২০১৭ দক্ষিণ সুরমা উপজেলা বোমা হামলা

২০১৭ দক্ষিণ সুরমা উপজেলা বোমা হামলাটি ছিল ২৫ শে মার্চ, ২০১৭ তারিখে বাংলাদেশের সিলেট জেলার দক্ষিণ সুরমা উপজেলায় সন্দেহভাজন একটি জঙ্গি আস্তানায় পুলিশ এবং সেনাবাহিনীর অভিযান। অভিযানের সময় সিলেটে দখলকৃত কম্বাউন্ড ঘিরে থাকা বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীকে লক্ষ্য করেছিলো জঙ্গিরা। দুটি আত্মঘাতী বোমা হামলায় চারজন বেসামরিক নাগরিক ও দুইজন পুলিশ অফিসার মারা গিয়েছিলেন এবং ৪০ জনেরও বেশি আহত হয়েছিল, যার মধ্যে বেশ কয়েকজন ছিলো গুরুতর আহত। পরবর্তীতে সেনাবাহিনীর একজন লেফটেন্যান্ট কর্নেল আহত হয়ে মারা গিয়েছিলেন।[২] বোমা বিস্ফোরণ এবং বন্দুকযুদ্ধের খবর পাওয়া যায় যখন সেনাবাহিনী জঙ্গিদের আস্তানা দখল করতে অপারেশন টোয়াইলাইট পরিচালনা শুরু করেছিল।[৩][৪][৫][৬] আইএসআইএল অবশ্য এর দায় স্বীকার করেছিলো কিন্তু স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল আইএসআইএল-এর দাবি অস্বীকার করেছিলেন এবং হামলার জন্য স্থানীয় জামাআতুল মুজাহিদিন বাংলাদেশকে দোষ দিয়েছেন।[৭] অবশেষে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সন্দেহভাজন আস্তানার চার জঙ্গিকে কব্জা করেছিল।[১][৮]

২০১৭ দক্ষিণ সুরমা উপজেলা বোমা হামলা
বাংলাদেশে সন্ত্রাসবাদ-এর অংশ
স্থানদক্ষিণ সুরমা উপজেলা, সিলেট, বাংলাদেশ
তারিখ২৫ মার্চ, ২০১৭
লক্ষ্যবেসামরিক লোকজন ও পুলিশ কর্মকর্তা
ব্যবহৃত অস্ত্রবিস্ফোরক বেল্ট
নিহত১১ (৪ জন আত্মঘাতী হামলাকারীসহ)[১][২]
আহত৪০+
আততায়ীগণইসলামিক স্টেট অব ইরাক অ্যান্ড দ্য লেভান্ট

পটভূমি সম্পাদনা

২৩ শে মার্চ, ২০১৭ সাল বৃহস্পতিবারে সিলেটের দক্ষিণ সুরমা উপজেলায় একটি সন্দেহভাজন জঙ্গি আস্তানা ঘিরে রেখেছিলো বাংলাদেশ পুলিশ। আস্তানাটি একটি আবাসন কমপ্লেক্সে অবস্থিত ছিলো যা দুটি অ্যাপার্টমেন্ট ভবন নিয়ে গঠিত। এরপর দিন অর্থাৎ শুক্রবার র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের কর্মীদের নিয়ে পুলিশ ইউনিটকে আরো কার্যকর করা হয়।[৯][১০] এরপর শনিবারে ১ম প্যারা কমান্ডো ব্যাটালিয়ন অপারেশনটির দায়িত্ব নিয়েছিল।[১০]

