রড ম্যাককার্ডি

অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটার
(Rod McCurdy থেকে পুনর্নির্দেশিত)

রডনি জন ম্যাককার্ডি (ইংরেজি: Rod McCurdy; জন্ম: ৩০ ডিসেম্বর, ১৯৫৯) মেলবোর্ন এলাকায় জন্মগ্রহণকারী সাবেক অস্ট্রেলীয় আন্তর্জাতিক ক্রিকেটার। অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট দলের অন্যতম সদস্য ছিলেন তিনি। ১৯৮৫ সালে সংক্ষিপ্ত সময়ের জন্যে অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অংশগ্রহণ করেছেন।

রড ম্যাককার্ডি
ব্যক্তিগত তথ্য
পূর্ণ নামরডনি জন ম্যাককার্ডি
জন্ম (1959-12-30) ৩০ ডিসেম্বর ১৯৫৯ (বয়স ৬০)
মেলবোর্ন, অস্ট্রেলিয়া
ব্যাটিংয়ের ধরনডানহাতি
বোলিংয়ের ধরনডানহাতি ফাস্ট মিডিয়াম
ভূমিকাফাস্ট বোলার
আন্তর্জাতিক তথ্য
জাতীয় পার্শ্ব
ওডিআই অভিষেক
(ক্যাপ ৮৫)
২৭ জানুয়ারি ১৯৮৫ বনাম ওয়েস্ট ইন্ডিজ
শেষ ওডিআই২৯ মার্চ ১৯৮৫ বনাম ভারত
ঘরোয়া দলের তথ্য
বছরদল
১৯৭৯-১৯৮০, ১৯৮১-১৯৮৪ভিক্টোরিয়া
১৯৭৯ডার্বিশায়ার
১৯৮০-১৯৮১তাসমানিয়া
১৯৮৪-১৯৮৫সাউথ অস্ট্রেলিয়া
১৯৮৭-১৯৯১ইস্টার্ন প্রভিন্স
১৯৯১-১৯৯২নাটাল
১৯৯২-১৯৯৩বর্ডার
খেলোয়াড়ী জীবনের পরিসংখ্যান
প্রতিযোগিতা ওডিআই এফসি এলএ
ম্যাচ সংখ্যা ১১ ৮৬ ১০৮
রানের সংখ্যা ৩৩ ৭২৫ ২৫২
ব্যাটিং গড় ৮.২৫ ১০.২১ ১৪.৮২
১০০/৫০ ০/০ ০/১ –/–
সর্বোচ্চ রান ১৩* ৫৫ ৪২
বল করেছে ৫১৫ ১৬৭৭৯ ৫৭২৯
উইকেট ১২ ৩০৫ ১৭১
বোলিং গড় ৩১.২৫ ২৯.৮৫ ২২.৭৭
ইনিংসে ৫ উইকেট ১৬
ম্যাচে ১০ উইকেট - -
সেরা বোলিং ৩/১৯ ৭/৫৫ ৫/১৫
ক্যাচ/স্ট্যাম্পিং ১/– ২৫/– ১৩/–
উৎস: ইএসপিএনক্রিকইনফো.কম, ২০ মার্চ ২০২০

ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটে সাউথ অস্ট্রেলিয়া, তাসমানিয়া ও ভিক্টোরিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকান ক্রিকেটে বর্ডার, ইস্টার্ন প্রভিন্স ও নাটাল এবং ইংরেজ কাউন্টি ক্রিকেটে ডার্বিশায়ার দলের প্রতিনিধিত্ব করেন। দলে তিনি মূলতঃ ডানহাতি ফাস্ট মিডিয়াম বোলিং করতেন। এছাড়াও, ডানহাতে নিচেরসারিতে ব্যাটিং করতেন রড ম্যাককার্ডি

প্রথম-শ্রেণীর ক্রিকেটসম্পাদনা

১৯৭৯-৮০ মৌসুম থেকে ১৯৯২-৯৩ মৌসুম পর্যন্ত রড ম্যাককার্ডি’র প্রথম-শ্রেণীর খেলোয়াড়ী জীবন চলমান ছিল। রড ম্যাককার্ডি’র আন্তর্জাতিক পর্যায়ের খেলোয়াড়ী জীবন হয়তোবা আরও দীর্ঘস্থায়ী হতে পারতো। কিন্তু, দক্ষিণ আফ্রিকায় বিদ্রোহী দলের পক্ষে গমনে করায় তা স্তিমিত হয়ে আসে। ঘরোয়া প্রথম-শ্রেণীর অস্ট্রেলীয় ক্রিকেটে তিনটি পৃথক রাজ্য দলে খেলেছেন। তন্মধ্যে, তাসমানিয়া দলে ১৯৮০-৮১ মৌসুমে অতিবাহিত করেছিলেন। ইংল্যান্ডে ডার্বিশায়ার ও সবশেষে তিনটি দক্ষিণ আফ্রিকান প্রাদেশিক দলে খেলেন।

