২০১৩ বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লীগ

২০১৩ বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লীগ (পৃষ্টপোষকতা জনিত কারণে প্রিমিয়ার ব্যাংক বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লীগ নামে পরিচিত) ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৩ তারিখে শুরু হয়। যেখানে ৮টি দল হোম ও এওয়ে পদ্ধতিতে একে-অপরের সঙ্গে খেলে।[১] চট্টগ্রাম আবাহনী প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন হয়।

প্রিমিয়ার ব্যাংক চ্যাম্পিয়নশিপ লীগ
প্রিমিয়ার ব্যাংক বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লীগ ২০১২-১৩.jpg
মৌসুম২০১৩
চ্যাম্পিয়নচট্টগ্রাম আবাহনী
উন্নীতচট্টগ্রাম আবাহনীউত্তর বারিধারা স্পোর্টিং ক্লাব
অবনমনঢাকা ইউনাইটেড

অংশগ্রহণকারী দলসমূহসম্পাদনা

 
 
ঢাকা
 
চট্টগ্রাম
২০১৩ বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লীগের দলগুলোর অবস্থান

নিম্নলিখিত ৮টি ক্লাব ২০১৩ মৌসুমের সময় বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নশিপ লীগে অংশ নেন।

এই মৌসুমে মোট ২টি মাঠে খেলা হয়। মাঠগুলি হল-

চূড়ান্ত অবস্থানসম্পাদনা

অব
দল
খে

ড্র
হা
গপ
গবি
গপা
পয়েন্ট
যোগ্যতা অথবা অবনমন
চট্টগ্রাম আবাহনী (C) (P) ১৪ ২৮ ১১ +১৭ ৩০ ২০১৩-১৪ বাংলাদেশ ফুটবল প্রিমিয়ার লীগ -এ উন্নীত
উত্তর বারিধারা স্পোর্টিং ক্লাব (P) ১৪ ২৭ ১৪ +১৩ ২৫
রহমতগঞ্জ এমএফএস ১৪ ১৬ ১৩ +৩ ১৯
ওয়ারী ক্লাব ১৪ ১৮ ১৭ +১ ১৬
ফরাশগঞ্জ স্পোর্টিং ক্লাব ১৪ ১৭ ২২ −৫ ১৬
আগ্রনী ব্যাংক স্পোর্টিং ক্লাব ১৪ ১৩ ২১ −৮ ১৫
ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাব ১৪ ১১ ২২ −১১ ১৫
ঢাকা ইউনাইটেড (R) ১৪ ১১ ২১ −১০ ১১ ঢাকা লীগ -এ অবনমন

১৩ জুন ২০১৩ তারিখের খেলা শেষের পর হালনাগাদকৃত।
উত্স: বাফুফে
শ্রেণীবিভাগের নিয়মাবলী: ১) পয়েন্ট; ২) গোল পার্থক্য; ৩) যতগুলি গোল করেছে।
(C) = চ্যাম্পিয়ন; (R) = অবনমন; (P) = উন্নীত; (E) = বাদ পড়া; (O) = প্লে-অফ বিজয়ী; (A) = পরবর্তী রাউন্ডে অগ্রিম উন্নীত।

তথ্যসূত্রসম্পাদনা

  1. "BCL 2013"বাফুফে। ১৫ জুন ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৩ জুন ২০১৩