হিটম্যান (২০১৪-এর চলচ্চিত্র)

২০১৪-এর চলচ্চিত্র

হিটম্যান হচ্ছে ২০১৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত একটি বাংলাদেশী মারপিটধর্মী-নাট্য চলচ্চিত্র। চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন ওয়াজেদ আলী সুমন[১] ও প্রযোজনা করেছেন মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম এবং এর কাহিনী ও চিত্রনাট্য লিখেছেন কাশেম আলী দুলাল ও আব্দুল্লাহ জহির বাবু। চলচ্চিত্রটিতে মুখ্য ভূমিকায় অভিনয় করেছেন শাকিব খান[২]অপু বিশ্বাস[৩] অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায় অভিনয় করেছেন মিশা সওদাগর, জয় চৌধুরী, শিরিন শিলা[৪] ও বিপাশা। এটি ২০১২ সালের তামিল ব্লকবাস্টার চলচ্চিত্র ভেটাইয়ের আনুষ্ঠানিক পুনঃনির্মাণ।[৫][৬][৭]

হিটম্যান
হিটম্যান চলচ্চিত্রের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তিপ্রাপ্ত পোস্টার
পরিচালকওয়াজেদ আলী সুমন
প্রযোজকমোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম
চিত্রনাট্যকারআব্দুল্লাহ জহির বাবু
কাহিনিকারকাশেম আলী দুলাল
শ্রেষ্ঠাংশে
সুরকারআলী আকরাম শুভ
চিত্রগ্রাহকএস.এম আজহার
সম্পাদকতৌহিদ হোসেন চৌধুরী
প্রযোজনা
কোম্পানি
সজীব ফিল্মস
পরিবেশকসজীব ফিল্মস
মুক্তি
  • ৬ অক্টোবর ২০১৪ (2014-10-06)
দৈর্ঘ্য১৪৭ মিনিট
দেশবাংলাদেশ
ভাষাবাংলা

কাহিনী সংক্ষেপ সম্পাদনা

হিটম্যান হচ্ছে দুই ভাইয়ের একটি শক্তিশালী গল্প, রানা ও শুভ, যারা একে অপরের থেকে একেবারেই আলাদা। তাদের বাবা ছিলেন একজন পুলিশ কনস্টেবল কিন্তু তার মৃত্যুর পরে শুভ এই দায়িত্ব পালন করে যান। তার সাহসীকতার অভাবের কারণে শুভ অপরাধের বিরুদ্ধে লড়াই করা কঠিন মনে করে। এই সময়ে রানা, যিনি একজন পুলিশ নন, তিনি ছদ্মবেশে তার বড় ভাইকে সহায়তা করেন। শুভ যখন তার ভাইয়ের জন্য অপরাধীদের সঙ্গে অনেক লড়াইয়ে জয়ী হচ্ছিল, শুভকে প্রশংসিত করা হচ্ছছিল, তখন তাকে পুলিশ সুপার হিসাবে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছিল। গল্পের টার্নিং পয়েন্টটি দেখা যায়, যখন শুভ ছদ্মবেশে ধরা পড়েন এবং তাকে নির্মমভাবে মেরে ফেলার চেষ্টা করা হয়। রানা তার ভাইকে ভয়কে মোকাবেলা করা, সন্ত্রাসীদের পরাস্ত করার সাহসে গড়ে তোলেন। এই পয়েন্টের পরে আমরা দেখতে পাই, শুভ সাহসী দাঁড়িয়ে যান এবং কীভাবে তিনি রানার সাথে খলনায়কদের মোকাবেলা করবেন, তা খুঁজে বের করেন।

অভিনয় সম্পাদনা

সংগীত সম্পাদনা

চলচ্চিত্রটির সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন আলী আকরাম শুভ ও গীত রচনা করেছেন সুদীপ কুমার দীপ। এর গানগুলো গেয়েছেন আসিফ আকবর, দিলশাদ নাহার কনা, মিমি, মুন, তানজিন রুমা, এসআই টুটুল এবং হাবিব ওয়াহিদ

মুক্তি সম্পাদনা

চলচ্চিত্রটি ৬ অক্টোবর ২০১৪ সালের ঈদুল আযহায় উপলক্ষে ১১২টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায়।[৮]

তথ্যসূত্র সম্পাদনা

  1. "ঈদে 'হিটম্যান' ও 'সেরা নায়ক' শাকিব"banglanews24.com (ইংরেজি ভাষায়)। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৬-০৯ 
  2. "শাকিব-অপুর হ্যাটট্রিক"প্রথম আলো। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৬-০৯ 
  3. সাহা, জয়ন্ত; ডটকম, বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর। "ঈদে অপুর দুই সিনেমা"bangla.bdnews24.com। ২০২০-০৬-১৮ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৬-০৯ 
  4. "সিনেমায় শিরিন শিলার ব্যস্ততা"যুগান্তর। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৬-০৯ 
  5. সাইফুল, রাহাত (২০১৯-০৫-২২)। "নকলের থাবায় ধ্বংসের মুখে ঢাকাই চলচ্চিত্র"risingbd.com। সংগ্রহের তারিখ ২০২০-০৬-০৯ 
  6. "Shakib Khan likely to dominate Eid box office"New Age। সংগ্রহের তারিখ ৩ অক্টোবর ২০১৪ 
  7. "Hitman To Released on EID"। cinemanews24। ৪ অক্টোবর ২০১৪ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১ অক্টোবর ২০১৪ 
  8. https://www.jugantor.com/old/tara-jilmil/2014/10/16/159877

বহিঃসংযোগ সম্পাদনা