আতালান্তা বিসি

আতালান্তা বেরগামাস্কা কালচো, সাধারণত আতালান্তা হিসাবে পরিচিত, হচ্ছে লোম্বারদিয়ার বেরগামোভিত্তিক একটি ইতালীয় ফুটবল ক্লাব। এটি ২০১০–১১ সালে সেরিয়ে বি থেকে উন্নীত হয়ে সেরিয়ে আ-এ এসেছে।

আতালান্তা
আতালান্তা বিসি.svg
পূর্ণ নামআতালান্তা বেরগামাস্কা কালচো এসপিএ
ডাকনামলা দেয়া (দেবী)
গ্লি অরোবিচি
ই নেরাজ্জুররি (কালো এবং নীল)
প্রতিষ্ঠিত১৭ অক্টোবর ১৯০৭; ১১২ বছর আগে (1907-10-17)
মাঠস্তাদিও আতলেতি আজ্জুররি দে'ইতালিয়া
ধারণক্ষমতা২১,৩০০[১]
সভাপতি[২]ইতালি আন্তোনিও পেরকাসি
প্রধান কোচইতালি জান পিয়েরো গাসপেরিনি
লীগসেরিয়ে আ
২০১৮–১৯৩য়
ওয়েবসাইটক্লাব ওয়েবসাইট
বর্তমান মৌসুম

এই ক্লাবের ডাকনাম রাখা হয়েছে নেরাজ্জুররি এবং অরোবিচি। ১৯০৮ সালে লিসেও ক্লাসিকো জিমের কিছু সুইস শিক্ষার্থীর দ্বারা প্রতিষ্ঠিত[৩][৪][৫] এই ক্লাবটি নীল এবং কালো উল্লম্বভাবে ডোরাকাটা শার্ট, কালো শর্টস এবং কালো মোজা খেলে। এই ক্লাবের স্টেডিয়াম, স্তাদিও আতলেতি আজ্জুররি দে'ইতালিয়া ২১,৩০০ ধারণক্ষমতাবিশিষ্ট।

ইতালিতে, আতালান্তাকে মাঝে মাঝে রেজিনা দেলে প্রভিন্সিয়ালি (প্রাদেশিক ক্লাবগুলোর রানী) বলা হয়; কারণ ক্লাবটি আঞ্চলিক রাজধানীভিত্তিক নয় এমন ইতালীয় ক্লাবগুলোর মধ্যে সবচেয়ে সুসংগত। এই ক্লাবটি এপর্যন্ত ৫৮ বার সেরিয়ে আতে, ২৮ বাত সেরিয়ে বিতে এবং ১ বার সেরিয়ে সিতে খেলেছে।

ক্লাবটি ১৯৬৩ সালে কোপা ইতালিয়া জয়লাভ করেছিল এবং ১৯৮৮ সালে কাপ উইনার্স কাপের সেমিফাইনালে পৌঁছেছিল; কিন্তু উক্ত সময়েও তারা সেরিয়ে বি প্রতিযোগিতা করত। এটি এখনও উয়েফার একটি বড় প্রতিযোগিতায় কোন অ-প্রথম-বিভাগীয় ক্লাবের সেরা সাফল্য (কার্ডিফ সিটির সাথে একসাথে)। আতালান্তা উয়েফা ইউরোপা লীগের চারটি মৌসুমে অংশ নিয়েছিল (পূর্বে উয়েফা কাপ নামে পরিচিত); যার মধ্যে ১৯৯০–৯১ মৌসুমে তারা কোয়ার্টার ফাইনালে পৌঁছেছিল।

ক্লাবটি ২০১৯–২০ উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লীগে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছিল; যেটি তাদের ইতিহাসে প্রথমবার ছিল, কারণ তারা ২০১৮–১৯ সেরিয়ে আতে তৃতীয় স্থান অধিকার করতে সক্ষম হয়েছিল। এটি ক্লাবের ইতিহাসে কোন মৌসুমে লীগে সর্বোচ্চ অবস্থান ছিল।[৬]

