প্রধান মেনু খুলুন

অঞ্জু ঘোষ

বাংলাদেশী অভিনেত্রী

অঞ্জু ঘোষ একজন বাংলাদেশী চলচ্চিত্র অভিনেত্রী। তিনি ভারতবাংলাদেশ উভয় দেশের মোট ৬টি ভাষার ওপর ৩০০টিরও বেশি চলচিত্রে অভিনয় করেছেন। তিনি বেদের মেয়ে জোসনা চলচ্চিত্রে তার অভিনয়ের জন্য পরিচিত। তার আসল নাম অঞ্জলি ঘোষ।

অঞ্জু ঘোষ
জন্ম
অঞ্জলি ঘোষ

(1966-09-17) ১৭ সেপ্টেম্বর ১৯৬৬ (বয়স ৫৩)
ভাঙ্গা, ফরিদপুর[১]
নাগরিকত্ববাংলাদেশী[২]
পেশাঅভিনেত্রী
পরিচিতির কারণবেদের মেয়ে জোসনা

চলচ্চিত্র জীবনসম্পাদনা

বাংলাদেশের স্বাধীনতার আগে অঞ্জু ঘোষ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ভোলানাথ অপেরার হয়ে যাত্রায় নৃত্য পরিবেশন করতেন ও গানও গাইতেন।[৩] ১৯৮২ সালে এফ, কবীর চৌধুরী পরিচালিত ‘সওদাগর’ সিনেমার মাধ্যমে তার চলচ্চিত্রে অভিষেক ঘটে। এই ছবিটি ব্যবসায়িকভাবে সফল ছিল। তিনি বাংলার নীলো নামে পরিচিত ছিলেন। ১৯৮৬ সালে তার ক্যারিয়ার বিপর্যয়ের মুখে পড়লেও তিনি ফিরে আসেন ভালোভাবে। ১৯৮৭ সালে অঞ্জু সর্বাধিক ১৪টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন। ১৯৮৯ সালে তার অভিনীত ‘বেদের মেয়ে জোছনা’ অবিশ্বাস্য রকমের ব্যবসা করে এবং সৃষ্টি করে নতুন রেকর্ড। চলচ্চিত্রটির মাধ্যমে তিনি ব্যাপক পরিচিতি লাভ করেন। ১৯৯০ সালে তার গাওয়া ১২টি গান নিয়ে ‘মালিক ছাড়া চিঠি’ নামের একটি অ্যালবাম প্রকাশিত হয়।[৪]

তিনি ১৯৯৬ সালে বাংলাদেশ ছেড়ে চলে যান এবং কলকাতার চলচ্চিত্রে অভিনয় করতে থাকেন।[৫] ২০১৮ সালে, তিনি সাইদুর রহমান সাইদ পরিচালিত একটি বাংলাদেশী চলচ্চিত্র, মধুর ক্যান্টিনে অভিনয় করেন।[৬]

উল্লেখযোগ্য চলচ্চিত্রসম্পাদনা

  • সওদাগর (১৯৮২)
  • বড় ভালো লোক ছিল (১৯৮২)
  • নরম গরম (১৯৮২)
  • আশীর্বাদ[৭] (১৯৮৩)
  • আবে হায়াত (১৯৮৩)
  • চন্দন দ্বীপের রাজকন্যা (১৯৮৪)
  • রাই বিনোদিনী (১৯৮৫)
  • বেদের মেয়ে জোসনা (১৯৮৯)
  • নবাব সিরাজ-উদ-দৌলা (১৯৮৯)
  • বেদেনীর প্রেম (১৯৯২)
  • রাজার মেয়ে পারুল (১৯৯৩)
  • কুমারী মা (১৯৯৫)
  • প্রাণ সজনী (১৯৯৬)
  • আদরের বোন (১৯৯৭)
  • প্রাণের চেয়ে প্রিয় (১৯৯৮)
  • রাজ সিংহাসন
  • পদ্মাবতী
  • রাই বিনোদিনী
  • সোনাই বন্ধু
  • আয়না বিবির পালা
  • আশা নিরাশা
  • মালা বদল

