পাম গাছ

উদ্ভিদের পরিবার
(Arecaceae থেকে পুনর্নির্দেশিত)

পাম গাছ (ইংরেজি: Palm Tree) এক প্রকার বৃক্ষ জাতীয় ফুলেল উদ্ভিদ। পৃথিবীতে বিভিন্ন জাতের ২,৬০০ প্রজাতির পাম গাছ দেখা যায়। এ গাছ থেকে নানাবিধ দ্রব্য পাওয়া যায়। এর জন্য এর ব্যাপক চাষ হয়ে থাকে। পাম গাছ বাংলাদেশের আবহাওয়ার জন্য উপযোগী ও পরিবেশ বান্ধব।

পাম গাছ
সময়গত পরিসীমা: ৮.০–০কোটি Late Cretaceous- Recent
1859-Martinique.web.jpg
Coconut Palm Tree Cocos nucifera
বৈজ্ঞানিক শ্রেণীবিন্যাস
জগৎ: Plantae
(শ্রেণীবিহীন): Angiosperms
(শ্রেণীবিহীন): Monocots
(শ্রেণীবিহীন): Commelinids
বর্গ: Arecales
পরিবার: Arecaceae
Schultz-Schultzenstein
উপঃ পরিবার

Arecoideae
Calamoideae
Ceroxyloideae
Coryphoideae
Nypoideae[১]

বৈচিত্র্য
Well over 2000 species in some 200 genera
পাম গাছের বনানী

পাম তেলসম্পাদনা

পাম ফল থেকে পাম তেল নিষ্কাশন করা হয়। বাংলাদেশে একটি চার/পাঁচ বৎসর বয়সী পাম গাছ থেকে বছরে ন্যূনপক্ষে ৪০ কেজি পামওয়েল পাওয়া যায়। একটি পাম গাছ থেকে একটানা ২৫/৩০ বছর পর্যন্ত তেল পাওয়া যায়। পাম ফল থেকে পামওয়েল আহরণের সময় যে পুষ্টিসমৃদ্ধ পূর্ণ ব্যবহারযোগ্য বর্জ্য পাওয়া যায়, তাই পামঅয়েল বাগানের সার হিসেবে ব্যবহার হয়। রাসায়নিক, কীটনাশকের ব্যবহার হ্রাস করার জন্য পামওয়েল উদ্ভিদ বালাই নিয়ন্ত্রণের কাজে জৈব পদ্ধতি ব্যবহার করা হয়। পামগাছের পাতা জমিতে সার হিসেবে ব্যবহার করা যায়। পামগাছের ১ টন শুকনা পাতা মাটিতে ৭.৫ কেজি নাইট্রোজেন, ১.০৬ কেজি ফসফরাস, ৯.৮১ কেজি পটাসিয়াম ও ২.৭৯ কেজি ম্যাগনেসিয়াম ফিরিয়ে দেয়। এজন্য বলা যায় পাম গাছ পরিবেশের জন্য অত্যন্ত উপকারী ও পরিবেশ বান্ধব।পাম তেলে কোলেস্ট্রলের মাত্রা কম, তাই এটি স্বাস্থ্যের জন্যও উপকারী ৷

তেল সংগ্রহসম্পাদনা

দেশীয় পদ্ধতিতে পাম তেল সংগ্রহ করা সহজ। পাকা পাম ফল সংগ্রহ করে পানিতে সিদ্ধ করা হয়। অতঃপর হাত দ্বারা অথবা গামছা দিয়ে চিপে রস বের করতে হবে। রসের মধ্যে যেহেতু পানির মিশ্রণ থাকে, সেহেতু পানি মিশ্রিত এই রস পাতিলে করে জাল দিতে হবে।

চাষ ও আবাদসম্পাদনা

পাম গাছের চারা রোপণের আগে ১.৫ – ১.৫ ফুট সাইজের গর্ত করে গর্তের ওপরের অংশের অর্ধেক মাটি একপাশে আর গর্তের নিচের অংশের মাটি অন্য পাশে রেখে নিচের অংশের মাটির সঙ্গে নিম্নবর্ণিত হারে সার মিশাতে হয়। উপরের অংশের মাটি গর্তের নিচে দিতে হয়। উপরোক্ত সার মিশ্রিত মাটি গর্তের উপরে দিতে হয়। প্রতি গর্তের জন্য গোবর ৫ কেজি, টিএসপি ২৫০ গ্রাম, এমপি ১৫০ গ্রাম, ইউরিয়া ১০০ গ্রাম প্রয়োজন হবে। তবে আগে থেকে গর্ত খনন করা না থাকলে শুধু গোবর সার দিয়ে চারা রোপণ করতে হবে। পরে উল্লেখিত হারে সারগুলোকে সমান দু’ভাবে ভাগ করে শীতের আগে ও পরে নির্দিষ্ট দূরত্বে ছিটিয়ে দেয়ার পর নিড়ানি দিতে হবে। পাম গাছ চাষে ন্যূনতম রাসায়নিক সার ব্যবহার করা হয়। গাছের গোড়া সব সময় আগাছামুক্ত রাখতে হয়। প্রয়োজন হেল স্বল্প পরিমাণ সেচ দিতে হবে।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "Arecaceae Bercht. & J. Presl, nom. cons."Germplasm Resources Information Network। United States Department of Agriculture। ২০০৭-০৪-১৩। সংগ্রহের তারিখ ২০০৯-০৭-১৮ 

বহিঃসংযোগসম্পাদনা