সভাপতিত্বের ইতিহাসসম্পাদনা

আতালান্তার ইতিহাসে একাধিক সভাপতি (চেয়ারম্যান) (ইতালীয়: presidenti, আক্ষ. 'presidents' or ইতালীয়: presidenti del consiglio di amministrazione, আক্ষ. 'chairmen of the board of directors') ছিল। তাদের মধ্যে কেউ কেউ ক্লাবের মূল অংশীদার হয়েছেন। সবচেয়ে দীর্ঘস্থায়ী সভাপতি হলেন ইভান রুজ্জেরি, যিনি ২০০৮ সালের জানুয়ারিতে স্ট্রোকের পরে তাঁর দায়িত্ব থেকে মুক্তি পেয়েছিলেন, তার স্থলাভিষিক্ত হন তার পুত্র আলেসান্দ্রো[৭] যাকে ২০০৮ সালের সেপ্টেম্বর মাসে আতালান্তার সভাপতি হিসেবে মনোনীত করা হয়েছিল। স্ট্রোকের কারণে আলেসান্দ্রোর বাবা তাকে পরিচালনা করতে পারেননি।[৮] ২০১০ সালের জুনে, সেরিয়ে বিতে আরেক দফা অবনমন হওয়ার পরে, আলেসান্দ্রো রুজ্জেরি ক্লাবটির নিজের অংশ আন্তোনিও পেরকাসির কাছে বিক্রি করেছিলেন, যিনি আতালান্তার নতুন চেয়ারম্যান হন।[৯]

 
নাম সময়কাল
এনরিকো লুকশিঙ্গার ১৯২০–১৯২১
আন্তোনিও গামবিরাসি ১৯২৬–১৯২৮
পিয়েত্রো কাপোফেরি ১৯২৮–১৯৩০
আন্তোনিও পেসেন্তি ১৯৩০–১৯৩২
এমিলিও সান্তি ১৯৩২–১৯৩৫
লামবেরতো সালা ১৯৩৫–১৯৩৮
নারদো বেরতানচিনি Bertoncini ১৯৩৮–১৯৪৪
গুয়েরিনো ওপারান্দি ১৯৪৪–১৯৪৫
দানিয়েলে তুরানি ১৯৪৫–১৯৬৪
আত্তিলিও ভিচেন্তিনি ১৯৬৪–১৯৬৯
 
নাম সময়কাল
জাকোমো "মিনো" বারাক্কি ১৯৬৯–১৯৭০
আকিল্লে বোরতোলত্তি ১৯৭০–১৯৭৪
এনজো সেন্সি ১৯৭৪–১৯৭৫
আকিল্লে বোরতোলত্তি ১৯৭৫–১৯৮০
শেজাসে বোরতোলত্তি ১৯৮০–১৯৯০
আকিল্লে বোরতোলত্তি ১৯৯০
আন্তোনিও পেরকাসি ১৯৯০–১৯৯৪
ইভান রুজ্জেরি ১৯৯৪–২০০৮
আলেসান্দ্রো রুজ্জেরি ২০০৮–২০১০
আন্তোনিও পেরকাসি ২০১০–

সমর্থকসম্পাদনা

আতালান্তার সমর্থকরা খুব অনুগত হিসাবে বিবেচিত হয়। আতালান্তা স্তাদিও আতলেতি আজ্জুররি দে'ইতালিয়া তাদে হোম ম্যাচ খেললে উত্তর দিকের কার্ভা নর্ড সমর্থকরা পুরো ম্যাচজুড়ে দলকে তাদের মাতাল দিয়ে উৎসাহিত করে।

আতালান্তার সমর্থকদের সবচেয়ে বড় প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে ব্রেশিয়া প্রতিবেশী সমর্থকদের সাথে।[১০] এছাড়াও ভেরোনা, জেনোয়া, ফিওরেন্তিনা, এএস রোমা, লাৎসিয়ো, নাপোলি, এসি মিলান, ইন্টার মিলান, তোরিনোর সমর্থকদের সাথেও শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতা রয়েছে।[১১] পক্ষান্তরে জার্মান বুন্দেসলিগা ক্লাব এইন্টাখট ফ্রাঙ্কফুর্ট এবং অস্ট্রীয় ক্লাব ওয়েকার ইনসবার্কের ভক্তদের সাথে দীর্ঘসময় ধরে বন্ধুত্বের সম্পর্ক রয়েছে।[১২]