অপারেশন টোয়াইলাইট সম্পাদনা

জালালাবাদ সেনানিবাসের জিওসি ১৭ পদাতিক ডিভিশন মেজর জেনারেল আনোয়ারুল মোমেনের নেতৃত্বে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রথম প্যারা কমান্ডো ব্যাটালিয়ন দ্বারা অপারেশন টোয়াইলাইট পরিচালনা করা হয়েছিল। এই অভিযানটিতে জঙ্গী দমনে সেনাবাহিনী সময় নেয় টানা ১১১ ঘণ্টা।[১১] প্রথমে সুরক্ষা বাহিনী জঙ্গিদের আস্তানা ঘিরে তিন কিলোমিটারের পরিধি স্থাপন করেছিলো। এরপর শনিবার সকাল ৮ টায় অভিযান শুরু করা হয়েছিলো।[১২] প্রারম্ভিক হামলায় দু'জন জঙ্গি নিহত হয়েছিলো, যার মধ্যে একজন আত্মঘাতী বিস্ফোরণ করেছিল। বৃহস্পতিবার থেকে কমান্ডোরা ওই ভবনে আটকা পড়ে থাকা ৭৮ জন বেসামরিক নাগরিককে উদ্ধার করেছিল।[১৩] জঙ্গিরা পুরো ভবনটিতে ইম্প্রভাইস্‌ড বিস্ফোরক ডিভাইস (আইইডি) লাগিয়েছিল যা অভিযানকে বাধাগ্রস্ত করেছিলো কিছুটা।[১৪] ভবনের মূল ফটকটি একটি রেফ্রিজারেটর দ্বারা আটকে দেওয়া হয়েছিল যার সাথে একটি আইইডি বুবি ট্র্যাপ যুক্ত ছিল।[১৫] সেনাবাহিনীর মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ফখরুল আহসান প্রারম্ভেই জানিয়েছিলেন যে বিল্ডিংয়ের অভ্যন্তরে কৌশলগত পয়েন্টগুলিতে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা আইইডি থাকার কারণে অভিযান আরও বেশি সময় নেবে। “আমরা প্রাচীরে গর্ত করতে রকেট লঞ্চ ব্যবহার করেছি। আমরা বিস্ফোরক ব্যবহার করেছি তবে সেগুলি কার্যকর হয়নি। তারপরে আমরা একটি থাই শেল ব্যবহার করেছি এবং সফলভাবে দুই জঙ্গিকে কব্জা করেছি, ” ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ফখরুল এমনটাই বলেছিলেন।[১৬] কমান্ডোরা তাদের সামরিক ঘাঁটি থেকে এই অস্ত্রোপচারের জন্য সাঁজোয়া বাহিনী নিয়ে উপস্থিত হয়েছিল।[১৭] ভবনটিতে ৩০টি অ্যাপার্টমেন্ট ও ১৫০টি কক্ষ ছিল এবং এর ফলে জঙ্গিরা ক্রমাগত তাদের অবস্থান পরিবর্তন করেছিলো।[১৮] শনিবার সকাল ১০ টায় এই অভিযান শুরু করা হয়েছিলো। কমান্ডো ইউনিটকে সোয়াট বাহিনী এবং বাংলাদেশ পুলিশ সহায়তা করেছিল।[১৯] অবশেষে চার জঙ্গিকে আস্তানাটিতে মৃত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছিলো।[১][৮]

বোমা হামলা সম্পাদনা

২৬শে মার্চ, অপারেশন টুইলাইট চলাকালে জঙ্গিরা তাদের আস্তানা থেকে ৪০০ মিটার দূরে কর্ডোন ঘেরের নিকটে জড়ো হওয়া প্রায় ৫০০-৬০০ দর্শকের ভিড়ে বোমা মেরেছিল।[২০][২১] হামলায় দুটি বোমা ব্যবহার করা হয়েছিল। প্রথমটিকে সন্ধ্যা ৬.৪৫ টায় মোটরসাইকেল থেকে দুজন ব্যক্তি ছুঁড়ে ফেলেছিল। প্রথমটি বিস্ফোরণের পরে পুলিশ এবং র‌্যাব সদস্যরা ওই অঞ্চলে সরে যাওয়ার পরে দ্বিতীয়টি শাকসব্জীযুক্ত একটি ব্যাগে রাখা হয় যা ৭.৫৫ টায় বিস্ফোরিত হয়।বিস্ফোরণে দু'জন পুলিশ অফিসারসহ ছয়জন নিহত এবং ৪৪ জন আহত হয়েছিলেন। [২২][২১][২৩][২৪] দ্বিতীয় বিস্ফোরণে র‌্যাবের গোয়েন্দা পরিচালক লেফটেন্যান্ট কর্নেল আবুল কালাম আজাদ গুরুতর আহত হন। প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজে নেওয়া হয়েছিল। তারপরে তাকে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয় এবং সবশেষে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে পাঠানো হয়েছিল। তবে মারাত্মকভাবে আহত হওয়ার কারণে তিনি মারা যান।[২৫] দ্বিতীয় বিস্ফোরণে বোমা নিষ্ক্রিয় স্কোয়াডের পুলিশ পরিদর্শক মনিরুল ইসলাম ও পরিদর্শক আবু কাওসার ঘটনাস্থলেই নিহত হন।[২৬]

