الله আশ্‌হাদু-আন্‌না মুহাম্‌মাদান্‌ রাসুলুল্‌লাহ্‌ আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, মুহাম্মাদ আল্লাহর বার্তাবাহক সুন্নি এবং শিয়া
২ বার حي على الصلاة হাইয়া আলাস্‌ সালাহ্‌ নামাজের জন্য এসো সুন্নি এবং শিয়া
২ বার حي على الفلاح হাইয়া আলাল্‌ ফালাহ্‌ সাফল্যের জন্য এসো সুন্নি এবং শিয়া
২ বার الصلاة خير من النوم আস্‌-সালাতু খাইরুম্‌ মিনান্‌ নাউম্‌ ঘুম হতে নামাজ উত্তম** (শুধু ফজরের আজানে) সুন্নি
২ বার حي على خير العمل হাইয়া আলা খাইরিল্‌-আমাল্‌ সর্বোত্তম কাজের জন্য এসো শিয়া
২ বার الله اكبر আল্‌লাহু আকবার্‌ আল্লাহ [সর্ব]মহান সুন্নি এবং শিয়া
১ বার** لا اله الا الله লা ইলাহা ইল্‌লাল্‌লাহ্‌ আল্লাহ ব্যতীত [কোনো] উপাস্য নেই সুন্নি এবং শিয়া

ব্যতিক্রম আযানসম্পাদনা

ফযরের নামাজের আযানে একটু ব্যতিক্রম আছে। আর তা হলো এই যে, আযানের শেষভাগে "হাইয়া আলাল ফালাহ" দুই বার বলার পরে "আসসালাতু খাইরুম মিনান নাউম (الصلوۃ خیر من النوم)" বাক্যটি দুই বার বলতে হয়। এর পর যথারীতি "আল্লাহু আকবার", "আল্লাহু আকবার", "লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ" বলে আজান শেষ হয়। এছাড়া ছানী আযান মসজিদের ভিতরে মিম্বরের নিকটে ও ইমামের সম্মুখে দেয়া হয়।

দোয়াসম্পাদনা

আযান শেষ হওয়ার পর দুরুদ শরীফ পাঠ করে নিম্নোক্ত দোয়াটি পড়তে হয়-

আরও দেখুনসম্পাদনা

টীকাসম্পাদনা

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Adhane - Appel à la prière depuis la Mecque"ইউটিউব 
  2. Dessing, Nathal M. (২০০১)। Rituals of Birth, Circumcision, Marriage, and Death Among Muslims in the Netherlands। Peeters Publishers। পৃষ্ঠা 25। আইএসবিএন 978-9-042-91059-1 
  3. "Orhan SELEN - EZAN MAKAMLARI" 
  4. মিরআত-২/৩৩৪ পৃষ্ঠা
  5. ফাতাওয়া আরকানুল ইসলাম
  6. ফাতওয়ে আলমগীরী
  7. রাহীখুল মাখতুম
  8. Sahih Bukhari 89.329 ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৪ ডিসেম্বর ২০০৮ তারিখে
  9. Sahih Muslim : Book 020: Number 4477, 4478, 4480, 4481, 4482, 4483 ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ২০ আগস্ট ২০১১ তারিখে
  10. Sunan Abu Dawood : Book 36: Number 4266 ওয়েব্যাক মেশিনে আর্কাইভকৃত ৬ আগস্ট ২০১১ তারিখে
  11. Sunan al-Tirmidhi (Arabic) Chapter of Fitan,
    2:45 (India) and 4:501 Tradition # 2225 (Egypt)
    Hadith #2149 (numbering of al-'Alamiyyah)