বিশেষ উপলক্ষে আতালান্তা সমর্থকরা বান্দিয়েরু নামে একটি খুব বড় কালো এবং নীল পতাকা প্রদর্শন করে, যা পুরো কার্ভা নর্ড স্ট্যান্ডটি জুড়ে দৃশ্যমান হয়।

সম্মাননা ও অর্জনসমূহসম্পাদনা

ঘরোয়াসম্পাদনা

বিজয়ী (১): ১৯৬২–৬৩
রানার-আপ (৩): ১৯৮৬–৮৭, ১৯৯৫–৯৬, ২০১৮–১৯
তৃতীয় স্থান: ২০১৮–১৯
বিজয়ী (৬):[১৩] ১৯২৭–২৮, ১৯৩৯–৪০, ১৯৫৮–৫৯, ১৯৮৩–৮৪, ২০০৫–০৬, ২০১০–১১
রানার-আপ (৪): ১৯৩৬–৩৭, ১৯৭০–৭১, ১৯৭৬–৭৭, ১৯৯৯–২০০০
বিজয়ী (১): ১৯৮১–৮২
বিজয়ী (৩): ১৯৯২–৯৩, ১৯৯৭–৯৮, ২০১৮-১৯
রানার-আপ (৩): ২০০১–০২, ২০০৪–০৫, ২০১২–১৩
বিজয়ী (৩): ১৯৯৯–০০, ২০০০–০১, ২০০২–০৩
বিজয়ী (১): ২০১৯
রানার-আপ (১): ২০০৮
বিজয়ী (২): ১৯৬৯, ১৯৯৩
বিজয়ী (৩): ২০০৫–০৬, ২০০৯–১০, ২০১২–১৩

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "COMPLETATI I LAVORI ALLO STADIO DELL'ATALANTA, IMPIANTO SENZA BARRIERE GIOIELLO ARCHITETTONICO – (FOTO)"। ৩১ আগস্ট ২০১৫। 
  2. "The Club – ATALANTA Lega Serie A"www.legaseriea.it। Lega Serie A। সংগ্রহের তারিখ ২৬ আগস্ট ২০১৭ 
  3. "ATALANTA – Bergamo da scoprire" (ইতালীয় ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-২৯ 
  4. "Si chiamerà Atalanta!!"Atalantini.com (ইতালীয় ভাষায়)। ২০১৮-১০-১৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-২৯ 
  5. "Buon compleanno Atalanta: compie 111 anni"Bergamosera, news e notizie da Bergamo, Italia e esteri (ইতালীয় ভাষায়)। ২০১৮-১০-১৭। ২০১৯-০৫-০১ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৯-০৪-২৯ 
  6. "Atalanta win to claim Champions League place for first time"Guardian। ২৬ মে ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ২৭ মে ২০১৯ 
  7. News from Yahoo news[অকার্যকর সংযোগ]
  8. "Alessandro Ruggeri: "Vi racconto la mia Atalanta" – Sport Bergamo"। Eco.bg.it। ২৮ জুলাই ২০১২ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ৮ মে ২০১৭ 
  9. "Atalanta, è tornato Percassi Nella notte la firma dell'accordo"La Gazzetta dello Sport (Italian ভাষায়)। ৪ জুন ২০১০। সংগ্রহের তারিখ ২০ আগস্ট ২০১৭ 
  10. "Italy"। footballderbies.com। ২৭ মার্চ ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। 
  11. "Roma V Atalanta a bit of history"। asroma.it। 
  12. Hall, Richard (৭ জানুয়ারি ২০১৪)। "Atalanta: Serie A alternative club guide"the Guardian 
  13. (জেনোয়ার সাথে ইতালীয় রেকর্ড]])

বহিঃসংযোগসম্পাদনা