নাগরিকত্ব বিতর্কসম্পাদনা

২০১৯ সালের ৫ জুন তিনি ভারতের রাজনৈতিক দল বিজেপিতে যোগ দেন।[৮] তারপরে তার নাগরিকত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠে। পরে বিজেপি দলের তরফ থেকে দাবি করা হয় তিনি ভারতের নাগরিক, তার কাছে ভারতের পাসপোর্ট আছে।[৯] পশ্চিমবঙ্গের বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ ২০০৩ সালে কলকাতা পৌরসংস্থা কর্তৃক জারি করা তার জন্ম সার্টিফিকেট প্রকাশ করেন।[১০][১১] শংসাপত্র অনুসারে অঞ্জু ঘোষ ১৭ সেপ্টেম্বর ১৯৬৬ সালে কলকাতার ইস্ট এন্ড নার্সিং হোমে জন্মগ্রহণ করেন; তার বাবার নাম সুধন্য ঘোষ ও মায়ের নাম বীণাপানি ঘোষ।[১০] অন্যদিকে ২০১৮ সালে একুশে টেলিভিশনকে দেয়া এক সাক্ষাত্কার তিনি জানান যে তিনি ১৭ সেপ্টেম্বর ১৯৫৬ সালে ফরিদপুরের ভাঙ্গায় জন্মগ্রহণ করেন ও মুক্তিযুদ্ধ শুরু হওয়ার আগে তিনি এবং তার পরিবার চট্টগ্রামে চলে আসেন। সেখানকার কৃষ্ণকুমারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পড়াশুনা করেন।[১]

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "অঞ্জু ঘোষের অজানা কথা"একুশে টিভি। ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০১৯ 
  2. অমর সাহা (জুন ৬, ২০১৯)। "বিজেপিতে-যোগ-দিলেন-'বেদের-মেয়ে-জোসনা"প্রথম আলো। ঢাকা। সংগ্রহের তারিখ জুন ৭, ২০১৯ 
  3. হক, জনি। "যাত্রায় আবার অঞ্জু ঘোষ"দৈনিক সমকাল। ৫ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০১১ 
  4. "অঞ্জু ঘোষের এই পরিচয় কি জানতেন?"দ্য ডেইলি স্টার। ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮। সংগ্রহের তারিখ ৮ জুন ২০১৯ 
  5. রহমান, মোমিন; হোসেন, নবীন (১৯৯৮)। "বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে তারকা নায়িকাঃ পপি থেকে পপি"। অন্যদিন, ঈদ সংখ্যা। মাজহারুল ইসলাম। (২৫): ৩৫২। 
  6. "দুই যুগ পর ঢাকার চলচ্চিত্রে অঞ্জু ঘোষ"bangla.bdnews24.com। ২৬ নভেম্বর ২০১৮। 
  7. রহমান, মোমিন; হোসেন, নবীন (১৯৯৮)। "বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে তারকা নায়িকাঃ পপি থেকে পপি"। অন্যদিন, ঈদ সংখ্যা। মাজহারুল ইসলাম। (২৫): ৩৫৩। 
  8. "বাংলাদেশের নায়িকা থেকে যে কারণে মোদির দলে অঞ্জু ঘোষ"কালের কণ্ঠ। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০১৯ 
  9. "'বেদের মেয়ে...' অঞ্জু ঘোষের নাগরিকত্ব নিয়ে বিতর্কের মাঝে নয়া এই দাবি করল বিজেপি"NDTV.com। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০১৯ 
  10. "অঞ্জু ঘোষের নাগরিকত্ব প্রমাণে বার্থ সার্টিফিকেট প্রকাশ করল বিজেপি"Zee24Ghanta.com। ৬ জুন ২০১৯। সংগ্রহের তারিখ ৬ জুন ২০১৯ 
  11. "অঞ্জু ঘোষ কোন দেশের নাগরিক?"দ্য ডেইলি স্টার। ৬ জুন ২০১৯।