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. "4 militants dead at Sylhet den: Army"। The Daily Star। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৭ 
  2. Sun, The Daily। "Lt Col Abul Kalam Azad's namaz-e-janaza held"Lt Col Abul Kalam Azad's namaz-e-janaza held | daily-sun.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-৩১ 
  3. "Sylhet blasts kill four amid Bangladesh militant raid"। BBC News। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৫ 
  4. "সিলেটে বোমা 'হামলার দায়' স্বীকার করলো আইএস"। BBC Bangla। ২৬ মার্চ ২০১৭ – www.bbc.com-এর মাধ্যমে। 
  5. "Sylhet raid Day 3: Eight dead, 40+ injured, Operation Twilight continues – Dhaka Tribune"। ২৪ মার্চ ২০১৭। 
  6. "Bangladesh bomb blasts kill six, scores injured"। ২৬ মার্চ ২০১৭ – Reuters-এর মাধ্যমে। 
  7. "Home minister: Sylhet blasts not linked to IS | Dhaka Tribune"Dhaka Tribune (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৩-২৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৭ 
  8. "Live: Four militants killed as Sylhet raid nears end"। Dhaka Tribune। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৭ 
  9. Manik, Julfikar Ali; Anand, Geeta (২০১৭-০৩-২৬)। "Bangladeshi Assault Kills 2 Militants but Fails to End Standoff"The New York Timesআইএসএসএন 0362-4331। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৬ 
  10. "It seems the army has settled for a long haul in Sylhet to neutralise the militants"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৬ 
  11. "শেষ হলো 'অপারেশন টোয়াইলাইট'"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৮ 
  12. "Blasts during Sylhet hideout operation kill 6"Prothom Alo। ১২ আগস্ট ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৬ 
  13. "Gunfire, blasts heard as Sylhet militant hideout siege enters third day"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৭ 
  14. "Two killed, more 'well-trained' militants inside, says army in Sylhet"bdnews24.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৭ 
  15. "3 killed, 31 hurt in blasts outside Sylhet 'militant den'"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৩-২৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৭ 
  16. "2 militants killed, Sylhet raid to linger: Army"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৩-২৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৭ 
  17. "Bangladesh commandos storm militants hideout in Sylhet, rescue 78 civilians"hindustantimes.com/ (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৩-২৫। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৭ 
  18. "Blasts kill 5 amid raid"The Daily Star (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৩-২৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৭ 
  19. "Jt forces' anti-militant 'operation' launched"Prothom Alo। ১১ আগস্ট ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৬ 
  20. "Islamic State's Amaq reports bomb blast in Sylhet | Dhaka Tribune"Dhaka Tribune (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৩-২৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৭ 
  21. "6 Killed, 50 Injured In Twin Blasts In Bangladesh's Sylhet. Anti-Terror Operation Under Way"NDTV.com। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৬ 
  22. "Sylhet blasts kill four amid Bangladesh militant raid"BBC News (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৩-২৬। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৬ 
  23. "Two terrorists killed as Sylhet operation continues for third day"WION। ২০১৭-০৩-২৬। ২৬ মার্চ ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৬ 
  24. "Sylhet raid: What we know so far"Prothom Alo। ২৬ মার্চ ২০১৭ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৭ 
  25. "Explosives in Sylhet attack were time-bombs | Dhaka Tribune"Dhaka Tribune (ইংরেজি ভাষায়)। ২০১৭-০৩-২৭। সংগ্রহের তারিখ ২০১৭-০৩-২৭ 
  26. "সিলেটে আরও এক পুলিশ কর্মকর্তার মৃত্যু, নিহত মোট ৬"বিবিসি বাংলা। ২৬ মার্চ ২০১৭।