অস্ট্রেলিয়ার অনূর্ধ্ব-১৯ দলের প্রতিনিধিত্ব করেছেন।[১] শুরুতে ভিক্টোরিয়া দলের পক্ষে খেলেন। এরপর তাসমানিয়ায় চলে যান। ১৯৮০-৮১ মৌসুমে সফররত নিউজিল্যান্ডীয় একাদশের বিপক্ষে তাসমানিয়ার সদস্যরূপে ৭/৮১ বোলিং পরিসংখ্যান দাঁড় করিয়েছিলেন।[২] ১৯৮১-৮২ মৌসুমে পুণরায় ভিক্টোরিয়া দলে ফিরে আসেন।

বিতর্কের ঊর্ধ্বে অবস্থান করেননি তিনি। মাঠে পুণঃপুণঃ নো-বল করেছেন। দলীয় ম্যানেজারকে লাথি মারার দায়ে অভিযুক্ত হয়েছেন।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটসম্পাদনা

সমগ্র খেলোয়াড়ী জীবনে এগারোটি ওডিআইয়ে অংশগ্রহণ করেছেন রড ম্যাককার্ডি। ২৭ জানুয়ারি, ১৯৮৫ তারিখে অ্যাডিলেডে সফরকারী ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের বিপক্ষে একদিনের আন্তর্জাতিকে অভিষেক ঘটে তার। ২৯ মার্চ, ১৯৮৫ তারিখে শারজায় ভারত দলের বিপক্ষে সর্বশেষ ওডিআইয়ে অংশ নেন তিনি। তাকে কোন টেস্টে অংশগ্রহণ করার সুযোগ দেয়া হয়নি।

১৯৮০-এর দশকে এগারোটি একদিনের আন্তর্জাতিকে অংশগ্রহণ করেছেন রড ম্যাককার্ডি। ১৯৮৫ সালে ইংল্যান্ড গমনার্থে অস্ট্রেলিয়া দলের সদস্যরূপে অন্তর্ভূক্ত হন।[৩] কিন্তু, দক্ষিণ আফ্রিকায় খেলার জন্যে চুক্তিতে আবদ্ধ হওয়ায় এ সফর থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নেন।[৪]

দক্ষিণ আফ্রিকায় বিদ্রোহী দলের সফরসম্পাদনা

১৯৮৪-৮৫ মৌসুমের গ্রীষ্মকালে দক্ষিণ আফ্রিকায় খেলার জন্যে চুক্তিতে আবদ্ধ হন।[৫] ১৯৮৪-৮৫ মৌসুমে কিম হিউজের নেতৃত্বে বিদ্রোহী দলের সদস্যরূপে দক্ষিণ আফ্রিকা গমন করেন। খুব সম্ভবতঃ ১৯৮৬ সালে বড়দিনের প্রাক্কালে নিজস্ব সেরা ক্রীড়াশৈলী প্রদর্শন করেছিলেন। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে অনুষ্ঠিত অনানুষ্ঠানিক টেস্টে ৬/৬৭ বোলিং পরিসংখ্যান গড়েছিলেন তিনি।

ইংল্যান্ড সফরের পর ইস্টার্ন প্রভিন্সের পক্ষে খেলতে থাকেন।[৬] ১৯৮৫-৮৬ ও ১৯৮৬-৮৭ মৌসুমে দক্ষিণ আফ্রিকায় বিদ্রোহী দলের সদস্যরূপে গমন করেন। এ সময়ে দক্ষিণ আফ্রিকাকে আন্তর্জাতিক ক্রীড়াঙ্গনে অংশগ্রহণ করা থেকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছিল।

ক্রিকেট খেলা থেকে অবসর গ্রহণের পর নিরাপত্তাবিষয়ক ব্যবসায়িক কর্মকাণ্ড পরিচালনায় অগ্রসর হন। এরপর, জোহেন্সবার্গে চলে যান। সেখানে টেলিট্র্যাকের অপারেশন্স ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব পালন করেন তিনি। বর্তমানে তিনি দক্ষিণ আফ্রিকায় বসবাস করছেন।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Australian youth team named."The Canberra Times। ২৬ জানুয়ারি ১৯৭৮। পৃষ্ঠা 19। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ – National Library of Australia-এর মাধ্যমে। 
  2. "CRICKET India fights back in exciting game."The Canberra Times। ৩ জানুয়ারি ১৯৮১। পৃষ্ঠা 26। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ – National Library of Australia-এর মাধ্যমে। 
  3. "Australian tour squad."The Canberra Times। ২১ মার্চ ১৯৮৫। পৃষ্ঠা 28। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ – National Library of Australia-এর মাধ্যমে। 
  4. http://www.espncricinfo.com/magazine/content/story/541421.html
  5. http://www.espncricinfo.com/blogs/content/story/638487.html
  6. http://stgeorgespark.nmmu.ac.za/content/personalities/displayarticle.asp?artid=persp_026

আরও দেখুনসম্পাদনা

বহিঃসংযোগসম্পাদনা